চেয়ারে পড়ে ছিল গলাকাটা লাশ

ঢাকা, শনিবার, ৫ ডিসেম্বর ২০২০ | ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৭

চেয়ারে পড়ে ছিল গলাকাটা লাশ

জেলা প্রতিনিধি ১১:২১ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ২৪, ২০২০

print
চেয়ারে পড়ে ছিল গলাকাটা লাশ

নড়াইল সদর উপজেলায় অরুণ রায় (৭২) নামের এক অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষককে গলা কেটে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। উপজেলার তুলারামপুর ইউনিয়নের বেনাহাটি গ্রামে শিক্ষকের নিজ বাড়িতে এ হত্যাকাণ্ড ঘটে। ২৩ অক্টোবর, শুক্রবার রাত ৮টার দিকে এ ঘটনা জানাজানি হলে পুলিশ অরুণ রায়ের লাশ উদ্ধার করেন।

নিহত অরুণ রায় মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর খুলনা অঞ্চলের উপপরিচালক নিভা রানী পাঠকের স্বামী। তিনি একটি বেসরকারি কলেজের অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক।

পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, অরুণ রায় বেনাহাটি গ্রামে একা বসবাস করতেন। তার এক ছেলে প্রকৌশলী ও এক মেয়ে চিকিৎসক। চাকরির সুবাদে স্ত্রী ও ছেলেমেয়ে জেলার বাইরে অবস্থান করেন। তারা মাঝেমধ্যে ছুটিতে বাড়ি আসতেন। শুক্রবার সারাদিন অরুণ রায়ের কোনো খোঁজ না পেয়ে সন্ধ্যার পর নিভা রানী পাঠক ও ছেলে ইন্দ্রজিৎ রায় বাড়িতে এসে মই বেয়ে দ্বিতল ভবনের দরজা ভেঙে ঘরে ঢুকেন। এরপর চেয়ারের ওপর গলাকাটা অবস্থায় অরুণ রায়ের লাশ দেখতে পান।

এদিকে এলাকাবাসী জানান, অরুণ রায় গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় স্থানীয় একটি চায়ের দোকান থেকে চা পান করেছেন বলে অনেকেই দেখেছেন। ধারণা করা হচ্ছে, দুর্বৃত্তরা বাড়ির দোতলায় উঠে তাকে গলা কেটে হত্যা করেছে।

নড়াইল সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইলিয়াস হোসেন বলেন, ‘খবর পেয়ে রাত ৮টার দিকে ঘটনাস্থলে পৌঁছাই। দুর্বৃত্তরা গলা কেটে অরুণ রায়কে হত্যা করেছে। তবে কী কারণে এ হত্যাকাণ্ড ঘটেছে, সে ব্যাপারে খোঁজখবর নেওয়া হচ্ছে। মরদেহের সুরতহাল তৈরি শেষে ময়নাতদন্তের জন্য নড়াইল সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।