কালো জাহাজের উপকথা ২১

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০১৯ | ৬ আষাঢ় ১৪২৬

কালো জাহাজের উপকথা ২১

কিশোর মাহমুদ ৩:৩৪ অপরাহ্ণ, মে ৩১, ২০১৯

print
কালো জাহাজের উপকথা ২১

যদি আবার ফিরিয়ে দাও নোঙর ফেলার আগে, ঝাওয়ালি ঝাওয়ালি বলে গাঢ় হয় অনুরাগ। ওহে বন্দর, তোমার কোলের কাছে বেড়ার বাসনায়, মাস্তুলে যত শঙ্খ চুরমাচার, ঝড়ে যত উপকূল ছারখার, লবণে লবণে তাদের গলে যাওয়ার ধ্বনি

মেঘনাদ মেঘনাদ হাহাকার করবে ময়ূরশয্যা ঘিরে

তাই লিখে রাখি এসব দৃশ্য, যত পাখনা ভাঙা আকাশ, তার তলে জাহাজীর বিষাদ বিষণ্নতা, ভাঙচুর লিখে রাখি

জাফরি কাঁটা সিঁড়ি, উঠে যেতে যেতে স্তনের মতো ওই ফুলে ওঠা পাল খুলে পড় বেভুলে যাব আমাদের পায়ের নিচে গুঁড়িয়ে গেছে যত সেঞ্চুরি পাতা, আর সাদা-কালো চোখের মতো ভূমি। তোমার পাখনার ঝাপটানি ভুলে যাব যত রোদেলা ঢেউয়ে ঝিনুকের মর্মে ঝিকিমিকি বালির মুগ্ধতা

তার অন্তর থেকে মুক্তা খসে পড়বে

প্রলয় শীর্ষে জাগবে শঙ্খনাদ আমার ঠোঁট শিস ভুলে যাবে, কণ্ঠ থেকে, তোমার বুক থেকে খুলে পড়বে তরঙ্গে তরঙ্গে গাঁথা এই বিস্তৃত নোনাহার হাহাকার। সেদিন দুজনেই চুরমার প্রেমে প্রেমে।

উৎসর্গ: বন্ধু শাফিনূর শাফিন