সশস্ত্র বাহিনীর উন্নয়নে কাজ করছে সরকার

ঢাকা, শুক্রবার, ৩০ অক্টোবর ২০২০ | ১৫ কার্তিক ১৪২৭

সশস্ত্র বাহিনীর উন্নয়নে কাজ করছে সরকার

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

ডেস্ক রিপোর্ট ১০:৩০ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২৩, ২০২০

print
সশস্ত্র বাহিনীর উন্নয়নে কাজ করছে সরকার

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘আমরা দেশকে আরও সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যেতে চাই এবং দুর্নীতি, সন্ত্রাসবাদ ও জঙ্গিবাদের হাত থেকে মুক্ত করতে চাই।’ বৃহস্পতিবার দুপুরে নোয়াখালীর হাতিয়া উপজেলার স্বর্ণদ্বীপে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর শীতকালীন মহড়া উপলক্ষে আয়োজিত প্রীতিভোজে দেওয়া বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার দেশে আধুনিক, উন্নত ও সুসজ্জিত সশস্ত্র বাহিনী গড়ে তুলতে কাজ করে যাচ্ছে, যাতে তারা আধুনিক বিশ্বের সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলতে পারে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ব রক্ষার একটি মহান কাজ সশস্ত্র বাহিনীর ওপর ন্যস্ত। তাই আমরা সশস্ত্র বাহিনীকে আধুনিকীকরণ ও তাদের প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষণ দিয়ে সুসজ্জিত করার পদক্ষেপ নিয়েছি, যাতে তারা বিশে^র বুকে মাথা উঁচু করে এগিয়ে যেতে পারে।’

বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সদস্যরা জাতিসংঘের শান্তিরক্ষা মিশনে কাজের অংশ হিসেবে সংঘাতপূর্ণ বিভিন্ন দেশে কাজ করছে উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন, ‘স্বাভাবিকভাবেই, তাদের অন্যান্য দেশের সশস্ত্র বাহিনীর সঙ্গে কাজ করতে হয়। তাই আমরা চাই না যে তারা পিছিয়ে পড়ুক।’

শেখ হাসিনা বলেন, আমরা চাই সাধারণ মানুষ শান্তিতে, নিরাপদে এবং উন্নত জীবনযাপন করবে। সেই লক্ষ্য অর্জনে আমরা কাজ করে যাচ্ছি।
বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ৩৩ পদাতিক ডিভিশন এই মধ্যাহ্নভোজের আয়োজন করে। এতে স্বাগত বক্তব্য দেন সেনাপ্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদ।

এর আগে নোয়াখালীর হাতিয়া উপজেলার স্বর্ণদ্বীপে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর শীতকালীন সামরিক মহড়া ‘অপারেশন বিজয় গৌরব’ প্রত্যক্ষ করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

তিন সশস্ত্র বাহিনীর ট্যাঙ্ক, এপিসি, মিগ যুদ্ধ বিমান ও এমআই হেলিকপ্টারসহ আধুনিক বিভিন্ন অস্ত্র নিয়ে ঘণ্টাব্যাপী এই মহড়া অনুষ্ঠিত হয়, যেখানে সেনাবাহিনী এবং ‘শত্রু বাহিনীর’ মধ্যে একটি প্রতীকী যুদ্ধ প্রদর্শন করা হয়। বাংলাদেশ সশস্ত্র বাহিনীর জয়ের মধ্য দিয়ে অভিযানটি শেষ হয়। এ সময় তিন বাহিনীর প্রধান, স্থানীয় সংসদ সদস্য এবং উচ্চপদস্থ সামরিক ও বেসামরিক কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

প্রধানমন্ত্রী টুঙ্গিপাড়া যাচ্ছেন আজ
বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের নবনির্বাচিত সভাপতি হিসেবে শুক্রবার গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়া যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সেখানে নবনির্বাচিত কেন্দ্রীয় কমিটির নেতাদের সঙ্গে নিয়ে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিতে শ্রদ্ধা জানাবেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রীর প্রটোকল অফিসার-১ এস এম খুরশিদ-উল-আলম স্বাক্ষরিত গোপালগঞ্জ জেলা প্রশাসকের কাছে পাঠানো এ ফ্যাক্স বার্তায় এ তথ্য জানা গেছে।

টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে দোয়া এবং মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হবে। এছাড়া পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী সেখানে নতুন কার্যনির্বাহী কমিটির বৈঠকও অনুষ্ঠিত হবে। কেন্দ্রীয় নেতারা ঢাকা থেকে সকাল ৭টায় সড়ক পথে রওনা হবেন।

জানা গেছে, শুক্রবার সকাল ১০টা ৪০ মিনিটে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা হেলিকপ্টারযোগে টুঙ্গিপাড়ায় পৌঁছবেন এবং বেলা ১১টায় কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ নেতাদের সঙ্গে নিয়ে জাতির পিতার সমাধিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানাবেন। এ সময় সশস্ত্র বাহিনীর পক্ষ থেকে তাকে গার্ড অব অনার প্রদান করা হবে।

পরে সেখানে ফাতেহা পাঠ, মোনাজাত ও মিলাদ মাহফিলে অংশগ্রহণ করবেন শেখ হাসিনা। বেলা ২টা ২০ মিনিটে সেখান থেকে ঢাকার উদ্দেশে রওনা হবেন তিনি।