পিতামাতার উচিত সন্তানের প্রতি দৃষ্টি দেওয়া

ঢাকা, বুধবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৮ | ৩০ কার্তিক ১৪২৫

পিতামাতার উচিত সন্তানের প্রতি দৃষ্টি দেওয়া

মকবুল হামিদ ১০:১০ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ০৬, ২০১৮

print
পিতামাতার উচিত সন্তানের প্রতি দৃষ্টি দেওয়া

সন্তান জন্মগ্রহণের পর থেকে তাদের সঠিক পরিচর্যা, লালন-পালন করা প্রত্যেক পিতামাতার ওপর দায়িত্ব ও কর্তব্য। পিতামাতা তাদের প্রথম পাঠশালা। সন্তানরা প্রাথমিক শিক্ষা পরিবার থেকে পেয়ে থাকে এ কারণে পরিবারকে প্রাথমিক পাঠশালা বলা হয়। পিতামাতারা সবসময় তাদের সন্তানদের মঙ্গল কামনা করেন তবে সব পিতামাতা নয়। বিগত বছরগুলোতে দেখা গেছে, অনেক সন্তানরা পিতামাতাদের অবাধ্যের কারণে বিভিন্ন ধরনের ক্রাইমের সঙ্গে জড়িয়ে পড়েছিল।

আমাদের বর্তমান সমাজে অনেক পিতামাতাই তাদের সন্তান পালনের মাঝে ভীষণ উদাসীনতা করছে যা তাদের কাছ থেকে কোনোভাবেই কাম্য নয়। পিতামাতারা যদি ছোটবেলা থেকে তাদের সন্তানদের ভদ্রতা দেখান, ভালো ব্যবহার করেন, তাদের সঙ্গে সৌহার্দপূর্ণ আচরণ করেন সন্তানরা বড় হলে তাদের পিতামাতার প্রতিও বিশেষ দৃষ্টি রাখবে এটাই স্বাভাবিক নিয়ম। পিতামাতারা হচ্ছে সন্তানদের অভিভাবক, প্রথম শিক্ষক আর পরিবার যেহেতু প্রথম বিদ্যালয় সেহেতু সন্তানরা তাদের প্রথম বিদ্যালয় ও শিক্ষকদের কাছ থেকে যা শিখবে সেভাবেই তারা গড়ে ওঠে এটা সব পিতামাতার জানা উচিত। পিতামাতাদের অসচেতনতার কারণে অনেক সন্তানরা বড় হয়ে চোর, ডাকাত, সন্ত্রাসী হয় এর জন্য কিন্তু পিতামাতারাই দায়ী।
পিতামাতার দায়িত্বের অবহেলার কারণে অনেক সন্তানরা অকালে ঝরে পড়ে। পড়ালেখা তাদের কাছে ভালো লাগে না। আমাদের সমাজের পিতামাতাদের দিকে তাকালে দেখতে পাওয়া যায়, সন্তানরা প্রাথমিক বিদ্যালয় শেষ করতে না করতেই তাদের হাতে স্মার্টফোন তুলে দেয় পরে সন্তানরা পড়ালেখা বাদ দিয়ে রাত জেগে ফেসবুক চ্যাটিং করে, বান্ধবীদের সঙ্গে কথা বলে। পড়ালেখা তো দূরের কথা পাঠ্যবই কোনোদিন খুলেও দেখে না। পরীক্ষার ফলাফল দিলে দেখা যায়, এক বিষয়েও পাস করেনি। আজকে যদি পিতামাতারা তাদের হাতে স্মার্টফোন তুলে না দিত তাহলে এমনটা হতো না।


চাঁদপুর সরকারি কলেজ।