১৯ বছর পর সম্মেলন ঘিরে উৎসব-উৎকণ্ঠা

ঢাকা, শনিবার, ১৩ আগস্ট ২০২২ | ২৯ শ্রাবণ ১৪২৯

Khola Kagoj BD
Khule Dey Apnar chokh

১৯ বছর পর সম্মেলন ঘিরে উৎসব-উৎকণ্ঠা

আরিফুল হক, ঈশ্বরগঞ্জ (ময়মনসিংহ)
🕐 ৭:২৭ অপরাহ্ণ, জুন ২৫, ২০২২

১৯ বছর পর সম্মেলন ঘিরে উৎসব-উৎকণ্ঠা

ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জের রাজনীতিতে এখন আলোচনায় আ.লীগের সম্মেলন। দীর্ঘ ১৯ বছর পর আগামী ২৯ জুন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে উপজেলা আ.লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন। সম্মেলনকে ঘিরে পদপ্রত্যাশী নেতা-কর্মীসহ তৃণমূল পর্যায়েও ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনা বিরাজ করছে। সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদের দাবিদার আছেন অন্তত ১ ডজন নেতা। তাই নতুন কমিটির নেতৃত্বে কারা আসছেন তা নিয়ে চলছে তুমল জল্পনা-কল্পনা।

সর্বশেষ ২০০৩ সালের ১১ জুলাই ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলা আ.লীগের সম্মেলন অনুষ্টিত হয়। তখন উপজেলা আ’লীগের সভাপতি নির্বাচিত হন সাবেক সংসদ সদস্য আবদুছ ছাত্তার ও সাধারণ সম্পাদক পদ পান আবদুল হেকিম। ৬৭ সদস্য বিশিষ্ট ওই থেকে ২০১৫ সালে আ.লীগের কেন্দ্রিয় কমিটির শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক সম্পাদক হওয়ায় আবদুছ ছাত্তারকে উপজেলা আ.লীগের সভাপতি পদ ছাড়তে হয়। এরপর ভারপ্রাপ্ত সভাপতির দায়িত্ব পান উপজেলা আ.লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি রফিকুল ইসলাম বুলবুল। ২০২১ সালের ২২ জানুয়ারি মারা যান উপজেলা আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক আবদুল হেকিম। ইতোমধ্যে কমিটির ১৪ জন সদস্য প্রয়াত হয়েছেন।

দীর্ঘ ১৯ বছর পর আলোর মুখ দেখবে উপজেলা আ.লীগের নতুন কমিটি। ২৯ জুন সম্মেলনকে ঘিরে পদ-পদবি পেতে মরিয়া সাবেক ও বর্তমান অনেক নেতা। ইতমধ্যে তাঁরা নিজ নিজ অবস্থান থেকে কেন্দ্রীয় নেতাদের কাছে ধরনা দিচ্ছেন কাঙ্ক্ষিত পদ পেতে। সম্মেলনে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদে আসার জন্য একাধিক নেতার নামও শোনা যাচ্ছে জোরেশোরে।

এদিকে ২৯ তারিখের সম্মেলনকে সফল করতে উপজেলার ১১ টি ইউনিয়ন ও ১ টি পৌরসভার নেতা-কর্মীদের ডেকে কর্মী সমাবেশ করছেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আ.লীগের সভাপতি পদপ্রত্যাশী মাহমুদ হাসান সুমন। এ ছাড়াও সম্ভাব্য সভাপতি পদে উপজেলা আ.লীগের বর্তমান ভারপ্রাপ্ত সভাপতি রফিকুল ইসলাম বুলবুল এবং জেলা আ.লীগের সদস্য মো. তারিকুল ইসলাম তারেকের নামও জোরেশোরে শোনা যাচ্ছে।

সাধারণ সম্পাদক পদের জন্য যুবলীগের সাবেক আহ্বায়ক আবু বকর সিদ্দিক দুলাল ভূঁইয়া, উপজেলা আ.লীগের যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক একে এম হারুন অর রশিদ, উপজেলা যুবলীগের সাবেক সভাপতি সাফায়েত হোসেন ভূঁইয়া, উপজেলা উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি আব্দুল জলিল মন্ডল, সাবেক যুবলীগের আহ্বাক অ্যাডভোকেট হাবিবুল্লাহ মিলনের নাম শোনা যাচ্ছে। তাঁদের ছাড়াও আরও বেশ কয়েকজন সম্পাদক পদের জন্য দৌঁড়ঝাপ করছেন।

তবে সম্মেলন ঘনিয়ে এলেও মঞ্চ প্রস্তুত, প্রচারনা, পোস্টারিং, মাইকিং এবং কোনো কার্যক্রম এখনও দৃশ্যমান না হওয়ায় নেতাকর্মীদের মাঝে উৎকণ্ঠা দেখা দিয়েছে। নির্ধারিত তারিখে সম্মেলন হওয়া নিয়ে।

উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আ.লীগের সভাপতি পদপ্রত্যাশী মাহমুদ হাসান সুমন বলেন, তৃণমূল নেতাদের জন্য তিনি নিজের সর্ব্বোচ্চ টুকু দিয়ে কাজ করছেন। দল যদি তাকে মূল্যায় করে তিনি দলের জন্য জীবনের শেষ নি:শ্বাস পর্যন্ত কাজ করবেন।

উপজেলা আ.লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি রফিকুল ইসলাম বুলবুল বলেন, আগামী ২৯ তারিখ সম্মেলন হবে এটিই চূড়ান্ত। তবে রোববার এ বিষয়ে জেলা নেতাদের সঙ্গে বসে আরও সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। দৃশ্যমান কাজও শুরু করে। তিনি সভাপতি প্রার্থী। দলকে দীর্ঘদিন টিকিয়ে রেখেছেন। দল চাইলে তিনি আবার সভাপতি হবেন।

 
Electronic Paper