ডেঙ্গুর প্রকোপ কমছে, আরও একজনের মৃত্যু

ঢাকা, শুক্রবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | ৫ আশ্বিন ১৪২৬

ডেঙ্গুর প্রকোপ কমছে, আরও একজনের মৃত্যু

ডেস্ক রিপোর্ট ১০:৫২ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ০৯, ২০১৯

print
ডেঙ্গুর প্রকোপ কমছে, আরও একজনের মৃত্যু

এডিস মশাবাহিত রোগ ডেঙ্গুর প্রাদুর্ভাব দিনে দিনে কমে আসছে। এই মাসের প্রথম দিকে ডেঙ্গু পরিস্থিতির অবনতির ধারণা করা হলেও তা হয়নি। গত কয়েকদিন যাবৎ ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তির সংখ্যা যেমন কমছে, তেমনি কমছে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রোগীর সংখ্যাও। আর এর মধ্যে আক্রান্ত হয়ে মারা যাচ্ছে দুই একজন। গত ২৪ ঘণ্টায় রাজশাহীতে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে শাপলা খাতুন (২৮) নামে এক গৃহবধূর মৃত্যু হয়েছে।

তথ্য অনুযায়ী, চলতি বছরের এপ্রিলে ৫৮ জন, মে মাসে ১৯৩ জন, জুনে ১৮৮৪ জন ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসা নেন। জুলাইয়ে এই সংখ্যা করে বেড়ে দাঁড়ায় ১৬ হাজার ২৫৩ জন। আর আগস্টে হাসপাতালে ভর্তি ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা সব রেকর্ড ভেঙে ৫২ হাজার ৬৩৬ জনে গিয়ে পৌঁছায়।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের হেলথ ইমারজেন্সি অপারেশন সেন্টার ও কন্ট্রোল রুমের তথ্য অনুয়ায়ী, গতকাল সোমবার সকাল ৮টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় সারা দেশের সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালগুলোতে ৭১৬ জন নতুন ডেঙ্গু রোগী ভর্তি হয়েছেন। ঠিক এক মাস আগে গত ৯ আগস্ট এই সংখ্যাটি ছিল ২০০২।

গতকাল সকাল ৮টা পর্যন্ত দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে ডেঙ্গু আক্রান্ত ৩০৯১ জন চিকিৎসাধীন ছিলেন। স্বাস্থ্য অধিদফতর সূত্রে জানা যায়, এখনো পর্যন্ত চিকিৎসা নিতে আসা রোগীদের ৯৫ দশমিক ৭ শতাংশ সুস্থ হয়ে হাসপাতাল ছেড়েছেন। এ সময়ের মধ্যে স্বাস্থ্য অধিদফতরের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ, গবেষণা ইনস্টিটিউটে (আইইডিসিআর) ডেঙ্গু সন্দেহে ১৯২টি মৃত্যুর তথ্যে এসেছে। এর মধ্যে ১০১টি মৃত্যু পর্যালোচনা করে ৬০টি মৃত্যু নিশ্চিত করেছে আইইডিসিআর।

এক নারীর মৃত্যু
রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে শাপলা খাতুন (২৮) নামে এক গৃহবধূর মৃত্যু হয়েছে। সোমবার (৯ সেপ্টেম্বর) দুপুরে তিনি মারা যান। তার স্বামীর নাম হাসিবুল হাসান। তারা রাজশাহীর পুঠিয়া উপজেলার বানেশ্বর গ্রামে বাসিন্দা।

শাপলার মামা আবু ওমাইয়া জানান, গত ৪ সেপ্টেম্বর শাপলাকে রামেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। শাপলা হাসপাতালের ৩৮ নম্বর ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন ছিলেন। প্রথম দিকে শাপলার অবস্থা ভালো ছিল। তবে গতকাল তার অবস্থার অবনতি হয়। তাকে হাসপাতালের আইসিইউতে নেওয়ার প্রস্তুতির সময় তিনি মারা যান। রাজশাহী মেডিকেল কলেজের উপপরিচালক সাইফুল ফেরদৌস শাপলার মৃত্যুর সত্যতা নিশ্চিত করছেন।