রায় কার্যকরের দাবিতে সারা দেশে বিক্ষোভ

ঢাকা, সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | ৩১ ভাদ্র ১৪২৬

রায় কার্যকরের দাবিতে সারা দেশে বিক্ষোভ

২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা

খোলা কাগজ ডেস্ক ৯:১৮ অপরাহ্ণ, আগস্ট ২১, ২০১৯

print
রায় কার্যকরের দাবিতে সারা দেশে বিক্ষোভ

বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট আওয়ামী লীগের সমাবেশে গ্রেনেড হামলা মামলার রায় কার্যকরের দাবিতে বিভিন্ন স্থানে বিক্ষোভ সমাবেশ এবং নিহতদের স্মরণে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। বুধবার এসব কর্মসূচি পালন করা হয়। বিস্তারিত জেলা ও উপজেলা প্রতিনিধিদের পাঠানো খবরে-

চাঁপাইনবাবগঞ্জ : ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলায় রায়ে দণ্ডপ্রাপ্তদের সাজা দ্রুত কার্যকরের দাবিতে চাঁপাইনবাবগঞ্জে মানববন্ধন করেছে পৌর আওয়ামী লীগ। গতকাল শহরের বঙ্গবন্ধু মুক্তমঞ্চের সামনের সড়কে ঘণ্টাব্যাপী চলা মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি রুহুল আমিন, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল ওদুদ, পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান প্রমুখ। মানববন্ধন থেকে তারেক রহমানসহ দণ্ডপ্রাপ্ত পলাতক থাকা সব আসামিকে দেশে ফিরিয়ে এসে সাজা কার্যকরের দাবি জানানো হয়।

ধোবাউড়া (ময়মনসিংহ) : আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপর ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার ঘটনার প্রতিবাদে এবং জড়িতদের শাস্তি দাবিতে ধোবাউড়ায় বিক্ষোভ মিছিল ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। উপজেলা আওয়ামী লীগের অফিস থেকে বিক্ষোভ মিছিল বের হয়ে পুনরায় দলীয় কার্যালয়ে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক প্রিয়তোষ বিশ্বাস বাবুল, সাংগঠনিক সম্পাদক শওকত ওসমান, মোর্শেদ খান, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক মোস্তফা কামাল হোসেন, স্বেচ্ছাসেবক লীগের আহ্বায়ক আফতাব উদ্দিন প্রমুখ।

গোপালগঞ্জ : ২১ আগস্ট ঢাকার বঙ্গবন্ধু এভিনিউতে আওয়ামী লীগের সমাবেশে ইতিহাসের বর্বরোচিত গ্রানেড হামলার বিচারের রায় কার্যকর ও এ হামলার মাস্টারমাইন্ড তারেক রহমানের সর্বোচ্চ সাজার দাবিতে গোপালগঞ্জে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে ছাত্রলীগ। জেলা ছাত্রলীগের উদ্যোগে সরকারি বঙ্গবন্ধু কলেজ চত্বর থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়। পরে মিছিলটি সারা শহর প্রদক্ষিণের পর চৌরঙ্গীর মোড়ে পৌঁছে সমাবেশের মধ্য দিয়ে শেষ হয়। সমাবেশে সভাপত্বি করেন জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মো. আব্দুল হামিদ। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম রফিক, সহ-সভাপতি মুন্সি মিকাইল, প্রচার সম্পাদক রাজু খান, কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক নিউটন মোল্লা প্রমুখ।

জয়পুরহাট : ২১ আগস্ট বর্বরোচিত গ্রেনেড হামালায় নিহতদের স্মরণে জয়পুরহাটে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ উপলক্ষে জয়পুরহাট পৌর আওয়ামী লীগের আয়োজনে জেলা আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন জয়পুরহাট-১ আসনের সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সামছুল আলম দুদু, সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এস এম সোলায়মান আলী, সহ-সভাপতি রাজা চৌধুরী, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক জাহিদুল আলম বেনু, পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মাহমুদ হোসেন হিমু প্রমুখ।

জাবি : গ্রেনেড হামলায় জড়িতদের ফাঁসি কার্যকরের দাবিতে প্রতীকী ফাঁসির কর্মসূচি পালন করেছে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় (জাবি) ছাত্রলীগ। বিশ্ববিদ্যালয়ের মহুয়া তলায় এ প্রতীকী কর্মসূচি পালন করে শাখা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। এতে গ্রেনেড হামলায় জড়িত তারেক রহমান, লুৎফুজ্জামান বাবর, আবদুস সালাম পিন্টু ও হারিস চৌধুরীকে প্রতীকী ফাঁসি দেওয়া হয়। এর আগে পরিবহন চত্বর থেকে শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি জুয়েল রানার নেতৃত্বে কালো পতাকা মিছিল বের করা হয়। মিছিলটি ক্যাম্পাসের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে মহুয়া তলায় শেষ হয়।

