মুখে দুর্গন্ধ দূর করার ৭ সমাধান

ঢাকা, রবিবার, ১২ জুলাই ২০২০ | ২৭ আষাঢ় ১৪২৭

মুখে দুর্গন্ধ দূর করার ৭ সমাধান

লাইফস্টাইল ডেস্ক ১:৩১ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২৬, ২০২০

print
 মুখে দুর্গন্ধ দূর করার ৭ সমাধান

ঘুম থেকে জাগার পরে মুখে দুর্গন্ধ হওয়াটাকে আমরা স্বাভাবিকভাবে দেখলেও সারাদিন মুখে দুর্গন্ধ থাকাটা এক ধরনের সমস্যা। মুখে দুর্গন্ধ থাকাটা মারাত্মক কোনো রোগ নয় ঠিকই, তবে শরীরের ভেতরকার কোনো অসুখের কারণ হতে পারে এটি। আবার মুখে দুর্গন্ধ হলে আত্মবিশ্বাসও কমতে শুরু করে। কারণ আপনি কারও সামনে কথা বলতেই লজ্জা পাবেন। এটি রীতিমতো অস্বস্তির কারণ হয়ে দাঁড়ায়। মুখের দুর্গন্ধের পেছনে বড় ভূমিকা মুখগহ্বরে বা পেটে জন্মানো জীবাণু হতে পারে। আরও একটি কারণ হতে পারে শরীরে পানির পরিমাণ কমে যাওয়া।

জেনে নিন মুখের দুর্গন্ধ দূর করার সহজ সমাধান-

আমরা যখন খাবার খাই তখন খুব স্বাভাবিকভাবেই দাঁতের ফাঁকে ফাঁকে খাবারের কণা আটকে থাকে। আর এই খাবারে জন্মানো জীবাণু পরবর্তীতে মুখে দুর্গন্ধের জন্ম দেয়। তাই দিনে খাবার খাওয়ার পর দাঁত ফ্লস দিয়ে পরিষ্কার করা এবং দিনে অন্তত দুইবার দাঁত মাজা উচিত।

আমরা অনেকেই মনে করি, দাঁত পরিষ্কার করলেই মুখের সব জীবাণু চলে যাবে। বিষয়টি কিন্তু মোটেও সেরকম নয়। বরং প্রতিবার দাঁত পরিষ্কারের পাশাপাশি জিহ্বাও পরিষ্কার করুন। তাতে করে জিহ্বার ওপর জমা খাবারের কণা চলে যাবে।

যারা ধূমপায়ী, শুধু ধূমপানের কারণেই তাদের মুখে ভীষণ দুর্গন্ধ হতে পারে। কারণ ধূমপানের ফলে মুখের ভেতরটা শুকিয়ে যায়। এর পাশাপাশি মুখের ভেতর জীবাণুর সংখ্যাও বাড়তে থাকে। এর ফলে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমে। তাই মুখের ক্ষত বা ঘা শুকাতে সময় নেয়। তাই মুখের দুর্গন্ধ দূর করতে ধূমপান ছাড়ুন।

হজমের সমস্যার কারণও মুখে দুর্গন্ধ হতে পারে। পেট পরিষ্কার না হলে এই সমস্যা বাড়ে। এক্ষেত্রে চিকিৎসকের সঙ্গে কথা বলে হজমের এনজাইম খেতে পারেন। তাতে হজম ক্ষমতা বাড়বে। পেট পরিষ্কার হবে।

মুখের ঘা বা ক্ষতের কারণে দুর্গন্ধ হয়। শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা ঠিক থাকলে এই আলসার দ্রুত সারে। কিন্তু সেটা না হলে, সমস্যাটি কমে না। সমস্যা যতদিন থাকবে, মুখের দুর্গন্ধও কমবে না।

পানি সামান্য গরম করে, তাতে অল্প লবণ মেশান। তারপর সেই পানিতে কুলকুচি করে মুখ ধুয়ে নিন। পানি খুব বেশি গরম করবেন না। সেক্ষেত্রে মুখের অন্য ক্ষতি হতে পারে। অল্প গরম পানিতে লবণ মিশিয়ে মুখ ধুইলে, মুখের ভিতরের জীবাণু বাড়তে পারে না।

মুখের আর্দ্রভাব বজায় থাকলে দুর্গন্ধ কম হয়। তাই চিনি ছাড়া ক্যান্ডি বা চুয়িং গাম মুখে রাখতে পারেন। অথবা একেবারে ঘরোয়া দাওয়াই দারুচিনি বা লবঙ্গও রাখতে পারেন মুখের মধ্যে।

আরও নানা রকম কারণে মুখে দুর্গন্ধ হতে পারে। তাই অনেক পদ্ধতি অবলম্বন করেও ফল না পেলে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।