রাজধানীর খালগুলোর রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্ব পাচ্ছে সিটি কর্পোরেশন: তাজুল

ঢাকা, রবিবার, ২৪ জানুয়ারি ২০২১ | ১১ মাঘ ১৪২৭

রাজধানীর খালগুলোর রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্ব পাচ্ছে সিটি কর্পোরেশন: তাজুল

নিজস্ব প্রতিবেদক ৭:০৬ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২৬, ২০২০

print
রাজধানীর খালগুলোর রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্ব পাচ্ছে সিটি কর্পোরেশন: তাজুল

স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম বলেছেন, রাজধানীর খালগুলোর রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্ব দু’সিটি কর্পোরেশনের হাতে দেয়ার নীতিগত সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তিনি আজ মন্ত্রণালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত এক সভা শেষে এ কথা জানান।

স্থানীয় সরকার মন্ত্রী বলেন, এক সময় খালের দায়িত্ব সিটি কর্পোরেশনের হাতেই ছিল এবং আইনেও সেটাই আছে। পরবর্তীতে কোন এক সময়ে রাষ্ট্রপতির আদেশে সেটি ঢাকা ওয়াসার হাতে দেওয়া হয়।

তিনি বলেন, এখন দুই সিটি কর্পোরেশনের মেয়ররা খালের দায়িত্ব নেওয়ার আগ্রহ প্রকাশ করেছেন। তাই ওয়াসা থেকে দুই সিটি কর্পোরেশনের হাতে খালগুলোকে হস্তান্তরের বিষয়ে নীতিগত সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে।

তাজুল বলেন, ঢাকা ওয়াসার কাছ থেকে সিটি কর্পোরেশনের হাতে খালগুলোকে হস্তান্তরের জন্য একটি কারিগরী কমিটি গঠন করা হয়েছে। স্থানীয় সরকার বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মুহাম্মদ ইবরাহিমকে আহবায়ক ও মোহাম্মদ সাঈদ উর রহমানকে সদস্য সচিব করে এবং ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন থেকে ৪ জন করে মোট ৮ জন, ঢাকা ওয়াসা থেকে চারজন মোট ১৪ সদস্যের এই কমিটি গঠন করা হয়েছে।

তিনি বলেন, সিটি কর্পোরেশন কিভাবে কাজ করবে এবং ওয়াসা কিভাবে দায়িত্ব হস্তান্তর করবে এই কমিটি সে বিষয়ে প্রতিবেদন দেবে। সে অনুযায়ী আইনুনাগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন হবে। কমিটি আগামী ৩০ দিনের মধ্যে প্রতিবেদন দেবে। সেই প্রতিবেদনের আলোকে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হবে।

মন্ত্রী বলেন, ঢাকা মহানগরীর ড্রেনেজ ব্যবস্থাপনা, পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা ও সংস্কারসহ আরো বেশ কিছু কার্যক্রম পরিচালনার দায়িত্ব ঢাকা ওয়াসার কাছে ছিল। দায়িত্ব পাওয়ার পর দুই সিটি কর্পোরেশন তা পালন করবে।

তিনি বলেন, পানি নিষ্কাশনের জন্য জনবল ও যন্ত্রপাতিসহ সব কিছুই সিটি কর্পোরেশনের কাছে আছে, তাদের সক্ষমতাও আছে।

রাস্তা খোড়াখুড়ির বিষয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, পৃথিবীর আধুনিক শহরে ইউটিলিটি সাপোর্ট দেওয়ার জন্য পাইপলাইন স্থাপন করতে হয়। সময় সময় ক্যাপাসিটির জন্য পরিবর্তনও করতে হয়।

স্থানীয় সরকার মন্ত্রী জানান, এ সমস্যা সমাধানে দুই সিটির মেয়রসহ বিশ্বব্যাংকের সঙ্গে বৈঠক করা হয়েছে।

এর আগে অনুষ্ঠিত সভায় ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম, দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস, স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয়র সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ ও ঢাকা ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালক তাকসিম এ খান সহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।