রাঙ্গামাটি : হামলাকারীদের ফাঁসির দাবিতে রাঙ্গামাটিতে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে জেলা, পৌর ও সদর উপজলা আওয়ামী লীগ। পৌরসভা প্রাঙ্গণ থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল শহরের বনরুপা প্রধান সড়ক হয়ে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনে গিয়ে শেষ হয়। মিছিল শেষে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনেই তারা প্রতিবাদ সমাবেশ করেন। প্রতিবাদ সমাবেশে রাঙ্গামাটির সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি দীপঙ্কর তালুকদারের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি নিখিল কুমার চাকমা, সাধারণ সম্পাদক হাজী মুছা মাতব্বর, পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মনসুর আলী প্রমুখ।

নবাবগঞ্জ (দিনাজপুর) : গ্রেনেড হামলায় নিহতদের স্মরণে আলোচনা সভা ও তাদের রুহের মাগফেরাত কামনায় দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। উপজেলা আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মো. আমির হোসেনের সভাপতিত্বে এ আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়ে। সভায় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মো. সাদেকুল ইসলাম, দবিরুল ইসলাম, মোজাম্মেল হক, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মো. জিয়াউর রহমান মানিক, মো. হাফিজুর রহমান, মো. সানোয়ার হোসেন মণ্ডল, উপজেলা মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদক ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মোছা. পারুল বেগম, যুবলীগের যুগ্ম-আহ্বায়ক শ্রী দিলীপ কুমার সরকার, শামসুজ্জামান, স্বেচ্ছাসেবক লীগের প্রস্তুত কমিটির আহ্বায়ক মো. আবুল বাশার সবুজ, ছাত্রলীগের সভাপতি মো. শাহিনুর রহমান সবুজ প্রমুখ।

নোয়াখালী : নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ‘শোকাবহ আগস্ট’ পালন ও ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় নিহতদের স্মরণে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ, সভা ও দোয়া অনুষ্ঠিত হয়েছে। কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুষ্পার্ঘ অর্পণ করা হয়। পরে বীর মুক্তিযোদ্ধা হাজী মো. ইদ্রিস অডিটোরিয়ামে শোকাবহ ‘১৫ ও ২১ আগস্টকে প্রতিপাদ্য করে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন উপাচার্য প্রফেসর ড. মো. দিদার-উল-আলম।

রাউজান (চট্টগ্রাম) : গ্রেনেড হামলায় নিহতদের স্মরণে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করে রাউজান উপজেলা আওয়ামী লীগ। দলীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত আলোচানা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান কাজী আব্দুল ওহাব। বিশেষ অতিথি ছিলেন রাউজান উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান একে এম এহেছানুল হায়দর চৌধুরী বাবুল।

নীলফামারী : গ্রেনেড হামলায় জড়িতদের দ্রুত বিচার দাবিতে নীলফামারীতে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। পৌর আওয়ামী লীগের উদ্যোগে বঙ্গবন্ধু চত্বরে বিক্ষোভ সমাবেশ শেষে সেদিনের ঘটনায় নিহতদের স্মরণে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়। এরপর সেখান থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল শহরের প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে।

সমাবেশে পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি মসফিকুল ইসলাম রিন্টুর সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন নারী সংসদ সদস্য রাবেয়া আলিম, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি দেওয়ান কামাল আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক মমতাজুল হক, সাংগঠনিক সম্পাদক হাফিজুর রশিদ মঞ্জু, জেলা কৃষকলীগের সভাপতি অক্ষয় কুমার রায়, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শাহিদ মাহমুদ, ভাইস চেয়ারম্যান দীপক চক্রবর্তী, শান্তনা চক্রবর্তী, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবুজার রহমান, পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আল মাসুদ আলাল প্রমুখ।

দশমিনা (পটুয়াখালী) : বর্বরোচিত গ্রেনেট হামলায় নিহত পটুয়াখালীর দশমিনা উপজেলার আলিপুর গ্রামের মামুন মৃধার স্মরণে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন, স্মরণসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ সময় উপস্থিত ছিলেন এস এম শাহজাদা এমপি, উপজেলা আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

