লিডিং ইউনিভার্সিটিতে অনলাইনে ভর্তি প্রক্রিয়া শুরু

ঢাকা, শনিবার, ৮ আগস্ট ২০২০ | ২৩ শ্রাবণ ১৪২৭

লিডিং ইউনিভার্সিটিতে অনলাইনে ভর্তি প্রক্রিয়া শুরু

আলমগীর হোসেন ৯:১৪ পূর্বাহ্ণ, জুলাই ০৫, ২০২০

print
লিডিং ইউনিভার্সিটিতে অনলাইনে ভর্তি প্রক্রিয়া শুরু

বৈশ্বিক করোনা পরিস্থিতিতে শিক্ষার্থীদের জীবনের গুরুত্বপূর্ণ সময়কে যথাযথভাবে কাজে লাগানোর জন্য সিলেটের প্রথম বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় লিডিং ইউনিভার্সিটি অনলাইনে গত ২৩ মার্চ ২০২০ থেকে শিক্ষাকার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। এরই ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) নির্দেশ অনুযায়ী লিডিং ইউনিনভার্সিটিতে ১ জুন ২০২০ থেকে সামার সেমিস্টারে ভর্তি চলছে।

ভর্তি অফিস জানায়, বিবিএ (অনার্স), বিএ (ইংরেজি), আইন, সিএসই, ইইই, আর্কিটেকচার, সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং, ইসলামিক স্টাডিজ, ট্যু রিজম অ্যান্ড হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্ট, এমবিএ, এমএ (ইংরেজি), এলএলএম, এমপিএইচ, এবং এমএসসি ইন সিএসই প্রোগ্রামে অনলাইনে এবং সিলেট নগরীর মধুবন বিল্ডিংয়ে অস্থায়ী ভর্তি অফিসে ভর্তি কার্যক্রম চলছে। শিক্ষার্থীরা অনলাইনে এই লিংকের https://www.lus.ac.bd/online-admission/ মাধ্যমে ভর্তি হতে পারবেন। ভর্তি বিষয়ে বিস্তারিত জানতে ০১৯৭৬৮৭১১৮৮ অথবা ০১৭৫৫৮৪১৮৬৪ এ নম্বরে ফোন করে যোগাযোগ করতে পারবেন।

এক বার্তায় বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ শাখা জানায়, করোনা পরিস্থিতিতে শিক্ষার্থীদের সুবিধার্থে সামার সেমিস্টারে যেসব শিক্ষার্থী রেজিস্ট্রেশন করবেন তাদেরকে পরিবহন ফি দিতে হবেনা।

সেইসাথে ল্যাব ফিও এখন পরিশোধ করতে হবেনা, পরবর্তীতে পরিস্থিতির উন্নতির পর ল্যাব ক্লাস ও পরীক্ষা হলে ফি নেয়া হবে। লিডিং ইউনিভার্সিটির উপাচার্য (দায়িত্বপ্রাপ্ত ) শ্রীযুক্ত বনমালী ভৌমিক বলেন, ডিজিটাল বাংলাদেশের সুফলের কারণেই আজ আমরা শিক্ষাকার্যক্রম সফলভাবে চালিয়ে নিতে পারছি। তিনি আরও বলেন, করোনা সঙ্কটকালে বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষের সার্বিক সুরক্ষা ও জীবন-জীবিকা নির্বাহের জন্য সরকার উন্নয়ন কার্যক্রম ও জনবান্ধব পদক্ষেপ নিয়েছে।

সেই সাথে শিক্ষার্থীদের মূল্যবান সময় যাতে নষ্ট না নয় এবং অনলাইনের মাধ্যমে তারা ঘরে বসেই যাতে ক্লাস করতে পারে সে বিষয়েও সরকার তাগিদ দিচ্ছে। উপাচার্য জানান, দেশে চলমান করোনা পরিস্থিতির মধ্যে নানা প্রতিবন্ধকতা থাকা সত্ত্বেও লিডিং ইউনিভার্সিটি ১ জুন থেকে অনলাইনে ভর্তি কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে এবং সরকারি নির্দেশনা মোতাবেক অতিরিক্ত ক্লাস এবং ছুটির দিনগুলোতেও পাঠদান কার্যক্রম পরিচালনা করে শিক্ষাকার্যক্রম অব্যাহত রাখবে। জ্ঞান, দক্ষতা ও মূল্যবোধের মাধ্যমে একজন শিক্ষার্থীকে সু-নাগরিক ও বিশ্ব নাগরিক হিসেবে গড়ে তুলতে আমরা সচেষ্ট। সীমাবদ্ধতার মধ্যেও আমরা শিক্ষাব্যবস্থার মানোন্নয়নের জন্য সার্বিকভাবে মনোনিবেশ করছি এবং আমরা সফল হবো এ প্রত্যাশা রাখি।