ইএফটি ফরম পূরণে অতিরিক্ত অর্থ আদায়ের অভিযোগ

ঢাকা, সোমবার, ১ মার্চ ২০২১ | ১৬ ফাল্গুন ১৪২৭

ইএফটি ফরম পূরণে অতিরিক্ত অর্থ আদায়ের অভিযোগ

দৌলতপুর (কুষ্টিয়া) প্রতিনিধি ৬:০১ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২৪, ২০২১

print
ইএফটি ফরম পূরণে অতিরিক্ত অর্থ আদায়ের অভিযোগ

কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে ইএফটি (ইলেক্ট্রিক্যাল ফিন্যান্স ট্রান্সফার) ফরম পূরণে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের কাছ থেকে অতিরিক্ত অর্থ আদায়ের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এদিকে দৌলতপুর প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার সাইদা ছিদ্দিকা তার বিরুদ্ধে করা অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, কোনো শিক্ষকের কাছ থেকে টাকা আদায় করা হচ্ছে না। শিক্ষকরা নিজেরাই তাদের ইএফটি ফরম অফিস থেকে পূরণ করছেন।

জানা যায়, দৌলতপুর প্রাথমিক শিক্ষা অফিসারের নির্দেশে শিক্ষক নেতারা শিক্ষকদের কাছ থেকে জনপ্রতি ২৫০ টাকা করে আদায় করছেন বলে শিক্ষকরা জানান। অনলাইন প্রশিক্ষিত শিক্ষকরা শিক্ষা অফিস থেকে বিনা খরচে ফরমটি পূরণ করার কাজটি করে থাকলেও সকল শিক্ষকদের কাছ থেকে অতিরিক্ত অর্থ আদায় করা হচ্ছে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে কয়েকজন শিক্ষক অভিযোগ করে বলেন, দৌলতপুর প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতি ফিরোজ খান নুন ও সম্পাদক রেজাউল করিমসহ কয়েকজন প্রধান শিক্ষক শিক্ষা অফিসে বসে শিক্ষকদের কাছ থেকে ২৫০ টাকা করে আদায় করছে। কেউ দিতে অস্বীকৃতি জানালে তাদের ওপর চড়াও হচ্ছেন এবং তার ফরমটি পূরণ করা হবে না হুমকি-ধামকি দিচ্ছেন বলেও তারা জানিয়েছেন।

আর টাকা আদায়ের সঙ্গে জড়িত রয়েছেন দৌলতপুর প্রাথমিক শিক্ষা অফিসের অফিস সহকারী রেজাউল ইসলাম, শরিফুল ইসলাম ও করিম। তারা শিক্ষক নেতাদের নির্দেশে টাকাগুলো আদায় করার কাজটি করছেন।

দৌলতপুরে ১২০০ জন প্রাথমিক শিক্ষক রয়েছেন। জনপ্রতি ২৫০ টাকা করে ৩ লক্ষ টাকা আদায় করে বিপুল অংকের এ টাকা নিজেদের মধ্যে ভাগাভাগি করা হবে বলে অভিযোগকারী শিক্ষকরা জানিয়েছেন।

তবে দৌলতপুর প্রাথমিক সমিতির সভাপতি ফিরোজ খান নুন বলেছেন, ইএফটি ফরম পূরণে শিক্ষকদের কাছ থেকে কোনো টাকা নেওয়াও হচ্ছে না এবং শিক্ষা অফিসকে টাকা দেওয়াও হচ্ছে না।