ফের জয়ী টিউলিপ-রুশনারা-রূপা

ঢাকা, সোমবার, ২৭ জুন ২০২২ | ১৩ আষাঢ় ১৪২৯

Khola Kagoj BD
Khule Dey Apnar chokh

ব্রিটেনে নির্বাচন

ফের জয়ী টিউলিপ-রুশনারা-রূপা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
🕐 ১২:১৬ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ১৩, ২০১৯

ফের জয়ী টিউলিপ-রুশনারা-রূপা

যুক্তরাজ্যের সাধারণ নির্বাচনে আবারও জয়ী হয়েছেন টিউলিপ সিদ্দিক, রুশনারা আলী এবং রূপা হক। এর আগেও ব্রিটেনের এমপি হিসেবে নির্বাচিত হয়েছে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত এই তিন নারী। হ্যাম্পস্টেড এন্ড কিলবার্ন এলাকা থেকে জয় পেয়েছেন টিউলিপ সিদ্দিক। তিনি ২৮ হাজার ৮০টি ভোট পেয়েছেন। অপরদিকে তার প্রতিদ্বন্দ্বী কনসারভেটিভ পার্টির জনি লাক পেয়েছেন ১৩ হাজার ৮৯২টি ভোট।

বৃহস্পতিবারের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার পর শুক্রবার সকালেই ফল ঘোষণা করা হচ্ছে।

হ্যাম্পস্টিড ও কিলবার্নে নিজের আসনে তৃতীয়বারের মতো বিজয়ী বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভাগনি টিউলিপ সিদ্দিকী। এর আগে ২০১৫ সালে প্রথমবারের মতো নির্বাচিত হয়েছিলেন ৩৭ বছর বয়সী টিউলিপ সিদ্দিক। তখন তিনি ১৪ হাজার ১৮৮ ভোটে এগিয়ে ছিলেন।

নির্বাচনে তাকে বিজয়ী করায় স্থানীয়দের ভোটারদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন লেবার পার্টির এই এমপি।

বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত এই নারী বলেন, আমরা বিজয়ী হয়েছি। কিন্তু জাতীয়ভাবে আমাদের দল খুব একটা ভালো করতে পারেনি। আমাদের সম্প্রদায়ের মধ্যে আস্থা পুনর্প্রতিষ্ঠা করতে হবে।

টিউলিপ বলেন, দেশে এখন লেবার সরকার দরকার। আমি নিশ্চিত হতে চাই, আগামীতে আপনারা কেবল আমার পাশেই না, সব সহকর্মীদের পাশে দাঁড়াবেন। বিশেষ করে নারী সহকর্মীদের প্রতি, যারা নিজেদের আসন হারিয়েছেন।

এদিকে পূর্ব লন্ডনে বাংলাদেশি অধ্যুষিত এলাকা এয়ালিং সেন্ট্রাল এন্ড অ্যাকটনের আসনে রুপা হক ও বেথনাল গ্রিন এন্ড বো আসনে রুশনারা আলী আলাদাভাবে বিজয় নিশ্চিত করছেন।

বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত রুশনারা আলী বেথনাল গ্রিন অ্যান্ড বো থেকে জয়ী হয়েছেন। তিনি ৪৪ হাজার ৫২টি ভোট পেয়েছেন। এর আগে ২০১৭ সালে পূর্ব লন্ডনের বেথনাল গ্রিন অ্যান্ড বো আসন থেকে তিনি ৪২ হাজার ৯৬৯ ভোট পেয়ে জয়ী হয়েছিলেন।

বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত অপর ব্রিটিশ এমটি রূপা হক। তিনি লন্ডনের ইলিং সেন্ট্রাল অ্যান্ড অ্যাকটন আসনে তৃতীয়বারের মতো এমপি হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন। রূপা হক নির্বাচনে ২৮ হাজার ১৩২ ভোট পেয়েছেন। অপরদিকে তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী কনজারভেটিভ প্রার্থী জুলিয়ান গেল্যান্ট পেয়েছেন ১৪ হাজার ৮৩২ ভোট। ২০১৫ সালে প্রথমবারের মতো এমপি হিসেবে নির্বাচিত হয়েছিলেন রূপা।

এ বারের নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছেন ৯ বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত প্রার্থী। যাদের মধ্যে ৭ জনই নারী।

বিরোধী লেবার পার্টি থেকে লড়েছেন সর্বোচ্চ ৭ বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত। লিবারেল ডেমোক্র্যাট ও কনজারভেটিভ পার্টি থেকে এক জন করে এই নির্বাচনে অংশ নিয়েছেন।

 

 
Electronic Paper