উপজেলা পরিষদ চত্বর যেন মশার প্রজনন ক্ষেত্র

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | ৪ আশ্বিন ১৪২৬

উপজেলা পরিষদ চত্বর যেন মশার প্রজনন ক্ষেত্র

মণিরামপুর (যশোর) প্রতিনিধি ৭:৩৫ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ০৭, ২০১৯

print
উপজেলা পরিষদ চত্বর যেন মশার প্রজনন ক্ষেত্র

বর্তমানে দেশে সবচাইতে বড় আতঙ্কের নাম এডিস। সমাজের এলিট থেকে শুরু করে নিম্ন শ্রেণির সবার কাছে এটি একটি আতঙ্ক। অনেকেই এডিস মশার কামড়ে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে ভর্তি হচ্ছেন হাসপাতালে। আবার কেউ কেউ মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ছেন।

এডিস মশার বংশবিস্তার ঠেকাতে সমাজের সব শ্রেণির মানুষ যখন সচেতন হচ্ছেন। ঠিক তখনই ভিন্ন চিত্র চোখে পড়েছে মণিরামপুর উপজেলা পরিষদ চত্বরে। সমাজের সবচাইতে নামিদামি, বুদ্ধিদিপ্ত মানুষগুলোর বসবাস বা চলাচল এই চত্বরে হলেও এখানে এডিস মশার প্রজনন ক্ষেত্র ধ্বংস করতে তারা যেন একেবারেই অচেতন।

শুক্রবার সরেজমিনে উপজেলা পরিষদ চত্বর ঘুরে দেখা যায়, উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনের সামনে হয়েছে জঙ্গল, রাস্তায় গর্তে জমে আছে বৃষ্টির পানি, পরিসংখ্যান অফিস চত্বরও ভরে আছে জঙ্গলে, ওই অফিসের সামনের অংশে রাস্তার দক্ষিণে একটি গর্তে জমে আছে বৃষ্টির বহু পুরোনো পানি, কৃষক প্রশিক্ষণ অফিসের সামনের ও পিছনের চিত্র একই।

উপজেলা চত্বরে অবস্থিত শহীদ মিনারের পশ্চিম অংশে রয়েছে ঝোঁপঝাড়। আর উপজেলা ফুড গোডাউনের সামনে রাস্তার পাশে জমে আছে ময়লার বড়বড় স্তুপ। একই চিত্র তুলা উন্নয়ন অফিসের সামনেরও। যদিও একমাস আগে অনেকটা ঢাকঢোল পিটিয়ে এই এলাকায় পরিচ্ছন্ন অভিযান চলেছিল ইউএনওর নেতৃত্বে। তবে বর্তমান অবস্থা দেখে অনেকেই মনে করছেন সেটা ছিল আই ওয়াশ মাত্র।

কথা হয় প্রাত ভ্রমনে বের হওয়া একাধিক ব্যক্তির সঙ্গে। এসময় তারা উপজেলা পরিষদ চত্বরের এমন চিত্র দেখে ক্ষোভ প্রকাশ করেন। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক শিক্ষক বলেন, উপজেলা প্রশাসনের প্রায় কাজরই উদ্দেশ্য হচ্ছে সময় পার করা মাত্র।

এবিষয়ে জানতে মণিরামপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আহসান উল্লাহ শরিফীর মোবাইল ফোনে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

মণিরামপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নাজমা খানম বলেন, এই ব্যাপারে ইউএনওর সঙ্গে কথা বলে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।