হলমার্ক কেলেঙ্কারির নন-ফান্ডেড অংশের তদন্ত শুরু ৭ বছর পর

ঢাকা, রবিবার, ২৪ জানুয়ারি ২০২১ | ১০ মাঘ ১৪২৭

হলমার্ক কেলেঙ্কারির নন-ফান্ডেড অংশের তদন্ত শুরু ৭ বছর পর

নিজস্ব প্রতিবেদক ৩:৩৪ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ০১, ২০২০

print
হলমার্ক কেলেঙ্কারির নন-ফান্ডেড অংশের তদন্ত শুরু ৭ বছর পর

সাত বছর পর শুরু হলো হলমার্ক কেলেঙ্কারির নন-ফান্ডেট অংশের তদন্ত। ১ ডিসেম্বর, মঙ্গলবার এ অনুসন্ধানে আট সদস্যের তদন্ত কমিটি অনুমোদন দেয় দুদক। 

২০১০ সাল থেকে ২০১২ সাল সময় পর্যন্ত সোনালী ব্যাংকের হোটেল শেরাটন শাখা থেকে হলমার্ক ৩ হাজার ৫৪৭ কোটি টাকা আত্মসাৎ করে। এর মধ্যে ফান্ডেড ১ হাজার ৮৩৭ কোটি ২০ লাখ টাকা এবং নন-ফান্ডেড ১ হাজার ৭০৯ কোটি ৮০ লাখ টাকা।

হলমার্কের অর্থ জালিয়াতির ঘটনায় সোনালী ব্যাংকের ফান্ডেড অংশের জন্য দুদক এ পর্যন্ত হলমার্কের বিরুদ্ধে ১১টি মামলা দায়ের করে। ২০১২ সালের ৪ অক্টোবর এ মামলাগুলো দায়ের করে দুদক। তদন্ত শেষে ২০১৩ সালের ৬ অক্টোবর মামলার চার্জশিট দেওয়া হয়। এছাড়া সব মিলে মামলা ছড়িয়ে গেছে অর্ধশত। বেশকিছু চার্জশিট এখনো আদালতে জমা দেওয়ার অপেক্ষায়। এমন পরিস্থিতিতে নন-ফান্ডেড অর্থের জালিয়াতি আনুসন্ধান শুরু করেছে দুদক।

এদিকে আইনজীবীরা বলছেন, ব্যাংক জালজালিয়াতি বন্ধে দুদক মামলা বা শাস্তির আওতায় আনতে পারলেও, মূলত ব্যাংকগুলোর প্রশাসনিক দুর্বলতার দায় বাংলাদেশ ব্যাংকের।

এদিকে গোল্ডেন মনিরের দুর্নীতি অনুসন্ধানে ডিএনসিসির ৫৩ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর শফিকুল ওরফে সোনা শফিক, বিএনপির নেতা সাবেক কাউন্সিলর এম এ কাউয়ুম, রাজউক পরিচালক শেখ শহিদুল ইসলামসহ ৬ জনকে তলব করেছে দুদক। আগামী ৮ থেকে ১০ ডিসেম্বর জিজ্ঞাসাবাদ।