৩১ এর বিদায়

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২ মার্চ ২০২১ | ১৮ ফাল্গুন ১৪২৭

৩১ এর বিদায়

সুপর্ণা রহমান টুছি ২:৩৪ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১৭, ২০২১

print
৩১ এর বিদায়

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম দিন থেকেই প্রত্যেক তরুণ-তরুণীদের মনে হাজারো স্বপ্ন বাসা বাঁধে। কল্পনা করে শিক্ষাজীবনের শেষ দিনটি কেমন হবে! নিজের বিভাগকে মনের মতো করে সাজানো, বন্ধুদের সঙ্গে হারিয়ে যাওয়া, ক্লাস-পরীক্ষা, সিনিয়র-জুনিয়রদের আবেগ ভালোবাসা ও হাজারো স্মৃতিতে ডুব দিয়ে কেটে যায় স্নাতকের চার বছর। গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্মেসি বিভাগের ৩১তম অধ্যায়। এই ব্যাচের শিক্ষার্থীদের স্বপ্ন আজীবন স্বপ্নই থেকে গেল। তারা শেষ বর্ষের শেষ সেমিস্টারের শিক্ষার্থী।

করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব ঠেকাতে তাদের ৭ম ও ৮ম সেমিস্টার অনলাইনে ইতি হয়ে যাচ্ছে। সমাপ্তি ক্লাস, বিদায় উৎসব কিংবা সহপাঠীদের প্রিয় মুখগুলো দেখা কোনোটারও সুযোগ পাননি এই ছাত্র-ছাত্রীরা। গেল বছরের ৩১ ডিসেম্বর। ক্যাম্পাসের সন্নিকটে থাকা বন্ধুদের সঙ্গে গাজীপুরের পুবাইলে সাবরিনা ড্রিম রিসোর্টে র‌্যাগ ডে উদযাপন করেন তারা। বছরের শেষ মাসের শেষ দিনের সঙ্গে ব্যাচের সংখ্যার এক অদ্ভূত মিল রয়েছে। এই কারণে এ দিনটি পছন্দ করেছে ৩১তম ব্যাচ।

গোটা দিনজুড়ে চলে শতশত ফটোসেশন। দুপুর গড়িয়ে বিকেল বিদায়ের যন্ত্রণায় স্থবির হয়ে যায় চারপাশ। কারও মুখেই কোনো কথা নেই। নিস্তব্ধ পরিবেশে শুধু কান্নার আওয়াজ। আর চোখে অজস্র বারিপাত। বিদায় অনুষ্ঠানের প্রথম পর্ব শেষ হয় এখানেই। যেহেতু ৩১ ডিসেম্বর। তাই রাতে ইংরেজি নতুন বছর (থার্টি ফার্স্ট নাইট) বরণের আয়োজন করতে ভুলে যাননি ব্যাচ ৩১। বিদায় অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় পর্ব ছিল এই আয়োজন জুড়েই। ২০২১ সালের প্রথম সকালে বাড়ি ফিরে যায় ৩১ ব্যাচের শিক্ষার্থীরা। এ ব্যাচের ছাত্র প্রদীপ কুমার সূত্রধর বলেন, এমন একটি দিন ক্যাম্পাসে আয়োজন করতে না পারার অপারগতা ও দুঃখ পীড়া দেবে আজীবন। তবে সমাপ্তি মানেই শেষ না। শেষ থেকেই নতুন কিছুর শুরু হয়।