কেন্দ্রীয় সরকারকেও ভর্ৎসনা

ঢাকা, বুধবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৯ | ২৯ কার্তিক ১৪২৬

দিল্লির দূষণে সুপ্রিম কোর্ট

কেন্দ্রীয় সরকারকেও ভর্ৎসনা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ২:৫৪ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ০৬, ২০১৯

print
কেন্দ্রীয় সরকারকেও ভর্ৎসনা

ভারতের রাজধানী দিল্লিতে ভয়াবহ দূষণ নিয়ে এবার সরব হয়েছে সুপ্রিম কোর্ট। চলমান পরিস্থিতিতে উদ্বেগ প্রকাশের পাশাপাশি আদালত ভর্ৎসনা করেছে কেন্দ্র ও দিল্লি সরকারকেও। দিল্লির দমবন্ধ দশায় একে অপরকে দোষারোপ করা বন্ধ করে কাজ করার পরামর্শ দিয়েছেন শীর্ষ আদালত।

গত সোমবার এক রিটের শুনানির পর দিল্লি ও কেন্দ্র সরকারকে ভর্ৎসনা করে আদালত বলেন, তারা দূষণ মোকাবেলায় বাস্তবসম্মত কোনো পদক্ষেপ নেওয়ার চেয়ে বরং একে অপরের ওপর কেবল দায় চাপাচ্ছে। সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি অরুণ মিশ্র বলেন, ‘প্রতি বছর দিল্লির দমবন্ধ হচ্ছে এবং আমরা কিছুই করতে পারছি না। রাষ্ট্রযন্ত্র তৎপর হচ্ছে না। তারা কেবল একে অপরের ঘাড়ে দায় চাপাচ্ছে। প্রত্যেকেই ভোট নিয়ে বেশি আগ্রহী।’

জানুয়ারির পর এই প্রথম দিল্লিতে দম বন্ধ করা পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে বলে জানিয়েছে পরিবেশ দূষণ নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ। গত রোববার দিল্লির বাতাসে গুণমান সূচক বা এয়ার কোয়ালিটি ইনডেক্স (একিউআই) ছিল ৬২৫। একিউআই অনুযায়ী, ০ থেকে ৫০ ভালো। ৫১ থেকে ১০০ সন্তোষজনক। ১০১ থেকে ২০০ সাধারণ মানের। ২০১ থেকে ৩০০ খারাপ। ৩০১ থেকে ৪০০ খুব খারাপ। ৪০১ থেকে ৫০০ মারাত্মক খারাপ বলে ধরা হয়। সে হিসেবে বর্তমানে দিল্লিতে বায়ুদূষণ অতি বিপজ্জনক মাত্রাও ছাড়িয়ে গেছে।

সুপ্রিম কোর্ট দিল্লিতে দূষণের জন্য দায় কার প্রশ্ন করে- কেন্দ্র ও রাজ্য উভয়কেই এ বিষয়টি মোকাবেলায় পদক্ষেপ নেওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন।

আদালত বলছে, এ পরিস্থিতি যে সরকারের কারণেই হয়ে থাকুক তাতে আমাদের কিছু আসে যায় না। শিশু থেকে যুবক ও বৃদ্ধ, সবাই অসুস্থ হয়ে পড়ছে। কেন কৃষকরা খড় জ্বালাচ্ছে? এর জন্য জরিমানার বিধান থাকলেও সরকার তা কেন নিয়ন্ত্রণ করতে পারছে না?

আদালত বলেন, ‘আমরা এভাবে বসে থাকতে পারি না। আমাদেরই পদক্ষেপ নিতে হবে।’