বড়াইগ্রাম (নাটোর) : নিহতদের প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পণ ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বনপাড়ায় আয়োজিত আলোচনা সভায় সাবেক প্রধান শিক্ষক মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল বারী মজুমদারের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের স্বাস্থ্য সম্পাদক উপজেলা চেয়ারম্যান ডা. সিদ্দিকুর রহমান পাটোয়ারী। সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা পরিষদ সদস্য মুক্তিযোদ্ধা আবু বকর সিদ্দিক ও আবুল কালাম জোয়াদ্দার, জোয়াড়ী ইউপি চেয়ারম্যান চাঁদ মাহমুদ, সাবেক চেয়ারম্যান খোকন মোল্লা ও আতাউর রহমান জিন্নাহ, বনপাড়া পৌর আওয়ামী লীগের যুগ্ন সম্পাদক আবুল কালাম আযাদ, আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুস সোবহান, জাকির সরকার ও ফেরদৌস উল আলম।

বগুড়া : ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা দিবসে বগুড়ায় বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করেছে জেলা আওয়ামী লীগ। সকালে জাতীয়, দলীয়, কালো পতাকা উত্তোলন ও কালো ব্যাজ ধারণ, বঙ্গবন্ধু ও জাতীয় চার নেতার প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পণ করা হয়। সকাল ৯ টায় দলীয় কার্যালয়ে স্মরণ সভায় সভাপতিত্ব করেন বগুড়া জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ডা. মকবুল হোসেন। সভায় বক্তব্য রাখেন বগুড়া জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মজিবর রহমান মজনু, অধ্যাপক এস এম আইয়ুব, টি এম মুসা পেস্তা, আবুল কালাম আজাদ, মকবুল হোসেন মুকুল, রাগেবুল আহসান রিপু, টি জামান নিকেতা, মঞ্জুরুল আলম মোহন, প্রদীপ কুমার রায়, সাইফুল ইসলাম, জাকির হোসেন নবাব, সুলতান মাহমুদ খান রনি, শেরিন আনোয়ার জর্জিস, শফিকুল আলম আক্কাস, কামরুন্নাহার পুতুল, আনিছুজ্জামান মিন্টু, এস এম রুহুল মোমিন তারিক, এবিএম জহুরুল হক বুলবুল, অধ্যক্ষ খাদিজা খাতুন শেফালী, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আবু সুফিয়ান সফিক, মাশরাফী হিরো, আলরাজী জুয়েল, তপন চক্রবর্তী, আছালত জামান, মন্তেজার রহমান মন্টু, ওবায়দুল হাসান ববি, আলমগীর বাদশা, আব্দুস সালাম, শুভাশীষ পোদ্দার লিটন, সাজেদুর রহমান শাহীন, আমিনুল ইসলাম ডাবলু, মঞ্জুরুল হক মঞ্জু, লাইজিন আরা লিনা, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ডালিয়া নাসরিন রিক্তা, ছাত্রনেতা নাইমুর রাজ্জাক তিতাস, অসীম কুমার রায়, পৌর কাউন্সিলর মোস্তাকিম রহমান, রাশেকুজ্জামান রাজন প্রমুখ।

এ সময় বক্তারা বলেন, ১৫ আগস্ট এবং ২১ আগস্ট একই সূত্রে গাঁথা। যারা ১৫ আগস্ট ঘটিয়েছিল তারাই ২১ আগস্ট ঘটিয়েছে। স্বাধীনতাবিরোধী অপশক্তি বারবার আওয়ামী লীগের উপর হামলা করেছে।

বাংলাদেশে যত হত্যাযজ্ঞ ও জঙ্গি হামলা হয়েছে তার একটাও বিএনপি-জামায়াতের উপর হয়নি। এ থেকেই বোঝা যায় এদের পৃষ্ঠপোষক কে? বিএনপি-জামায়াত নামে সংগঠন মাত্র। এদেরকে চালায় পাকিস্তানি গোয়েন্দা সংস্থা। খালেদা জিয়ারা বাংলাদেশকে পাকিস্তান বানাতে চেয়েছিল।

কিন্তু শেখ হাসিনার কারণে তা সম্ভব হয়নি। জীবনে গ্রেনেড হামলাসহ ১৯ বার মৃত্যুর মুখোমুখি দাঁড়িয়েছেন আজকের প্রধানমন্ত্রী। স্বাধীনতা বিরোধীদের মূল টার্গেট ছিলেন তিনি।