বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকদের দিনগুলো

ঢাকা, রবিবার, ৭ জুন ২০২০ | ২৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

বন্ধ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান

বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকদের দিনগুলো

ফজলে এলাহী ফুয়াদ ১১:৫০ অপরাহ্ণ, মে ০৯, ২০২০

print
বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকদের দিনগুলো

করোনা ভাইরাসের কারণে বিশ্ব আজ থমকে গেছে। ঘরবন্দি আছেন পেশাজীবী মানুষ। অফিস-আদালতসহ সবধরনের প্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে ১৭ মার্চ থেকে। শিক্ষকদের সঙ্গে কথা বলে লিখেছেন - ফজলে এলাহী ফুয়াদ

দিনব্যাপী ক্লাস-পরীক্ষা নেওয়ার পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের জন্য সøাইড তৈরি, পাঠদানের নতুন কৌশল বের করা এবং নিয়মিত গবেষণা নিয়ে ব্যস্ত সময় পার করেন। করোনায় সবই বন্ধ হয়ে যায় হঠাৎ! কোয়ারেন্টাইনের দিনগুলো কিভাবে পার করছেন আমাদের শিক্ষকরা? 

নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (নোবিপ্রবি) কয়েকজন শিক্ষকের কেয়ারেন্টাইনের দিনগুলোর গল্প তুলে ধরা হল।

ফিশারিজ অ্যান্ড মেরিন সাইন্স বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, প্রথমত শিক্ষক হিসেবে নিজেকে যে কোন পরিবর্তনশীল পরিস্থিতির সাথে মানিয়ে নিতে হয়। এরপর প্রতিদিন গবেষণামূলক কাজ চালিয়ে নেওয়ার পাশাপাশি এই কঠিন সময়ের মূখ্য কাজ অসহায়দের সহযোগিতা করা। প্রতিনিয়ত তাই করার চেষ্টা করছি। এছাড়াও শিক্ষার্থীদের সাথে যোগাযোগ রাখার চেষ্টা করছি, এই ক্রান্তিলগ্নে যেন তারা ভেঙ্গে না পড়ে এবং পড়াশোনা থেকে বিচ্ছিন্ন না হয়।

পরিবেশ বিজ্ঞান ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ও সহকারী প্রক্টর তনুজা বড়ুয়া বলেন, একজন শিক্ষক ও একজন অভিভাবক আমি। দীর্ঘ দিন দেখি না আমার ছেলে মেয়েদের এ ব্যথা ভাষায় প্রকাশ করতে পারবো না।

তবুও আমরা বাস্তবতার শিকলে আবদ্ধ । তাই উপভোগ করছি ভিন্ন ধারায় বই পড়ে। এছাড়া হাতের কাজে সারাক্ষণ নিজেকে ব্যস্ত রাখি।

কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড টেলিকমিউনিকেশন ইঞ্জিনিয়ারিং (সিএসটিই) বিভাগের প্রভাষক সালাউদ্দিন পাঠান। তিনি বলেন, এটিকে আমি নিজের দক্ষতা বাড়ানোর উত্তম সময় বলে মনে করছি। তাই আমি এ অবসর সময়টা গবেষণামূলক কাজ করে পার করছি। এছাড়াও বিভিন্ন সামাজিক

সংগঠনের সাথে যুক্ত হয়ে করোনাকালিন সাহায্যপ্রার্থী মানুষের পাশে থাকার চেষ্টা করছি।