হংকংয়ে প্রত্যর্পণ বিল বাতিল

ঢাকা, শনিবার, ২৩ নভেম্বর ২০১৯ | ৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

হংকংয়ে প্রত্যর্পণ বিল বাতিল

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ৯:০৭ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২৩, ২০১৯

print
হংকংয়ে প্রত্যর্পণ বিল বাতিল

টানা আন্দোলনের মুখে অবশেষে প্রত্যর্পণ বিল বাতিল করল হংকং প্রশাসন। এর আগে প্রচণ্ড চাপের মুখে এই বিলটি স্থগিত করা হয়। এদিকে হংকংয়ের প্রধান নির্বাহী ক্যারি লামকে পদ থেকে সরিয়ে দেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু করেছে চীন সরকার। বুধবার আইনসভায় আনুষ্ঠানিকভাবে প্রত্যর্পণ বিল বাতিলের কথা জানানো হয়। বিচারের জন্য হংকংয়ের বাসিন্দাদের চীনের মূলভূখণ্ডে পাঠানোর সুযোগ রেখে করা ওই বিলটির কারণে দীর্ঘদিন ধরেই বিক্ষোভ করে আসছে কয়েক লাখ মানুষ। ওই বিলের পক্ষে যারা

সমর্থন জানিয়েছেন তারা বলছেন, এই আইনটি রাজনৈতিকভাবে ব্যবহারের ক্ষেত্রে সুরক্ষা রাখা হয়েছে। চীনের মূল ভূখণ্ড থেকে ধর্মীয় বা রাজনৈতিকভাবে নিপীড়নের মুখোমুখি হওয়া যে কাউকে রক্ষার জন্য এই আইনে পর্যাপ্ত ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। তবে প্রথম থেকেই এই বিল নিয়ে সমালোচনা শুরু হয়।

১৯৯৭ সালে যুক্তরাজ্য থেকে হংকং চীনের কাছে পুনরায় হস্তান্তরিত হওয়ার পর এটাই সবচেয়ে বড় আন্দোলন। প্রত্যর্পণ বিল যেন বাস্তবায়ন করা না হয় সে জন্য সরকারের ওপর যথাসাধ্য চাপ প্রয়োগ করতে রাজপথে নামে বিক্ষুব্ধ জনতা। অবশেষে বিক্ষুব্ধ জনতাকে থামাতে বাধ্য হয়েই এই বিল বাতিল করা হলো।

এদিকে চীনের বিশেষ প্রশাসনিক অঞ্চল হংকংয়ের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ক্যারি লামকে সরিয়ে দিচ্ছে বেইজিং। হংকংয়ে গণতন্ত্রপন্থিদের প্রায় পাঁচ মাসের লাগাতার আন্দোলনের পর তাকে চূড়ান্তভাবে সরানো হতে পারে।

বুধবার ফিন্যান্সিয়াল টাইমসের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে। হংকংয়ের চীনপন্থি নেতা ক্যারি লাম বিতর্কিত বন্দি প্রত্যর্পণ বিল পাসের জেরে ব্যাপক বিক্ষোভের মুখে পড়েন।

বুধবার বিতর্কিত এই বন্দি প্রত্যর্পণ বিল বাতিলের ঘোষণা দিয়েছে চীন। বিভিন্ন সূত্রের বরাত দিয়ে ফিন্যান্সিয়াল টাইমস জানিয়েছে, নিয়োগের বিষয়টি নির্ভর করছে হংকংয়ের স্থিতিশীলতা ফিরে আসার ওপর। সেখানে সহিংসতার মধ্যে নতুন নির্বাহী নিয়োগ দিতে চাইছে না বেইজিং।