সাংসারেক মান্দিরাংনি ওয়ান্না

ঢাকা, শুক্রবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | ৫ আশ্বিন ১৪২৬

সাংসারেক মান্দিরাংনি ওয়ান্না

শিমুল জাবালি ৭:১২ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১৬, ২০১৯

print
সাংসারেক মান্দিরাংনি ওয়ান্না

বাংলাদেশ ও ভারতে বসবাসরত মান্দি জাতির লোকজন ‘গারো’ নামেই সর্বত্র পরিচিত হলেও নিজেদের আত্মপরিচয়ের ক্ষেত্রে তারা ‘মান্দি’ শব্দটাই ব্যবহার করে। মান্দি শব্দের অর্থ মানুষ মান্দিদের নিজস্ব আদি ধর্মের নাম সাংসারেক। সাংসারেক মান্দিদের ওয়ান্না জুম চাষ বা হা’বাহুআ কেন্দ্রিক এক ধর্মীয়-সামাজিক-সাংস্কৃতিক কৃত্য ও কৃত্যকেন্দ্রিক উৎসবের নাম। ওয়ান্না উৎসবটি ওয়ানগালা নামেও অধিক পরিচিত। তারই বৃহৎ কাজ ‘সাংসারেক মান্দিরাংনি ওয়ান্না’ বইটি। ঐতিহাসিক এ বইটি পরাগ রিছিল ও জুয়েল বিন জহিরের যৌথ সম্পাদনায় প্রকাশ।

মান্দি জাতি বেশ কয়েকটি গোত্রে বিভক্ত- আবেং, আত্তং, দোয়াল, ব্রাক, চিবক, মিগাম ইত্যাদি। এই গোত্রগুলোর আবার অনেকগুলো মাহারীতে বিভক্ত। গোত্র ভেদে তাদের ভাষা বা ধর্মীয় রীতিনীতিতে বেশ কিছু পার্থক্য আছে। এখানে মধুপুরের আবেং গোত্রের সাংসারেক ওয়ান্নার বিভিন্ন বিষয় ও এগুলোর সঙ্গে প্রাসঙ্গিক অপরাপর বিষয়বস্তু তুলে ধরা হয়েছে।

বইয়ের ভূমিকায় লেখকদ্বয় উল্লেখ করেছেন. ২০০৩ সাল থেকে সর্বশেষ ২০১৮ সালের নভেম্বর পর্যন্ত নানা বিষয়াদি পর্যালোচনা, তথ্য উপাত্ত সংগ্রহ করেছেন। এ বিষয়ে তারা কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন, মধুপুরের চুনিয়া গ্রামের সাংসারেক খামাল জনিক নকরেককে। মূলত তার বক্তব্য বা বিবরণই এ গুরুত্বপূর্ণ বইটির মূল ভিত্তি।

নিঃসন্দেহে বইটি ক্যাবল গারোদেরই সম্পদ নয় কিংবা সমগ্র আদিবাসীদেরও নয়, এটি আমাদেরও মূল্যবান সম্পদ। পাঠক নিশ্চয়ই এ বই সংগ্রহ করে সমৃদ্ধ হয়ে উঠবে।