খনন হবে চুয়াডাঙ্গার পাঁচ নদী

ঢাকা, বুধবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৯ | ২৮ কার্তিক ১৪২৬

খনন হবে চুয়াডাঙ্গার পাঁচ নদী

চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি ৫:৩৩ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ৩১, ২০১৯

print
খনন হবে চুয়াডাঙ্গার পাঁচ নদী

চুয়াডাঙ্গার মাথাভাঙ্গাসহ পাঁচটি নদী খননের উদ্যোগ গ্রহণ করেছে সরকার। ৬৪টি জেলার অভ্যন্তরীণ নদী খনন প্রকল্পের আওতায় এ নদী খনন করা হবে। প্রকল্প বাস্তবায়নের অংশ হিসাবে বুধবার দুপুরে চুয়াডাঙ্গার চিত্রা নদী খনন কাজের উদ্বোধন করা হয়।

দামুড়হুদা উপজেলার গোপালখালী গ্রামে নদীর মাটি কেটে খনন কাজের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন স্থানীয় সংসদ সদস্য হাজী আলী আজগর টগর। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, জেলা প্রশাসক নজরুল ইসলাম সরকার, পুলিশ সুপার জাহিদুল ইসলাম, দামুড়হুদা উপজেলা চেয়ারম্যান আলী মুনসুর বাবু ও দর্শনা পৌর মেয়র মতিয়ার রহমান ও পানি উন্নয়ণ বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী জাহেদুল ইসলাম।

এ সময় সংসদ সদস্য হাজী আলী আজগর টগর বলেন, ‘বাংলাদেশ নদীমাতৃক দেশ। তাই সারা দেশে নদীগুলোকে বাঁচানোর উদ্যোগ গ্রহণ করেছে সরকার। কারণ বর্তমান সরকার উন্নয়নে বিশ্বাসী। দেশের নদীগুলো সচল হলে দেশের তৃণমূলের কৃষি ঘুরে দাঁড়াবে। তাই প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে ৬৪টি জেলার অভ্যন্তরীস্থ নদী খনন প্রকল্পের আওতায় চুয়াডাঙ্গার পাঁচটি নদী খনন করা হবে। চিত্রা নদী খনন সেই উন্নয়নের ধারাবাহিকতার অংশ।

জেলা প্রশাসক নজরুল ইসলাম সরকার বলেন, সরকারের নদী খনন প্রকল্পটি যুগান্তকারী সিদ্ধান্ত। কারণ নদীগুলো বাঁচলে বাঁচবে পরিবেশ, রক্ষা হবে জীব বৈচিত্র। তৃণমূলের কৃষি নতুন উচ্চতায় উন্নতি হবে। আর এ কারণে নদী বাঁচাতে দখলকারী কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না।