৯ আসামির তদন্ত চূড়ান্ত

ঢাকা, সোমবার, ১৯ আগস্ট ২০১৯ | ৪ ভাদ্র ১৪২৬

নীলফামারীতে মানবতাবিরোধী অপরাধ

৯ আসামির তদন্ত চূড়ান্ত

নিজস্ব প্রতিবেদক ৯:৫০ পূর্বাহ্ণ, আগস্ট ০২, ২০১৯

print
৯ আসামির তদন্ত চূড়ান্ত

একাত্তরের মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় নীলফামারীর ডিমলা, ডোমার ও জলঢাকার ৯ জনের বিরুদ্ধে চূড়ান্ত তদন্ত প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল তদন্ত সংস্থা।

তাদের বিরুদ্ধে অপহরণ, হত্যা, গণহত্যা, ধর্ষণ ও লুটের অভিযোগ আনা হয়েছে। মামলার আসামিরা হলেন- মো. একরামুল হক (৭০), মো. আব্দুস সাত্তার (৮০), বকসু মিয়া ওরফে মো. মোকসু মিয়া মজুমদার (৭৭), মো. আব্দুল মালেক (৭২), মো. মোকলেছার রহমান ওরফে খোকা (৭৭), মো. শহীদুল্লাহ সরকার (৭০), মো. নুরুল হক (৬৫), জবেদ আলী (৭১) এবং মো. শাহাদৎ হোসেন (৬৮)।

গতকাল বৃহস্পতিবার ধানমন্ডিতে এক সংবাদ সম্মেলনে ট্রাইব্যুনালের তদন্ত সংস্থার প্রধান সমন্বয়ক আব্দুল হান্নান খান এ তদন্ত প্রতিবেদন প্রকাশ করেন। তদন্তে আসামিদের বিরুদ্ধে একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধ চলাকালীন ৪৬ জনকে আটক, ২৫ জনকে অপহরণ, ৩ জনকে ধর্ষণ, ১৫ বাড়ি-ঘর ভাঙচুর ও ৭ জনকে হত্যা এবং গণহত্যার অভিযোগ আনা হয়।

এ মামলায় ২০১৭ সালের ২০ নভেম্বর থেকে তদন্ত শুরু হয়ে ১ আগস্ট শেষ হয়। তদন্ত শেষে আসামিদের বিরুদ্ধে ৬টি অভিযোগে মোট ২৩৮ পৃষ্ঠার তদন্ত প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়।

মানবতাবিরোধী অপরাধে একরামুল হকসহ ১০ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করা হয়। পরে একজন মারা গেলে মামলা থেকে তার নাম বাদ দেওয়া হয়। এ মামলার আসামি কাউছার মোড় গ্রামের শাহাদৎ হোসেন (৬৮) দীর্ঘদিন ধরে পলাতক।