করোনায় মৃতের সংখ্যা ২ হাজার ছুঁই ছুঁই

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৬ আগস্ট ২০২০ | ২২ শ্রাবণ ১৪২৭

করোনায় মৃতের সংখ্যা ২ হাজার ছুঁই ছুঁই

নিজস্ব প্রতিবেদক ৮:২০ পূর্বাহ্ণ, জুলাই ০৫, ২০২০

print
করোনায় মৃতের সংখ্যা ২ হাজার ছুঁই ছুঁই

দেশে গতকাল শনিবার সকাল ৮টা পর্যন্ত পূর্ববর্তী ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আরও ২৯ জনের প্রাণহানি ঘটেছে। এতে করে প্রাণঘাতী এই ভাইরাসে দেশে মৃতের সংখ্যা দুই হাজার ছুঁই ছুঁই। এ নিয়ে মৃতের সংখ্যা দাঁড়ালো ১ হাজার ৯৯৭ জনে। এদিকে একই সময়ে নতুন করে তিন হাজার ২৮৮ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে দেশে এখন পর্যন্ত মোট শনাক্ত হয়েছেন এক লাখ ৫৯ হাজার ৬৭৯ জন। এছাড়া ওই সময়ে সুস্থ হয়েছেন দুই হাজার ৬৭৩ জন। এ নিয়ে এখন পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়েছেন ৭০ হাজার ৭২১ জন।

শনিবার দুপুর আড়াইটায় দেশের করোনাভাইরাস সম্পর্কিত সার্বিক পরিস্থিতি জানাতে স্বাস্থ্য অধিদফতরের নিয়মিত স্বাস্থ্য বুলেটিনের আয়োজন করা হয়। সেখানে এসব তথ্য জানান স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক নাসিমা সুলতানা।

তিনি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে ১৩ হাজার ৮৭১টি, নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ১৪ হাজার ৭২৭টি। এখন পর্যন্ত ৮ লাখ ৩২ হাজার ৭৪টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। নমুনা পরীক্ষার মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত হয়েছেন ৩ হাজার ২৮৮ জন। ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ২২ দশমিক ৩৩ শতাংশ। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৪৪ দশমিক ২৯ শতাংশ এবং শনাক্ত বিবেচনায় মৃত্যুর হার ১ দশমিক ২৫ শতাংশ।

নাসিমা সুলতানা জানান, মৃত্যুবরণকারীদের মধ্যে ২১ জন পুরুষ এবং ৮ জন নারী। এখন পর্যন্ত মৃত্যুবরণকারীদের মধ্যে পুরুষ এক হাজার ৫৮৭ জন, যা শতকরা ৭৯ দশমিক ৪৭ ভাগ এবং নারী ৪১০ জন, যা শতকরা ২০ দশমিক ৫৩ ভাগ।

বয়স বিশ্লেষণে দেখা যায়, ৮১ থেকে ৯০ বছরের মধ্যে দুইজন, ৭১ থেকে ৮০ বছরের মধ্যে একজন, ৬১ থেকে ৭০ বছরের মধ্যে ১১ জন, ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে চারজন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে ছয়জন, ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে একজন, ১১ থেকে ২০ বছরের মধ্যে একজন।

২৪ ঘণ্টায় মৃত্যুবরণকারীদের মধ্যে ঢাকা বিভাগে নয়জন, চট্টগ্রাম বিভাগে চারজন, বরিশাল বিভাগে দুইজন, রাজশাহী বিভাগে সাতজন, খুলনা বিভাগে তিনজন, সিলেট বিভাগে তিনজন এবং ময়মনসিংহ বিভাগে একজন রয়েছেন।

এদের মধ্যে হাসপাতালে মারা গেছেন ২৫ জন, বাসায় মৃত্যুবরণ করেছেন একজন এবং মৃত অবস্থায় হাসপাতালে আনা হয়েছে তিনজনকে।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশনে রাখা হয়েছে ৭৪৪ জনকে। বর্তমানে আইসোলেশনে আছেন ১৬ হাজার ৪৪৯ জন। ২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশন থেকে ছাড়া পেয়েছেন ২৪২ জন, এখন পর্যন্ত ছাড়া পেয়েছেন ১৩ হাজার ৬৭৪ জন। এখন পর্যন্ত আইসোলেশন করা হয়েছে ৩০ হাজার ১২৩ জনকে।

তিনি আরও জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় প্রাতিষ্ঠানিক ও হোম কোয়ারান্টিন মিলে কোয়ারান্টিন করা হয়েছে ২ হাজার ২৪২ জনকে। এখন পর্যন্ত ৩ লাখ ৭৫ হাজার ১৪৫ জনকে কোয়ারান্টিন করা হয়েছে। কোয়ারান্টিন থেকে গত ২৪ ঘণ্টায় ছাড়া পেয়েছেন এক হাজার ৬৪৮ জন, এখন পর্যন্ত ছাড়া পেয়েছেন ৩ লাখ ৯ হাজার ৯৯৫ জন। বর্তমানে মোট কোয়ারান্টিনে আছেন ৬৪ হাজার ১৫০ জন।