খুলনায় স্কুলে বসেই চলে ইয়াবা ব্যবসা!

ঢাকা, সোমবার, ৮ আগস্ট ২০২২ | ২৪ শ্রাবণ ১৪২৯

Khola Kagoj BD
Khule Dey Apnar chokh

খুলনায় স্কুলে বসেই চলে ইয়াবা ব্যবসা!

জামাল হোসেন, খুলনা
🕐 ৮:২৮ অপরাহ্ণ, জুন ২৩, ২০২২

খুলনায় স্কুলে বসেই চলে ইয়াবা ব্যবসা!

খুলনার দিঘলিয়া উপজেলার সেনহাটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বসেই চলছে ইয়াবা’র ব্যবসা। আর এ ব্যবসা করছিলেন খোদ স্কুলের দপ্তরী কাম নৈশ প্রহরী মনিরুজ্জামান মনির শেখ নিজেই। কিন্তু দীর্ঘদিন ধরেই নেশাদ্রব্যের এ ব্যবসা চললেও সে ছিল ধরা-ছোঁয়ার বাইরে।

তবে, এবার পুলিশের হাতে কট হয়েছেন দপ্তরী কাম নৈশ প্রহরী মনিরুজ্জামান মনির শেখ (৪২) ও তার সহযোগি তুহিন গাজীকে (৩০)। বুধবার রাতে ৫০ পিস ইয়াবাসহ পুলিশ তাদের গ্রেফতার করে। দিঘলিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ আহসান উল্লাহ চৌধূরী বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

গ্রেফতারকৃত মনিরুজ্জামান সেনহাটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দপ্তরী কাম নৈশ প্রহরী হিসেবে কর্মরত ছিলেন। একই সঙ্গে তিনি একই স্কুলের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও সেনহাটি সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ফরহাদ হোসেনের ভাই। তিনি সেনহাটি গ্রামের মৃত শেখ ইসমাইল হোসেনের পুত্র। তার সহযোগি তুহিন গাজীে চন্দনীমহল এলাকার মৃত ইজু গাজীর পুত্র।

স্থানীয় সূত্র ও পুলিশ জানিয়েছে, বুধবার রাত ১০ টার দিকে দিঘলিয়া থানার এসআই আজিজ মাহমুদের নেতৃত্বে একটি দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সেনহাটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে অভিযান চালিয়ে ৫০ পিচ ইয়াবাসহ মনিরুজ্জামান ও তুহিন গাজীকে গ্রেফতার করে। তাদের বিরুদ্ধে দিঘলিয়া থানায় মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার তাদের আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করা হয়।

দিঘলিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ আহসান উল্লাহ চৌধুরী এ প্রতিবেদককে জানান, এর আগে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ মনিরুজ্জামানকে সতর্ক করেন। কিন্তু সে আমলে আনেনি বরং সে ইয়াবা ব্যবসার সাথে জড়িত থাকার কথা অস্বীকার করে। কিন্তু ইয়াবাসহ তাদের গ্রেফতার করে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

এদিকে দিঘলিয়া উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার শাহনাজ বেগম জানিয়েছেন, এর আগে সেনহাটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দপ্তরি কাম নৈশ প্রহরী মনিরুজ্জামানের বিরুদ্ধে অভিযোগ পেয়ে তাকে শোকজ করা হয়। কিন্তু সে অভিযোগ অস্বীকার করে। এখন পুলিশের হাতে ধরা পড়েছে। মামলা দায়ের হয়েছে। আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা হবে। প্রধান শিক্ষককে স্কুলের ম্যানেজিং কমিটির সভা করে মনিরুজ্জামানকে সাময়িক বরখাস্ত করতে বলা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

স্কুলের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও সেনহাটি সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ফরহাদ হোসেন গ্রেফতারকৃত দপ্তরী কাম নৈশ প্রহরী মনিরুজ্জামান মনির শেখকে নিজের ভাই বলে স্বীকার করে বলেন, এর আগে তাকে এ বিষয়ে সতর্ক করা হয়। কিন্তু সে অস্বীকার করে। তবে এবার ইয়াবাসহ গ্রেফতার হওয়ায় তাকে বৃহস্পতিবার স্কুল কমিটির সভায় সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। বিষয়টি আইনগত ভাবেই শাস্তি তিনি মেনে নিবেন। তবে নিজের ভাই বলে তাকে কোন ধরণের প্রশ্রয় দেননা বলে দাবি করেন তিনি।

 
Electronic Paper