ডেঙ্গু থেকে বাঁচতে ৫ উপদেশ

ঢাকা, শুক্রবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | ৫ আশ্বিন ১৪২৬

ডেঙ্গু থেকে বাঁচতে ৫ উপদেশ

লাইফ স্টাইল ডেস্ক ১:৩৯ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১৯, ২০১৯

print
ডেঙ্গু থেকে বাঁচতে ৫ উপদেশ

পানি জমতে না দেওয়া
ডেঙ্গুর বিরুদ্ধে যুদ্ধের মূল চ্যালেঞ্জ হলো মশার বংশবৃদ্ধি রোধ করা। এ কথা সবার জানা যে, বাড়ি বা তার আশপাশে জল বা আবর্জনা জমতে দেওয়া মানেই মশার বংশবৃদ্ধির সুযোগ করে দেওয়া। তাই কেবল বাড়ি পরিষ্কার রাখলেই চলবে না, সতর্ক দৃষ্টি রাখুন আশপাশের এলাকার প্রতিও। ঠিকমতো জঞ্জাল সাফ না হলে পরে কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করুন। ওভারহেড ও আন্ডারগ্রাউন্ড ট্যাঙ্ক পরিষ্কার রাখুন, তা যেন ঢাকা দেওয়া থাকে। চৌবাচ্চা, অ্যাকুয়ারিয়াম বা লিলি পুলের পানি নিয়মিত পরিষ্কার করুন।

ব্যবহার করুন নিম-সিট্রোনেলা তেল
সিট্রোনেলা তেল কিনতে পাওয়া যায় বাজারে। নিমের তেল ও এক্সট্রা ভার্জিন নারকেল তেল সমান অনুপাতে মিশিয়ে রাখুন হাতের কাছে। দরকারমতো স্প্রে করে নিন শরীরের খোলা অংশে। নারকেল আর নিম তেলের মিশ্রণ গোসলের পরেও ব্যবহার করতে পারেন গোটা শরীরে। সিট্রোনেলা তেল মেখেও স্বচ্ছন্দে বাইরে বেরোতে পারবেন, এর প্রাকৃতিক সুগন্ধ আপনাকে ঘিরে রাখবে সারা দিন। বাচ্চাদের স্কুলে পাঠানোর সময় ইউনিফর্মে লাগিয়ে দিতে পারেন।


বাড়িতে রাখুন তুলসী গাছ
অনেকের মতে তুলসী গাছ মশা তাড়াতে কার্যকর ভূমিকা পালন করে। তাই ব্যালকনি বা জানালার কাছে তুলসী গাছ রেখে দেখতে পারেন।


মশা তাড়ান রসুনে
কয়েক কোয়া রসুন নিয়ে থেঁতো করে নিন। তারপর সেটা খুব ভালো করে ফুটিয়ে নিন তিন কাপ জলে। জল ফুটে অর্ধেক হলে নামিয়ে ছেঁকে বোতলে ভরে রাখুন। ঠান্ডা হলে ঘরের কোনে কোনে স্প্রে করে দিন এই মিশ্রণ।


ব্যবহার করুন ওডোমস
ওডোমস (Odomos) মশা নিরোধক কার্যকর মলমবিশেষ (mosquito repellent cream), যা ক্রিম ছাড়াও লোশন, জেল, স্প্রে হিসেবেও পাওয়া যায়। এটা কোনো ওষুধের নাম নয়, বরং ভারতের ডাবর (Dabur India Ltd.) কোম্পানির একটা ব্র্যান্ডের নাম। ওডোমস, টুথপেস্টের মতো টিউবের ভেতর বিক্রি করা হয়। এই মলম শরীরের উন্মুক্ত অংশে মেখে নিতে হয়, তাই এটি হলো বাহ্যিক ব্যবহার্য ওষুধ। এই মলম ব্যবহারে মশা থেকে নিজেকে মুক্ত রাখা যায়।

এই ক্রিমটি সাধারণ ভ্যানিশিং ক্রিমের মতোই শরীরের নাক, ঠোঁট এবং চোখ ব্যতীত অন্যান্য সব অঙ্গে মাখা যায়। এই ক্রিমে ব্যবহৃত কেমিক্যাল কম্পোজিশন বা রাসায়নিক মিশ্রণ আসলে ত্বকে একটা প্রলেপের তৈরি করে, শরীরের নিজস্ব গন্ধকে ঢেকে ফেলে। মশা, মূলত শরীরের সেই গন্ধটা শুঁকেই মানুষকে শনাক্ত করে থাকে। যেহেতু মশার কাছে তখন আর শরীরের গন্ধ পৌঁছে না, তাই মশার কাছে মানুষ এলে আক্ষরিক অর্থেই অদৃশ্য হয়ে যায়। ফলে মশা কামড়ানোর জন্য কাউকে খুঁজে পায় না।

ব্যবহারবিধি : ক্রিম অল্প একটু হাতে নিয়ে, নাক, চোখ, ঠোঁট-ব্যতীত শরীরের উন্মুক্ত অংশে ঘষে ঘষে মেখে নিতে হবে। মাথা টাক হলে মাখা যেতে পারে। মাখার পরে হাতের কব্জি ধুয়ে নেওয়া যেতে পারে, যদিও কোথাও একাজটি করতে হবে বলে উল্লেখ দেখিনি। তবে এই ক্রিম মাখার পর হাত না ধুয়ে কিছু খাওয়া ঠিক হবে না। বাংলাদেশে ওডোমস আশপাশের ফার্মেসিতেই কিনতে পাওয়া যায়, আকারভেদে ১৫০ থেকে ৪০০ টাকায় পাওয়া যাবে ওডোমস।