খুলনায় বেড়েছে ছিনতাই

ঢাকা, রবিবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৯ | ৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

খুলনায় বেড়েছে ছিনতাই

খুলনা ব্যুরো ৪:৫০ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ০৪, ২০১৯

print
খুলনায় বেড়েছে ছিনতাই

খুলনা নগরীতে রিকশা, ইজিবাইক থেকে নারীদের ব্যাগ, মোবাইল ছিনতাই আশঙ্কাজনক হারে বেড়েছে। এর সঙ্গে জড়িয়ে পড়েছে মধ্যবিত্ত ও শিক্ষিত পরিবারের সন্তানরা। স্কুল-কলেজে পড়া এসব যুবক পড়ালেখা ছেড়ে বাইরের জীবনে কে কি করছে তা সঠিকভাবে খোঁজ খবর রাখেন না অভিভাবকরা। এ কারণে তারা লেখাপড়ার দিকে অমনোযোগী হয়ে আড্ডা ও অপরাধমূলক কর্মকান্ডে জড়িয়ে পড়ছে। সম্প্রতি সোনাডাঙ্গা মডেল থানার একটি মামলার তদন্ত করতে গিয়ে পুলিশের সামনে এ ভয়াবহ চিত্র চলে এসেছে।

জানা যায়, গত ২৭ অক্টোবর সোনাডাঙ্গা থানাধীন এম এম সিটি কলেজ ছাত্রাবাসের সামনে থেকে গ্রেফতার হয় মোবাইল চোর সিন্ডিকেটের ৫ সদস্য। এরা হলো, নিরালা আবাসিক এলাকার মোশাররফ হোসেনের ছেলে হাসানুল হক ওরফে স্বাধীন, সিদ্দিকীয়া মহল্লার খাইরুল গাজীর ছেলে জিএম শাহনেওয়াজ বাশার ওরফে শুভ, নিরালা দিঘিরপাড়া এলাকার রুস্তম শেখের ছেলে ফারুক শেখ, রিয়া বাজার এলাকার আজবর হোসেন ও গল্লামারী দরগা ব্রিজের পাশের আবুল তালহা। এ সময় তাদের কাছ থেকে ১২টি চোরাই মোবাইল উদ্ধার করা হয়। আদালতের নির্দেশে পুলিশ এদের মধ্যে হাসানুল হক ওরফে স্বাধীন, আজবর হোসেন ও আবুল তালহা নামে তিনজনকে রিমান্ডে জিজ্ঞাসাবাদে বেরিয়ে আসে অনেক তথ্য।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এস আই সোবাহান মোল্লা জানান, হলিউডের বিভিন্ন ছবি দেখে এ যুবকরা ছিনতাইসহ অপরাধমূলক কাজে জড়িয়ে পড়েছে। ছিনতাই করা মোবাইল ও মোটরসাইকেল তারা বন্ধু-বান্ধবের কাছে বিক্রি করে। তারা রিমান্ডে এ ধরনের তথ্য জানিয়েছেন।

সোনাডাঙ্গা মডেল থানার ওসি মমতাজুল হক জানান, মধ্যবিত্ত পরিবারের ছেলেরা আড্ডার ছলে বিভিন্ন মোড়ে মোটরসাইকেল নিয়ে বসে থাকে। পুলিশ তাদের অনেক সময় জিজ্ঞাসাবাদ করলে পোশাক-পরিচ্ছদ ও কথাবার্তায় কোন সন্দেহ করা যায়নি। তবে সম্প্রতি সময়ে এ চক্রের বিষয়ে অনেক তথ্য আমাদের কাছ এসেছে।