প্রাথমিকে সহকারী শিক্ষক নিয়োগ প্রস্তুতি

ঢাকা, শনিবার, ২৩ জানুয়ারি ২০২১ | ১০ মাঘ ১৪২৭

প্রাথমিকে সহকারী শিক্ষক নিয়োগ প্রস্তুতি

আব্দুর রহমান ১২:৪৮ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ০১, ২০২০

print
প্রাথমিকে সহকারী শিক্ষক নিয়োগ প্রস্তুতি

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারি শিক্ষক নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হয়েছে। আগামী ২৪ নভেম্বর পর্যন্ত আবেদন করা যাবে। আজ নিয়োগ প্রস্তুতি সম্পর্কে তুলে ধরা হলো। প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগে দুই ধাপে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। ৮০ নম্বরের এমসিকিউ পরীক্ষা এবং ২০ নম্বরের মৌখিক পরীক্ষাসহ মোট ১০০ নম্বরের পরীক্ষা হবে। প্রথমে নেওয়া হয় এমসিকিউ বা বহু নির্বাচনী পরীক্ষা। প্রশ্ন করা হবে বাংলা, ইংরেজি, গণিত ও সাধারণ জ্ঞান- এ চারটি বিষয়ে। প্রতিটি বিষয় থেকে ২০টি করে মোট ৮০টি প্রশ্ন থাকে। পরীক্ষার জন্য বরাদ্দ সময় ৮০ মিনিট বা ১ ঘণ্টা ২০ মিনিট। নেগেটিভ মার্কিং থাকে। একটি ভুল উত্তরের জন্য কাটা যাবে ০.২৫ নম্বর। ফলে চারটি প্রশ্নের ভুল উত্তর দিলে ১ নম্বর কাটা যাবে। এমসিকিউ পরীক্ষায় উত্তীর্ণদের ডাকা হয় মৌখিক পরীক্ষায়। পরীক্ষার প্রস্তুতির জন্য এসএসসি ও এইচএসসির পাঠ্যবইয়ের প্রতি বেশি নজর দিতে হবে। বাংলা অংশে ব্যাকরণ ও সাহিত্য বিষয়ে প্রশ্ন থাকে। ইংরেজিতে প্রশ্ন আসে গ্রামার থেকে। গণিতে পাটিগণিত, বীজগণিত ও জ্যামিতি থেকে প্রশ্ন থাকে। সাধারণ জ্ঞান অংশে বাংলাদেশ বিষয়াবলি, আন্তর্জাতিক বিষয়াবলি ও সাম্প্রতিক নানা বিষয়ে প্রশ্ন আসতে পারে।

বাংলা অংশে প্রশ্ন করা হয় ব্যাকরণ ও সাহিত্য থেকে। বেশি প্রশ্ন আসে ব্যাকরণ থেকে। ভাষা, শব্দ, কাল, ধ্বনি, বাক্য, পদ-প্রকরণ, কারক ও বিভক্তি, সন্ধি বিচ্ছেদ, প্রকৃতি প্রত্যয়, সমাস থেকে প্রশ্ন থাকে। উদাহরণমূলক প্রশ্ন বেশি করা হয়। যেমন- একটি শব্দ দিয়ে তার সন্ধি বিচ্ছেদ অথবা একটি বাক্য দিয়ে কারক নির্ণয় বা সমাস নির্ণয় করতে বলা হতে পারে। তাই ব্যাকরণের নিয়ম যেমন জানতে হবে, উদাহরণগুলো চর্চা করতে হবে। বিশেষ করে নিয়মের বাইরে বা ব্যতিক্রমগুলোয় বেশি জোর দিতে হবে। ব্যাকরণ অংশে মুখস্থবিদ্যার কিছু প্রশ্ন পাওয়া যাবে।

বাগধারা, এককথায় প্রকাশ, বিপরীত শব্দ, পারিভাষিক শব্দ, সমার্থক শব্দ- এগুলো মুখস্থ রাখতে হবে। নবম দশম শ্রেণির বাংলা ব্যাকরণ বই থেকে চর্চা করলে ভালো করা সম্ভব। সন্ধি, সমার্থক শব্দ, শুদ্ধ বানান, এককথায় প্রকাশ, সমাস, বাগধারা থেকে প্রশ্ন হয়। কারক-বিভক্তি, ছদ্মনাম/উপাধি, দ্বিরুক্তি শব্দ, ধ্বনি, বর্ণ, বাক্য (সরল, জটিল, যৌগিক), পদ নির্ণয় থেকে প্রশ্ন আসে।

বিভিন্ন কবি-সাহিত্যিকের জীবনী, জন্ম-মৃত্যু সাল, রচিত বিভিন্ন গ্রন্থ, বাংলা সাহিত্যের প্রথম, বিখ্যাত গ্রন্থ এসব থেকে প্রশ্ন আসতে পারে সাহিত্য অংশে। বাংলা সাহিত্যের প্রাচীন যুগ, মধ্যযুগ থেকে প্রশ্ন আসতে পারে। আধুনিক যুগের সাহিত্যকর্মের মধ্যে ভাষা আন্দোলন ও মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক উপন্যাস/রচনাসমগ্র এবং পরিচিত কবি সাহিত্যিকের রচনা বা জন্ম-মৃত্যু নিয়ে প্রশ্ন, যেগুলো পাড়ার মতো। 

ইংরেজি গ্রামারে ভালো দখল থাকলে ইংরেজি অংশে ভালো করা যাবে। Parts of speech, Noun, Pronoun, Adjective, Verb, Article, Tense, Preposition, Right forms of verb, Narration, Voice change Ges Sentence Correction-এর নিয়মগুলো আয়ত্ত করে নিন।

Spelling, Synonym , Antonym থেকে প্রশ্ন থাকে। এগুলো মুখস্থ করতে হবে। গণিতে প্রস্তুতির জন্য অষ্টম থেকে দশম শ্রেণির গণিত বই সংগ্রহ করে নিন।

দশমিকের (যোগ, বিয়োগ, গুণ, ভাগ), শতকরা, লাভ-ক্ষতি, মুনাফা, লসাগু, গসাগু, ঐকিক নিয়ম (কাজ, খাদ্য, সৈন্য), ভগ্নাংশ, অনুপাত : সমানুপাত, সংখ্যা পদ্ধতি, বীজগাণিতিক মান নির্ণয়, উৎপাদক নির্ণয়, গড়, মধ্যক, প্রচুরক নির্ণয়, ত্রিভুজক্ষেত্র, বর্গক্ষেত্র, আয়তক্ষেত্রের বেসিক সূত্রের অঙ্কসমূহ, সরলরেখা, ধারা, গাছের উচ্চতা/মিনারের উচ্চতা, দৈর্ঘ্য, কোণ ইত্যাদি বিষয়ক অঙ্ক থাকবে। বারবার চর্চা করলে গণিতের সমাধান করা সহজ হবে। সাধারণ জ্ঞান এবং দৈনন্দিন বিজ্ঞান ও কম্পিউটার অংশে ভালো করার জন্য খুব বেশি পড়তে হবে না।