সুদিনের অপেক্ষায় শিক্ষকরা

ঢাকা, রবিবার, ১৬ আগস্ট ২০২০ | ৩১ শ্রাবণ ১৪২৭

এমপিওভুক্ত হয়নি বলরামপুর মাধ্যমিক স্কুল

সুদিনের অপেক্ষায় শিক্ষকরা

যশোর প্রতিনিধি ১১:১২ পূর্বাহ্ণ, জুলাই ০৩, ২০২০

print
 সুদিনের অপেক্ষায় শিক্ষকরা

বিনা বেতনে চাকরি করার দিন শেষ হচ্ছে না যশোর সদর উপজেলার বলরামপুর আদর্শ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষক-কর্মচারীদের। দীর্ঘ ২৩ বছর বিনা পারিশ্রমিকে শিক্ষাদান করলেও সুদিন ফিরছে না তাদের। স্কুলের কয়েকজন শিক্ষক জালিয়াতির আশ্রয় নেওয়ার কারণে ২৩ বছর পরও এমপিওভুক্ত হতে পারেনি বিদ্যালয়টি।

১৯৯৭ সালে সদর উপজেলার বলরামপুর আদর্শ মাধ্যমিক বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠিত হয়। সদর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা কামরুজ্জামান জাহাঙ্গীরের সহায়তায় বিদ্যালয়ের সভাপতি এম এম আকরাম হোসেন ওরফে খিদির বিশ্বাস এবং সদর উপজেলার মাহিদিয়া আলিম মাদ্রাসার অধ্যক্ষ ফারুক হোসেন জালিয়াতির মাধ্যমে শিক্ষক নিয়োগের কারণে এমপিওভুক্ত হতে পারেন বিদ্যালয়টি। 

শিক্ষকদের অভিযোগ, দুর্নীতিবাজরা ১১ জন শিক্ষক-কর্মচারীকে জালিয়াতির মাধ্যমে নিয়োগের পায়তারা করে। যে কারণে বৈধভাবে নিয়োগপ্রাপ্ত সাত শিক্ষকও এমপিওভুক্ত হতে পারেননি।

তবে অভিযোগের বিষয়ে অধ্যক্ষ ফারুক হোসেন বলেন, আমার প্রতিষ্ঠান থেকে বলরামপুর বিদ্যালয়ের দূরত্ব ২০ কিলোমিটার। আমি ওই প্রতিষ্ঠানের কেউ না। আমি এমপিওভুক্তির জন্য সহযোগিতা করেছিলাম। তবে নিয়োগ বাণিজ্যের সঙ্গে আমার কোনো সম্পর্ক নেই। বিদ্যালয়ের সভাপতি এম এম আকরাম বিশ্বাস বলেন, আমার বিরুদ্ধে যে সব অভিযোগ করা হচ্ছে সব মিথ্যা।

মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা কামরুজ্জামান জাহাঙ্গীর অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, এমপিওভুক্তির জন্য কেউ আমার কাছে কোনো কাগজপত্র পাঠায়নি। আমার বিরুদ্ধে একটি গ্রুপ আছে। তারা আমার নামে এসব বলে বেড়াচ্ছে। আমি কোনো অন্যায়ের সঙ্গে নেই। আমার কোনো স্বাক্ষর কিংবা কোনো রেকর্ড নেই। আমি এ জেলায় ২৪ বছর ধরে চাকরি করছি।