মোংলায় উত্তাল সাগরে ইলিশ আহরণ বন্ধ

ঢাকা, বুধবার, ২১ আগস্ট ২০১৯ | ৬ ভাদ্র ১৪২৬

মোংলায় উত্তাল সাগরে ইলিশ আহরণ বন্ধ

আবুল হাসান, মোংলা (বাগেরহাট) ৭:১১ অপরাহ্ণ, জুলাই ৩১, ২০১৯

print
মোংলায় উত্তাল সাগরে ইলিশ আহরণ বন্ধ

বঙ্গোপসাগর নিম্নচাপের প্রভাবে উত্তাল হয়ে উঠেছে। আষাঢ়ে বিশাল-বিশাল ঢেউয়ে টিকতে না পেরে দুদিন ধরে ইলিশ আহরণ বন্ধ হয়ে গেছে। ইলিশ আহরণে থাকা শত শত ট্রলার সাগর ছেড়ে সুন্দরবনের ছোট-ছোট খালসহ উপকূলের বিভিন্ন এলাকায় নিরাপদে আশ্রয় নিয়েছে। গত শনিবার থেকে সাগর উত্তাল রয়েছে বলে জানিয়েছেন মোংলা বাজারের মৎস্যজীবী নেতা ও ট্রলার মালিক সমিতির নেতারা।

এদিকে, অবরোধ শেষে মাছ ধরা শুরু হতে না হতেই বৈরী আবহাওয়ার উপকূল জুড়ে হতাশা দেখা দিয়েছে। জেলে-মহাজনদের অভিযোগ, অবরোধের সময় ভারতের জেলেরা বাংলাদেশের জলসীমায় ঢুকে ইলিশ ধরে নিয়ে যায়। ওই সময়টাতে আবহাওয়াও স্বাভাবিক থাকে। তখন সাগরে নির্বিঘ্নে মাছ শিকার করা যায়।

মোংলার মৎস্য ব্যবসায়ী মো. শেখ কামরুজ্জামান জসিম ও হাসান গাজীসহ অন্যান্য মহাজন ও জেলেরা জানান, সাগরে ৬৫ দিন অবরোধ থাকায় দেশীয় জেলে-মহাজনসহ সরকার ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। সরকারের কাছে ভারতের সঙ্গে মিল রেখে মার্চ-এপ্রিলে অবরোধ দেওয়ার দাবি জানিয়েছেন তারা। তাতে সবাই লাভবান হবে।

বাগেরহাট জেলা ট্রলার মালিক সমিতির সভাপতি মো. আবুল হোসেন জানান, ২৪ জুলাই থেকে একেকজন ফিশিং ট্রলার মালিক ও মহাজন সাগরে আহরিত ইলিশ থেকে পাঁচ লাখ থেকে শুরু ১০-১২ লাখ টাকার আয় করেছেন। দ্বিতীয়বার সাগরে যাওয়ার প্রস্তুতি নিতেই নিম্নচাপ শুরু হয়। বৈরী আবহাওয়ার মধ্যেও কিছু ট্রলার সাগরে গিয়ে দুর্যোগের মুখে পড়ে।

উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা এ জেড এম তৌহিদুর রহমান বলেন, অবরোধ শেষে বঙ্গোপসাগরে প্রচুর ইলিশ পড়েছে। এটা অবরোধেরই সুফল। মৎস্যজীবীরা ভারতের সঙ্গে মিল রেখে অবরোধ দেওয়ার যে দাবি জানিয়েছে তা ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হবে।