দেয়ালচিত্রের মাধ্যমে অভাবনীয় প্রচার

ঢাকা, শনিবার, ২৩ জানুয়ারি ২০২১ | ১০ মাঘ ১৪২৭

করোনা সতর্কতা

দেয়ালচিত্রের মাধ্যমে অভাবনীয় প্রচার

কনক চন্দ্র রায় ১১:৫৮ পূর্বাহ্ণ, নভেম্বর ২২, ২০২০

print
দেয়ালচিত্রের মাধ্যমে অভাবনীয় প্রচার

‘মাস্ক ছাড়া উপায় নেই বলেছেন মোখলেস ভাই’- দিনাজপুর জেলা শহরের বিভিন্ন স্কুল-কলেজের সামনে দেয়ালচিত্রে জনৈক মোখলেস ভাই এভাবেই মানুষকে করোনা মোকাবিলায় মাস্ক পরার জন্য জনগণকে সচেতন করছেন।

মোখলেস ভাই আসলেই কোনো বাস্তব চরিত্র নয়। এটি একটি ফিকশনাল বা কাল্পনিক চরিত্র। আর এ কাল্পনিক চরিত্রটি নিয়ে মজার মজার সব গল্প লিখেছেন দিনাজপুরের কথাসাহিত্যিক বিশ^জিৎ দাস। তিনি দিনাজপুর সরকারি কলেজের পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক।

শুরুটা ২০০৮ সালে। তখন প্রথম আলোতে আলপিন নামে একটা রম্য ম্যাগাজিন বের হত। সেখানেই মোখলেস ভাইকে নিয়ে লেখা প্রথম রম্যগল্প সানগ্লাস বেত্তান্ত প্রকাশিত হয়। এরপর রহস্য পত্রিকায় ধারাবাহিকভাবে মোখলেস ভাইকে নিয়ে লেখা মজার গল্পগুলো প্রকাশিত হয়। জনপ্রিয়তার কারণে দেশের খ্যাতনামা প্রকাশনা প্রতিষ্ঠান অবসর কর্তৃক মোখলেস ভাই উপাখ্যান নামক বইটি প্রকাশিত হয়। এটি জনপ্রিয়তা পাওয়ার পর একে একে পরপর সাত বছর মোখলেস ভাইয়ের সাতটি পর্ব প্রকাশিত হয়েছে একই প্রকাশনী থেকে।

২০২১ এর বইমেলায় মোখলেস ভাইয়ের অষ্টম পর্ব প্রকাশিত হতে চলেছে, যার নাম- ফিরে এলো মোখলেস ভাই। এই বইটি তিনি উৎসর্গ করেছেন দিনাজপুর সরকারি কলেজের পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ফিউশনকে।

ফিউশন গঠিত হয় ২০১৮ সালে। পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের ইয়াসির আরাফাত আলভি, আবু সালেহ নাসিম এবং কনক চন্দ্র রায়ের উদ্যোগে এবং বিভাগীয় প্রধান প্রফেসর মো. আব্দুস সালাম আজাদের উৎসাহে এটি গঠিত হয়। বৃক্ষরোপণ ও রক্তদান কর্মসূচি, গরিব মেধাবী ছাত্র-ছাত্রীদের বৃত্তি প্রদান, বিনামূল্যে ওষুধ প্রদানসহ নানান সামাজিক কর্মকাণ্ড সংগঠনটির মর্যাদা বাড়িয়েছে বহুগুণ। করোনা মোকাবিলায় দিনাজপুরের মানুষকে সচেতন করতে সংগঠনের সদস্যরা ব্যতিক্রমী কর্মসূচি গ্রহণ করে।

তারা বিশ্বজিৎ দাসের জনপ্রিয় কাল্পনিক চরিত্র মোখলেস ভাইকে নিয়ে সামাজিক সচেতনতামূলক লিফলেট ও স্টিকার বিতরণ এবং শহরের গুরুত্বপূর্ণ মোড়ে দেয়ালচিত্র অঙ্কন করেছে। দেয়ালচিত্রে দেখা যাচ্ছে, মোখলেস ভাই সবাইকে বলছেন, মাস্ক ছাড়া উপায় নাই।’ যারা মোখলেস ভাইকে নিয়ে লেখা গল্পগুলো পড়েছেন তারাও ঐ দেয়ালচিত্রের পাশে দাঁড়িয়ে ছবি তুলে ফেসবুকে পোস্ট দিচ্ছেন।

আর লিখে দিচ্ছেন- মোখলেস ভাইয়ের পাশে আছি আমরা। আপনি আছেন তো? সব মিলিয়ে করোনা সতর্কতায় দেয়ালচিত্রের মাধ্যমে এমন প্রচার অভাবনীয় ও অনন্য।