অনুপ্রবেশ বেড়েছে মহেশপুর সীমান্তে

ঢাকা, শনিবার, ৫ ডিসেম্বর ২০২০ | ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৭

অনুপ্রবেশ বেড়েছে মহেশপুর সীমান্তে

মো. আজাদ, মহেশপুর, ঝিনাইদহ ১০:৩৪ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ২২, ২০২০

print
অনুপ্রবেশ বেড়েছে মহেশপুর সীমান্তে

হঠাৎ করেই ঝিনাইদহের মহেশপুর সীমান্তে অবৈধ অনুপ্রবেশ বেড়ে গেছে। বিশেষ করে বাংলাদেশ থেকে অবৈধ পথে ভারতে প্রবেশ করার চেষ্টা করছে নারী-পুরুষ ও শিশু। চলতি মাসের গত ১৫ দিনেই ৯৭ অনুপ্রবেশকারীকে আটক করেছে ৫৮-বিজিবি। যার মধ্যে মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাও রয়েছে পাঁচজন।

একইভাবে ভারত থেকেও বাংলাদেশে আসছে অনেকে। তবে চলতি মাসে ৯৭ জনকে আটক করলেও প্রকৃতপক্ষে এ সংখ্যা আরও বেশি বলে জানান স্থানীয়রা। আটকদের কারও কাছে কোনো দেশেরই বৈধ কোনো কাগজপত্র নেই। তাদের কেউ ৫ বছর, কেউ বা তারও অধিক সময় কাগজপত্র ছাড়াই ভারতে গিয়ে বসবাস করছিল।

এদিকে আটক সবার বিরুদ্ধে অবৈধভাবে সীমান্ত অতিক্রমের চেষ্টার অভিযোগে পাসপোর্ট অধ্যাদেশ আইনে মহেশপুর থানায় মামলা করেছে বিজিবি। হঠাৎ করে অনুপ্রবেশ বেড়ে যাওয়ার কারণ জানতে চাইলে ৫৮-বিজিবির পরিচালক লে. কর্লেন কামরুল আহসান বলেন, গত বছর ভারতের আসামসহ বিভিন্ন রাজ্যে নাগরিকপঞ্জি তৈরির পর অনেকে অবৈধভাবে সীমান্ত অতিক্রম করে বাংলাদেশে এসেছিল। তারাই এখন আবার ফিরে যাওয়ার চেষ্টা করছে। প্রাথমিকভাবে এটাই আমরা জানতে পেরেছি। তবে তাদের ঠেকাতে সীমান্তে বিজিবির টহল জোরদার করা হয়েছে।

মহেশপুর উপজেলায় ভারতীয় সীমান্ত এলাকা রয়েছে ৫৭ কিলোমিটার। যার মধ্যে কাঁটাতারবিহীন এলাকা রয়েছে প্রায় ১১ কিলোমিটার। যে কারণে কাঁটাতারবিহীন এলাকা দিয়ে অনুপ্রবেশকারীরা বেশি যাতায়াত করে বলে জানায় বিজিবি ও পুলিশ।

উপজেলার মার্ঠিলা গ্রামবাসী জানান, সীমান্তের বিভিন্ন এলাকা দিয়ে লোক আসে ভারত থেকে। এ সময় তারা সীমান্ত পার হয়ে গ্রামের বিভিন্ন বাড়িতে আশ্রয় নেয়। তবে এর সঙ্গে বড় একটি দালাল চক্র কাজ করে। তারা আরও জানান, আসা-যাওয়ার পুরো বিষয়টাই দালালের মাধ্যমে ঠিক হয়ে থাকে। দালালদের সঙ্গে মোটা অংকের টাকার চুক্তি করে অনুপ্রবেশকারীরা। দালালদের পরিকল্পনা অনুযায়ী এপার থেকে ওপার, ওপার থেকে এপারে পার হয় এসব অনুপ্রবেশকারী।

প্রসঙ্গ, চলতি বছরের জুুন মাস থেকে এখন পর্যন্ত ভারতে অনুপ্রবেশের চেষ্টাকালে ২২২ জন বাংলাদেশিকে এবং ভারত থেকে বাংলাদেশে অনুপ্রবেশের দায়ে ১০ জন ভারতীয়কে আটক করা হয়েছে। এ ছাড়াও ২০১৯ সালের অক্টোবর থেকে ২০২০ সালের জানুয়ারি পর্যন্ত অবৈধ পথে ভারত থেকে বাংলাদেশে অনুপ্রবেশের দায়ে ৩৬৩ জনেরও বেশি মানুষকে আটক করে ৫৮-বিজিবি।