দুদকের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি

ঢাকা, বুধবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৮ | ৩০ কার্তিক ১৪২৫

দুদকের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি

হামিদুর রহমান ৯:৫৪ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ০৮, ২০১৮

print
দুদকের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি

সারা দেশে এসএসসি পরীক্ষার্থীদের নির্বাচনী পরীক্ষার পর ফরম পূরণের কাজ চলছে। দুদক ঘোষণা করেছে, ২০১৯ সালে অনুষ্ঠিতব্য মাধ্যমিক ও সমমানের (এসএসসি) পরীক্ষার ফরম পূরণে অতিরিক্ত অর্থ নিলে সেসব স্কুলে তাৎক্ষণিক অভিযান চালাবে তারা। একই সঙ্গে কোনো স্কুলে অতিরিক্ত অর্থ নিলে দুদকের হটলাইনে (১০৬) অভিযোগ দেওয়ার পরামর্শ দিয়েছে সংস্থাটি। দুদকের পক্ষে থেকে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

সরকার কর্তৃক কেন্দ্র ফি বিজ্ঞান বিভাগ ১৫৬৫ টাকা, ব্যবসা বিভাগ ১৪৪৫ টাকা এবং মানবিক বিভাগ ১৪৪৫ টাকা নির্ধারিত করা হয়েছে। অথচ গ্রামে গ্রামে স্কুলে ফরম পূরণের জন্য শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে মোটা অঙ্কের টাকা আদায় করেছে অসাধু কিছু শিক্ষক। যেখানে সরকার কর্তৃক প্রতিটি বিভাগের কেন্দ্র ফি নির্ধারণ করে দিয়েছে সেখানে স্কুল কর্তৃপক্ষ জুলুম করে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে কেন্দ্র ফির চেয়ে দুইগুণ, তিনগুণ টাকা আদায় করে নিচ্ছে।

দুদকের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, এসব অভিযোগে দেখা যায় বেশকিছু শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বোর্ডে নির্ধারিত ফির চেয়ে বেশি অর্থ আদায় করছে। কোনো কোনো ক্ষেত্রে নির্বাচনী পরীক্ষায় (টেস্ট পরীক্ষা) ফেল করা ছাত্রছাত্রীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত টাকার বিনিময়ে তাদের পরীক্ষা দেওয়ার সুযোগ করে দেওয়া হচ্ছে। এসব অভিযোগ আসার পর দেশের বিভিন্ন স্কুলে অভিযান পরিচালিত হচ্ছে। এ বিষয়ে দুদক ব্যবস্থা নিচ্ছে বলেও জানানো হয়েছে।

শুধু তাই নয়, দুদকের এই ঘোষণার পরও বেপরোয়া ওই সব শিক্ষক অভিভাবকরা পরীক্ষার খাতা দেখতে চাইলে খাতা দেখায় না। অথচ বলে ফেল করছে। এতে গরিব মেধাবী শিক্ষার্থীদের অভিভাবকরা টাকা না দিতে পারায় তাদের সন্তানদের পড়ালেখা থেকে বাদ পড়ছে। দুদকের কর্মকর্তাদের প্রতি আহ্বান, আপনারা দেশের ভিন্ন অঞ্চলে সরেজমিন তদন্ত করে অসাধু শিক্ষকদের চিহ্নিত করুন। শাস্তির ব্যবস্থা করুন। যাতে গরিব মেধাবী শিক্ষার্থীরা এসএসসি পরীক্ষার ফরম পূরণে কোনো দুর্নীতির শিকার না হয়।

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়।