দেশের প্রথম গুচ্ছগ্রাম

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৯ জানুয়ারি ২০২১ | ৫ মাঘ ১৪২৭

দেশের প্রথম গুচ্ছগ্রাম

কামরুজ্জামান তোঁতা, কালীগঞ্জ (ঝিনাইদহ) ৯:৫৯ পূর্বাহ্ণ, নভেম্বর ২২, ২০২০

print
দেশের প্রথম গুচ্ছগ্রাম

তৎকালীন প্রেক্ষাপট ও ভূমিহীনদের সামাজিকভাবে পুনর্বাসিত করার প্রয়াসে ঝিনাইদহে স্থাপিত হয়েছিল দেশের প্রথম গুচ্ছগ্রাম স্পন্দন। এটি ৩০ বছর আগে গড়ে তোলা হয়।

প্রায় এক একর খাস জমিতে তৎকালীন সরকারের অর্থায়নে টিনের ছাউনি আর চাঁটাইয়ের বেড়ার ঘর নির্মাণ করে বরাদ্দ দেওয়া হয়েছিল। যেখানে ভূমিহীন ১৬টি পরিবারের মাথা গোঁজার ঠাঁই হয়েছিল। নানা প্রতিকূলতা পেরিয়ে ঝিনাইদহ কালীগঞ্জের ত্রিলোচনপুর ইউনিয়নের সেই গুচ্ছগ্রামের পরিবারগুলো আজ সচ্ছল।

গুচ্ছগ্রামের বাসিন্দা জাহিদা বেগম জানান, টিন ও চাঁটাইয়ের বেড়া দিয়ে বিশেষভাবে তৈরি করা হয়েছিল ঘরগুলো। ৩০ বছরের ঘরগুলো এখন প্রায় জরাজীর্ণ। সেখানে সে ছেলে-মেয়ে নিয়ে বসবাস করে আসছেন।

ওই গ্রামের সদর আলী জানান, সেও ছেলে-মেয়ে নিয়ে ১৯৮৮ সাল থেকে এখানেই বসবাস করছেন। সেই সময়ে তার ছিল তুঁতগাছ ও রেশম পোকার চাষ। এখন আর আমার এ ব্যবসা নেই। শাহপুর গ্রামের মহিলা মেম্বার জবেদা বেগম নিজেও গুচ্ছগ্রামে বেড়ে উঠেছেন। তারই সন্তান সোনালী ব্যাংকে কর্মরত।