যশোর-৬ ও বগুড়া-১ উপনির্বাচন আজ

ঢাকা, বুধবার, ১২ আগস্ট ২০২০ | ২৮ শ্রাবণ ১৪২৭

যশোর-৬ ও বগুড়া-১ উপনির্বাচন আজ

বিএনপির ভোট বর্জনে এগিয়ে নৌকা, হ্যান্ড গ্লাভস, স্যানিটাইজার বিতরণ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ ভোটের আশা

সিদ্দিকুর রহমান, কেশবপুর ও আকতারুজ্জামান সারিয়াকান্দি ৬:৫৭ পূর্বাহ্ণ, জুলাই ১৪, ২০২০

print
যশোর-৬ ও বগুড়া-১ উপনির্বাচন আজ

যশোর-৬ ও বগুড়া-১ আসনে উপনির্বাচনের ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠত হবে আজ মঙ্গলবার। ৯টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত বিরতিহীনভাবে ভোটগ্রহণ চলবে। ইতোমধ্যে নির্বাচন কমিশন সব প্রস্তুতি সেরে ফেলেছে। গতকাল সোমবার দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রিজাইডিং অফিসারদের উপজেলা নির্বাচন অফিস থেকে প্রত্যেকটি কেন্দ্রে ব্যালট বাক্স, হ্যান্ড গ্লাভস, হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিতরণ করা হয়েছে। এদিকে নির্বাচন ঘিরে এ দুই আসনে উৎসব-আমেজ বিরাজ করছে। তবে দেশের বৃহত্তম রাজনৈতিক দল বিএনপি নির্বাচন বর্জন করায় সাধারণভাবেই আওয়ামী লীগ প্রার্থীদের বিজয়ের সম্ভাবনা রয়েছে।

যশোর-৬ কেশবপুর সংসদীয় আসনে উপনির্বাচন : স্থগিত হওয়া উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগ, বিএনপি ও জাতীয় পাটির তিনজন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। বিএনপি উপনির্বাচনে কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্ত মোতাবেক অংশ নিচ্ছে না। যার কারণে এ আসনটিতে  নৌকা প্রতীকের প্রার্থী শাহীন চাকলাদারের বিজয় এখন সময়ের ব্যাপার। আসনটিতে তিনজন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নামেন। তারা হলেনÑ কেশবপুর উপজেলা বিএনপির সভাপতি ও কেন্দ্রীয় নেতা আবুল হোসেন আজাদ (ধানের শীষ), যশোর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহীন চাকলাদার (নৌকা), জাতীয়পার্টির (এরশাদ) সমর্থিত প্রার্থী সাংবাদিক হাবিবুর  রহমান হাবিব (লাঙল) প্রতীক নিয়ে ভোট যুদ্ধে মাঠে নামেন। প্রথমাবস্থায় ২৯ মার্চ নির্বাচন অনুষ্ঠানের দিন নির্ধারিত হয়। সে মোতাবেক প্রার্থীরা মাঠে ময়দানে ভোট প্রচারণায় নেমে পড়েন। মহামারি করোনাভাইরাসের কারণে এ আসনটির নির্বাচন স্থগিত ঘোষণা করা হয়। এ মাসের ৪ জুলাই নির্বাচন কমিশন থেকে ফের ১৪ জুলাই নির্বাচন অনুষ্ঠানের ঘোষণা দিলে বিএনপি করোনাভাইরাসের কারণে ভোট বর্জনের ঘোষণা দেয়। সে থেকে বিএনপি ভোটের মাঠে কোনো প্রচারণায় নেই। সংগত কারণে মূল প্রতিদ্বন্দ্বিতায় আওয়ামী লীগ ও জাতীয় পার্টির প্রার্থী।

কেশবপুর উপজেলার ১১টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভা নিয়ে যশোর-৬ কেশবপুর সংসদীয় আসন গঠিত। মোট ভোটার ২ লাখ ৩ হাজার ১১৮। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ১ লাখ ২ হাজার ১২২ জন ও মহিলা ভোটার ১ লাখ ৮৯৬ জন। মোট ভোট কেন্দ্র ৭৯টি। ৩৭৪টি বুথ, দায়িত্ব পালন করবে ৭৯ জন প্রিজাইডিং অফিসার, ৩৭৪ জন সহকারি প্রিজাইডিং অফিসার ও ৭৪৮ জন পোলিং অফিসার দায়িত্ব পালন করবে বলে জানান উপজেলা নির্বাচন অফিসার মো. বজলুর রশীদ।

আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী শাহীন চাকলাদার নির্বাচনে বিজয়ী হওয়ার ব্যাপারে শতভাগ আশাবাদ ব্যক্ত করেন।  জাতীয় পার্টি মনোনীত প্রার্থী হাবিবুর রহমান জানান, সুষ্ঠু নির্বাচন হলে তিনি নির্বাচনে বিজয়ী হওয়ার আশা ব্যক্ত করেন। সব মিলিয়ে এ আসনটিতে আওয়ামী লীগের বিজয়ী হওয়ার সম্ভাবনা স্পষ্ট হয়ে উঠেছে।

