টুঙ্গীপাড়ার খোকা

ঢাকা, শুক্রবার, ১০ এপ্রিল ২০২০ | ২৭ চৈত্র ১৪২৬

টুঙ্গীপাড়ার খোকা

কাব্য কবির ১:১৬ অপরাহ্ণ, মার্চ ১৩, ২০২০

print
টুঙ্গীপাড়ার খোকা

টুঙ্গীপাড়ায় সোনার চামচ মুখে নিয়ে
জন্মেছিল এক রাজপুত্র।

সব সময় তার মুখে থাকতো শিউলি

পুষ্পের মতো হাসি। ভালোবাসার জালে
বেঁধে রাখত সবাইকে।
বৃত্তহীনদের অশ্রুজল দেখলে
মুছে দিতো ভালোবাসার রুমাল দিয়ে।
আকাশের মতো খোলা মন
ছিল তার।
ছোটবেলা থেকেই অন্যায়ের শিকল
ভেঙে ফেলত।
একদিন পাকিস্তানি শকুনরা ঝাঁপিয়ে
পড়ে এ দেশের মানুষের ভালোবাসার মানচিত্রে।
সবাই হয়ে গিয়েছিল দিশেহারা,
চেয়েছিল মুক্তির আত্মতৃপ্তি।
রেসকোর্স ময়দানে দাঁড়িয়ে রাজপুত্র
শোনালেন মুক্তির এক কবিতা-
‘এবারের সংগ্রাম মুক্তির সংগ্রাম
এবারের সংগ্রাম, স্বাধীনতার সংগ্রাম।’
কবিতার প্রতিটি শব্দ ছিল আগুনের
ফুলকির মতো। কবিতা শুনে মানচিত্রের প্রতি
ভালোবাসা সৃষ্টি হয়, অন্যায়ের বিরুদ্ধে
রুখে দাঁড়াবার শত্তি, মুক্তির চেতনা
খুঁজে পায়।
রাজপুত্র দূর আকাশে চলে গেছে, রেখে
গেছে কালজয়ী কাব্য, এ দেশের ষোল কোটি
ফুল কখনো ভুলবে না রাজপুত্রকে, হৃদয়ের
গভীরে তার ছবি এঁকে
রাখবে কাল, মহাকাল...।