নীল ড্রাগনের দেখা মিললো দ. আফ্রিকার সৈকতে

ঢাকা, শনিবার, ১৬ জানুয়ারি ২০২১ | ২ মাঘ ১৪২৭

নীল ড্রাগনের দেখা মিললো দ. আফ্রিকার সৈকতে

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ৬:০৪ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ০১, ২০২০

print
নীল ড্রাগনের দেখা মিললো দ. আফ্রিকার সৈকতে

দক্ষিণ আফ্রিকার কেপটাউনের সমুদ্র সৈকতে দেখা মিলেছে বিষাক্ত নীল ড্রাগনের। যার ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট হওয়ার পরই ভাইরাল হয়ে যায়।

স্থানীয় বাসিন্দা মারিয়া ওয়েজেন সম্প্রতি একাই কেপটাউনের সৈকতে ঘুরতে বের হয়েছিলেন। সৈকতে হাঁটতে হাঁটতে আচমকা বালির ওপর নীল রঙের কিছু অদ্ভুত দর্শন ছোট ছোট প্রাণীগুলো দেখে চমকে যান তিনি।

অন্যান্য দিন এসব স্টারফিশসহ বিভিন্ন ছোট ছোট প্রাণীকে সৈকতে পড়ে থাকতে দেখলে ফের সমুদ্রের জলে ছেড়ে দিতেন।

মারিয়া ওয়েজেন বলেন, প্রথমবার দেখা অচেনা এই প্রাণীকে দেখে কিছুটা ঘাবড়ে যায়। একাধিক ছবি তুলে রাখি। পরে সেগুলো সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করার পাশাপাশি ওই অদ্ভুত দর্শন সামুদ্রিক প্রাণীটিকে নিয়ে গবেষণা করতে শুরু করি।

তিনি বলেন, গবেষণায় জানতে পারি গ্ল্যাকাস আটলান্টিকাস বৈজ্ঞানিক নামের ওই অদ্ভুত দর্শন প্রাণীটিকে নীল ড্রাগন বলেই ডাকেন সমুদ্র বিজ্ঞানীরা।

সংবাদমাধ্যমকে মারিয়া ওয়েজন আরো জানান, আগে কোনো দিন এ ধরনের সামুদ্রিক প্রাণী দেখিনি। প্রথমে ঘাবড়ে গিয়েছিলাম। পরে প্রায় ২০টি ওই ধরনের প্রাণীকে পড়ে থাকতে দেখে একাধিক ছবি ও একটি ভিডিও তুলে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করি।

তিনি বলেন, এ বিষয়ে বিভিন্ন মাধ্যমে খোঁজখবর নিতে থাকি। পড়াশোনাও শুরু করি। পরে জানতে পারি সাইজে ছোট হলেও ওই সামুদ্রিক প্রাণীটি প্রচণ্ড বিষাক্ত।

সমুদ্র বিজ্ঞানীরা গণমাধ্যমে বলেন, কোনোভাবে যদি নীল ড্রাগনের শরীরে থাকা হুলগুলো মানুষ বা অন্য কোনো প্রাণীর শরীরে ফুটে যায় তাহলে সারা শরীরে বিষ ছড়িয়ে পড়বে। শরীরে প্রচণ্ড ব্যথা হবে, ত্বকে অ্যালার্জি ও বমি শুরু হয়ে গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়বে।