যশোর-৬ কেশবপুর সংসদীয় আসনের প্রয়াত এমপি ইসমাত আরা সাদেক চলতি বছরের ২১ জানুয়ারি মৃত্যুবরণ করায় আসনটি শূন্য ঘোষণা করা হয়। ১১ জুলাই কেশবপুর আবু সারাফ সাদেক অডিটরিয়ামে সংসদীয় আসন ৯০ যশোর-৬ কেশবপুর আসনের উপনির্বাচন সংক্রান্ত আইনশৃঙ্খলাবিষয়ক সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নুরুল হুদা। তিনি করোনা পরিস্থিতির  মধ্যে ভোটের দিন নির্ধারণে সাংবিধানিক বাধ্যবাধকতার কথা উল্লেখ কনে। তিনি নির্বাচনের সঙ্গে সংশ্লিষ্টদের নিষ্ঠার সঙ্গে দায়িত্ব পালনের নির্দেশ দেন। কেশবপুৃর উপজেলা নির্বাহী অফিসার নুসরাত জাহান জানান, ভোট কেন্দ্রের সুষ্ঠু পরিবেশ রক্ষায় ১৮ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট, পুলিশ, র‌্যাব, বিজিবি ও আনসার ব্যাটালিয়ন দায়িত্ব পালন করবেন।

আজ বগুড়া-১ আসনের উপনির্বাচন : বন্যা ও করোনার প্রার্দুভাব মাথায় নিয়ে ভোটারদের উদ্বেগ- উৎকণ্ঠার মধ্য দিয়ে আজ বগুড়া-১(সারিয়াকান্দি-সোনাতলা) আসনের উপনির্বাচন। নির্বাচন নিয়ে উপজেলা প্রশাসন ব্যাপক প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে। উপজেলা নির্বাচন অফিসার সাখাওয়াত হোসেন জানান, নির্বাচন কমিশনের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী এবার নির্বাচনী কেন্দ্রে ভোটের ব্যালট যাবে নির্বাচনের দিন সকালে। ১০টি পয়েন্ট থেকে ভোটের দিন অন্যান্য কেন্দ্রে ব্যালট বিতরণ করা হবে।
ভোটকেন্দ্রে নিরপেক্ষ ভূমিকা পালনের জন্য গতকাল সোমবার সকালে উপজেলা পরিষদ চত্বরে পুলিশ ও আনসার বাহিনীর সদস্যদের ব্রিফ করেন গাবতলী সার্কেলের এএসপি সাবিনা ইয়াসমিন। এ সময় সারিয়াকান্দি থানার ওসি আল- আমিন উপস্থিত ছিলেন। নির্বাচন কমিশন অবাধ, সুষ্ঠু, নিরপেক্ষভাবে ভোট গ্রহণের জন্য আইনশৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণ ও সার্বিক আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যকে আইনানুগ দিক নির্দেশনা প্রদানের জন্য সারিয়াকান্দিতে ১৩ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগ করা হয়েছে। এছাড়াও ৫৯৭ পুলিশ সদস্য, ৮ প্লাটুন বিজিপি ও ৭৭০ জন আনসার সদস্যদের নিয়োগ করা হয়েছে ।

উপজেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার ৭০টি কেন্দ্রে সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত বিরতিহীনভাবে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। এর মধ্যে চরাঞ্চলে ভোট কেন্দ্র ১৭টি। প্রত্যেকটি ভোট কেন্দ্রে ১ জন করে প্রিজাইডিং অফিসার নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। এ আসনে মোট ৩ লাখ ৩০ হাজার ৮৯২ জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করবে। এর মধ্যে সারিয়াকান্দি ১ লাখ ৭৭ হাজার ৩৫২ জন এবং সোনাতলায় ১ লাখ ৫৩ হাজার ৫৫৬ জন।

এদিকে বিএনপি প্রার্থী একেএম আহসানুল তৈয়ব জাকির দলীয় সিদ্ধান্তে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন। এছাড়াও উপনির্বাচনে যারা প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন তারা হলেনÑ আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী প্রয়াত সংসদ সদস্য আব্দুল মান্নানের সহধর্মিনী সাহাদারা মান্নান (নৌকা), স্বতন্ত্র প্রার্থী ইয়াসির রহমতুল্লাহ ইন্তাজ (ট্রাক), খেলাফত আন্দোলনের প্রার্থী প্রভাষক নজরুল ইসলাম (বটগাছ), জাতীয় পার্টির মোকছেদুল আলম (লাঙল), প্রগতিশীল গণতান্ত্রিক দলের মো. রনি। উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা রাসেল মিয়া জানান, নির্বাচনে নিরাপত্তার কোনো ঘাটতি নেই। অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরোপেক্ষ ভোটগ্রহণের জন্য ব্যাপক প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়েছে। মাঠপর্যায়ের প্রশাসনদেরও দিকনির্দেশনা দেওয়া আছে।