হাজতি উধাও: জেলার ও ডেপুটি জেলারকে প্রত্যাহার

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২০ এপ্রিল ২০২১ | ৭ বৈশাখ ১৪২৮

হাজতি উধাও: জেলার ও ডেপুটি জেলারকে প্রত্যাহার

নিজস্ব প্রতিবেদক ৪:৪৫ অপরাহ্ণ, মার্চ ০৭, ২০২১

print
হাজতি উধাও: জেলার ও ডেপুটি জেলারকে প্রত্যাহার

চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে ফরহাদ হোসেন রুবেল নামে এক হাজতিকে খুঁজে না পাওয়ার ঘটনায় জেলার রফিকুল ইসলাম ও ডেপুটি জেলার আবু সাদাতকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। এছাড়া এ ঘটনায় মো. নাজিম উদ্দিন ও মো. ইউনুস নামে দুই কারারক্ষীকে সাময়িক বরখাস্ত করার পাশাপাশি কামাল হায়দার নামে এক কারারক্ষীর বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা করা হয়েছে। একই সঙ্গে খুলনা বিভাগের কারা উপ-মহাপরিদর্শক ছগির মিয়াকে প্রধান করে করা তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

এ তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করে কারা মহাপরির্দশক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. মোমিনুর রহমান মামুন বলেন, কমিটির অন্য দুই সদস্য হলেন- ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা কারাগারের সুপার ইকবাল হোসেন ও বান্দরবান জেলা কারাগারের ডেপুটি জেলার ফোরকান ওয়াহিদ।

ছগির মিয়া সংবাদমাধ্যমকে বলেন, ‘তদন্ত কমিটি গঠনের বিষয়ে শুনেছি। অফিসিয়াল অর্ডার হাতে পেলেই আমরা কাজ শুরু করব।’

প্রসঙ্গত, চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারে রুবেলের হদিস না পেয়ে সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছে কারা কর্তৃপক্ষ। শনিবার (৬ মার্চ) বিকেলে কোতোয়ালী থানায় জিডি করেন চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারের সিনিয়র জেল সুপার মো. শফিকুল ইসলাম খান।

কারা কর্তৃপক্ষ জানায়, রুবেল নরসিংদী জেলার রায়পুরা উপজেলার মীরেরকান্দি গ্রামের শুক্কুর আলী ভাণ্ডারির ছেলে। তিনি নগরীর সদরঘাট থানায় দায়ের হওয়া একটি হত্যা মামলার আসামি।

কারা সূত্র জানায়, শনিবার সকালে নিয়মিত বন্দি গণনাকালে কর্ণফুলী ভবনের বন্দি রুবেলের অনুপস্থিতির বিষয়টি ধরা পড়ে। এরপর থেকে দিনভর কারাগারের বিভিন্ন ওয়ার্ডে খোঁজ করেও ওই বন্দির হদিস মেলেনি। বন্দিকে খুঁজতে বিকেলে কারাগারে পাগলা ঘন্টা বাজানো হয়। এ সময় কারাভ্যন্তরে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।