অতিরিক্ত বাস ভাড়া আদায়ে কঠোর ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ

ঢাকা, মঙ্গলবার, ৭ জুলাই ২০২০ | ২৩ আষাঢ় ১৪২৭

অতিরিক্ত বাস ভাড়া আদায়ে কঠোর ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক ৫:৫২ অপরাহ্ণ, জুন ০৩, ২০২০

print
অতিরিক্ত বাস ভাড়া আদায়ে কঠোর ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ

গণপরিবহনে অতিরিক্ত ভাড়া আদায়কারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব‌্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, আমি মালিক-শ্রমিকদের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি, অতিরিক্ত ভাড়া আদায়কারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য আমি বিআরটিএর সংশ্লিষ্টদের নির্দেশনা দিচ্ছি।

বুধবার রাজধানীতে সংসদ ভবন এলাকায় নিজের সরকারি বাসভবন থেকে মেট্রোরেল প্রকল্পের দায়িত্বশীল কর্মকর্তাদের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত হয়ে এই নির্দেশনার কথা জানান তিনি।

ওবায়দুল কাদের বলেন, আবার বেশ কিছু অভিযোগও আমরা পাচ্ছি। আমি প্রশাসনিক নজরদারি বাড়ানোর অনুরোধ করছি ওই সব এলাকায়। অর্ধেক বা তার চেয়ে কম যাত্রী নিয়েও পরিবহন চলছে। আমি যাত্রীদেরকেও সচেতন থাকার আহ্বান জানাচ্ছি। তা না হলে টার্মিনাল এবং বাসযাত্রা হতে পারে সংক্রমণ বিস্তারের কেন্দ্র।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, করোনা প্রতিরোধে সরকার নানামুখি পদক্ষেপ নিয়েছে। শেখ হাসিনার সরকারের পদক্ষেপ দেশ-বিদেশে প্রশংসিত হচ্ছে। সরকার সাধারণ ছুটি তুলে নেয়ার সময় এবং আগে পরে স্বাস্থ্যবিধি ও সামাজিক দুরত্ব মেনে চলার জন্য জনগনের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে।

তিনি বলেন, কিন্তু দুঃখজনক হলেও কিছু কিছু মানুষ স্বা্‌স্থ্যবিধি মানতে শৈথিল্য প্রদর্শন করছে, যা সংক্রমণের মাত্রাকে বাড়িয়ে দিচ্ছে। এতে আক্রান্তের সংখ্যাও বাড়ছে। এ অবহেলা নিজের জন্য শুধু নয়, পরিবার, সমাজ  তথ্য অন্যদের জন্যও ভয়ানক পরিস্থিতি তৈরি করতে পারে।

সচেতনতার প্রাচীর গড়ে তোলার আহ্বান জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, তা না হলে জনস্বার্থে এবং জনস্বাস্থ‌্য রক্ষায় সরকার আরও কড়াকড়ি, আরও কঠোর হতে বাধ‌্য হবে।

দেশে করোনাভাইরাসের ক্রমাবনতিশীল পরিস্থিতিতে সরকার সংক্রমিত এলাকা এবং এর নানা দিক বিবেচনায় নিয়ে এলাকাভিত্তিক বা জোনে বিভক্ত করার বিষয়টি ভাবছে বলে জানান তিনি।

করোনাভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে টানা দুই মাসের বেশি সময় বন্ধ ছিল গণপরিবহন। বিভিন্ন স্বাস্থ্যবিধি মানার শর্তে অর্ধেক যাত্রী নেওয়াসহ ১ জুন থেকে গণপরিবহন চলা শুরু হয়েছে।

গণপরিবহনের ক্ষতি পোষাতে ভাড়া ৬০ ভাড়া বাড়িয়ে সরকারের পাক্ষ থেকে প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়। এরপরও যাত্রীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত আদায়ের অভিযোগ পাওয়া যাচ্ছে। পাশাপাশি স্বাস্থ্যবিধি না মানার ঘটনাও ঘটছে।