২০ বছরে দারিদ্র্য নামবে শূন্যের কোঠায়

ঢাকা, রবিবার, ২৯ মার্চ ২০২০ | ১৫ চৈত্র ১৪২৬

২০ বছরে দারিদ্র্য নামবে শূন্যের কোঠায়

নিজস্ব প্রতিবেদক ১০:৫০ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২৫, ২০২০

print
২০ বছরে দারিদ্র্য নামবে শূন্যের কোঠায়

উন্নত দেশ গড়ার লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে সরকার। এটি বাস্তবায়নে ‘রূপকল্প ২০৪১ বাস্তবে রূপায়ণ : বাংলাদেশের প্রেক্ষিত পরিকল্পনা ২০২১-৪১’ কর্মপরিকল্পনা অনুমোদন দিয়েছে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদ (এনইসি)। এ কর্মপরিকল্পনা অনুযায়ী, ২০৪১ সালে মোট দেশজ উৎপাদন (জিডিপি) দাঁড়াবে ৯ দশমিক ৯ শতাংশে, চরম দারিদ্র্য আসবে শূন্যের কোঠায় (দশমিক ৭) এবং মাঝারি দারিদ্র্য নেমে আসবে তিন ভাগের নিচে। ২০ বছরব্যাপী এ কর্মপরিকল্পনার অনুমোদন দিয়েছেন এনইসি চেয়ারপারসন ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তার সভাপতিত্বে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের সাধারণ অর্থনীতি বিভাগ ২০ বছরব্যাপী এ কর্মপরিকল্পনা তৈরি করে।

কর্মপরিকল্পনায় ভিত্তি বছর ধরা হয়েছে ২০২০ সালকে। কর্মপরিকল্পনার তথ্য অনুযায়ী, ২০৩১ সালে প্রকৃত জিডিপি প্রবৃদ্ধি হবে ৯ শতাংশ এবং ২০৪১ সালে এ প্রবৃদ্ধির হার দাঁড়াবে ৯ দশমিক ৯ শতাংশ। আর ভিত্তি বছরে (২০২০) চরম দারিদ্র্যের হার ৯ দশমিক ৪ শতাংশ, ২০৩১ সালে কমে দাঁড়াবে ২ দশমিক ৫ শতাংশ এবং ২০৪১ সালে দশমিক ৭ অর্থাৎ প্রায় শূন্যের কোঠায় দাঁড়াবে।

অন্যদিকে মাঝারি দারিদ্র্যের হার ভিত্তি বছরে ১৮ দশমিক ৮ শতাংশ, ২০৩১ সালে কমে দাঁড়াবে ৭ শতাংশে এবং ২০৪১ সালে তা ৩ শতাংশের নিচে নেমে আসবে।

পরিকল্পনা মন্ত্রণালয় বলছে, মূলত রূপকল্প ২০২১-এর সাফল্যের ধারাবাহিকতায় বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের উন্নয়ন পথে জাতিকে এগিয়ে নেওয়ার লক্ষ্যেই সরকার ‘রূপকল্প ২০৪১’ গ্রহণ করেছে। এছাড়া বর্তমান বিশ্বের বিভিন্ন উচ্চ-মধ্যম আয়ের দেশ ও উচ্চ-আয়ের দেশগুলো যে উন্নয়ন পথ পাড়ি দিয়েছে, তাদের ইতিবাচক অভিজ্ঞতা বিবেচনায় নিয়ে সে পথে এগিয়ে যেতে চায় বাংলাদেশ।

এনইসি সভায় পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নানসহ মন্ত্রিসভার সদস্য, মন্ত্রিপরিষদ সচিব, প্রধানমন্ত্রীর মুখ্যসচিব, এসডিজির মুখ্য সমন্বয়ক, পরিকল্পনা কমিশনের সদস্য এবং বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের সচিব ও সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।