ময়মনসিংহ-সাতক্ষীরায় দুই ডেঙ্গু রোগীর মৃত্যু

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | ৪ আশ্বিন ১৪২৬

ময়মনসিংহ-সাতক্ষীরায় দুই ডেঙ্গু রোগীর মৃত্যু

জেলা প্রতিনিধি ১০:৩০ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১১, ২০১৯

print
ময়মনসিংহ-সাতক্ষীরায় দুই ডেঙ্গু রোগীর মৃত্যু

ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (মমেক) ও সাতক্ষীরার তালা সদরের আটারই গ্রামে ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত হয়ে দুই নারীর মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুরে মমেকের নিবিড় পরিচর্যাকেন্দ্রে (আইসিইউ) চিকিৎসাধীন থেকে ফাতেমা খাতুন (৫০) ও খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মঙ্গলবার রাত ১১টার দিকে রহিমা বেগমের (৪৩) মৃত্যু হয়।

ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সহকারী পরিচালক এবিএম শামসুজ্জামান জানান, ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত হয়ে গত ৩ সেপ্টেম্বর সকালে ফাতেমা খাতুনকে এ হাসপাতালের ১১ নম্বর ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়। পরে অবস্থার অবনতি হলে ৭ সেপ্টেম্বর তাকে হাসপাতালের আইসিইউতে স্থানান্তর করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন থেকে মঙ্গলবার দুপুরে তিনি মারা যান।

এ নিয়ে ডেঙ্গুজ্বরে এই হাসপাতালে সাতজনের মৃত্যু হলো। মমেকে বর্তমানে চিকিৎসাধীন ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা ৫৯ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় সাতজন নতুন ডেঙ্গু রোগীকে ভর্তি করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

ফাতেমা খাতুন কিশোরগঞ্জের হোসেনপুর উপজেলার বাসিন্দা নাজমুল হকের স্ত্রী।

এদিকে সাতক্ষীরার তালা সদরের আটারই গ্রামে ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে রহিমা বেগম (৪৩) নামে এক গৃহবধূ মারা গেছেন। খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মঙ্গলবার রাত ১১টার দিকে তিনি মারা যান।

রহিমা বেগম তালা সদর ইউনিয়নের আটারই গ্রামের রফিকুল ইসলাম মোড়লের স্ত্রী।

তালা সদর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম জানান, রহিমা বেগম ডায়াবেটিস রোগে ভুগছিলেন। এরপর তার ডেঙ্গু রোগ ধরা পড়ে। খুলনা মেডিকেলে এক সপ্তাহ চিকিৎসাধীন থাকা অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।