ট্রাম্পের ‘মেক্সিকোতে অবস্থান করার’ নীতির অবসান

ঢাকা, শনিবার, ১৩ আগস্ট ২০২২ | ২৯ শ্রাবণ ১৪২৯

Khola Kagoj BD
Khule Dey Apnar chokh

ট্রাম্পের ‘মেক্সিকোতে অবস্থান করার’ নীতির অবসান

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
🕐 ৩:২৫ অপরাহ্ণ, জুলাই ০১, ২০২২

ট্রাম্পের ‘মেক্সিকোতে অবস্থান করার’ নীতির অবসান

প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের আমলে আরম্ভ হওয়া এক কট্টর অভিবাসন নীতির অবসান ঘটাতে, প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের প্রচেষ্টার পক্ষে বৃহস্পতিবার মত দিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের সুপ্রিম কোর্ট। ট্রাম্পের নীতিটি মেক্সিকোর হাজার হাজার অভিবাসন-প্রত্যাশীকে তাদের আশ্রয় অনুরোধের শুনানির জন্য মেক্সিকোতেই অবস্থান করতে বাধ্য করত।

বিচারপতিগণ ৫-৪ ভোটে আগের রায়টি উল্টে দেন। নতুন রায়টি প্রধান বিচারপতি জন রবার্টস সম্পাদনা করেন। ফেডারেল আপিল আদালতের দেওয়া পূর্বের ঐ রায়টি বাইডেনকে ট্রাম্পের “মেক্সিকোতে অবস্থান করার” নীতিটি পুনরায় চালু করতে বাধ্য করত।

রিপাবলিকান নেতৃত্বাধীন টেক্সাস ও মিসৌরী অঙ্গরাজ্য কর্মসূচিটি চালু রাখতে আদালতে আবেদন জানালে, ঐ রায়টি দিয়েছিল আদালত। নতুন রায়টি বাইডেনের জন্য এক বিজয়...। তিনি নিম্ন আদালতের রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করেছিলেন। দক্ষিণের সীমান্তে আরও “মানবিক” পন্থা বাস্তবায়ন করার পরিকল্পনা রয়েছে বাইডেনের।

আনুষ্ঠানিকভাবে “মাইগ্রেন্ট প্রোটেকশন প্রোটোকল” নামের ঐ নীতিটি ট্রাম্প প্রশাসন ২০১৮ সালে গ্রহণ করেছিল। সেই সময়ে যুক্তরাষ্ট্র ও মেক্সিকোর মধ্যবর্তী সীমান্তে অভিবাসন বৃদ্ধি পেলে তার প্রতিক্রিয়ায় ঐ নীতি গ্রহণ করা হয়। এর ফলে যুক্তরাষ্ট্রের দীর্ঘদিনের নিয়মের অবসান হয়।

ট্রাম্পের নতুন নীতি, মেক্সিকোর নাগরিক নন এমন নির্দিষ্ট কিছু অভিবাসন-প্রত্যাশীদেরকে, তাদের অভিবাসন প্রক্রিয়া চলাকালীন যুক্তরাষ্ট্রে মুক্তভাবে থাকতে বাধা দিয়ে মেক্সিকোতে ফেরত পাঠিয়ে দিত...। এর মধ্যে এমন আশ্রয়প্রার্থীরাও ছিলেন যাদের নিজ দেশে নিপীড়নের শিকার হওয়ার শঙ্কা রয়েছে।

ক্ষমতা গ্রহণের কিছুদিন পরই ২০২১ সালের জানুয়ারিতে বাইডেন “মেক্সিকোতে অবস্থান করার” নীতিটি স্থগিত করেন। এর পাঁচ মাস পর সেটি প্রত্যাহার করে নিতে পদক্ষেপ নেন তিনি। ২০১৯ সালে নীতিটি চালু হওয়ার পর থেকে বাইডেন সেটি স্থগিত করা পর্যন্ত প্রায় ৬৮,০০০ মানুষ ঐ নিয়মের আওতায় পড়েছিলেন। সূত্র: ভয়েজ অব আমেরিকা

 
Electronic Paper