সোশ্যাল নেটওয়ার্ক বৃদ্ধি করতে হবে

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১২ নভেম্বর ২০১৯ | ২৮ কার্তিক ১৪২৬

সাক্ষাৎকার

সোশ্যাল নেটওয়ার্ক বৃদ্ধি করতে হবে

এস এম আহবাবুর রহমান ১২:৩২ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ০৩, ২০১৯

print
সোশ্যাল নেটওয়ার্ক বৃদ্ধি করতে হবে

এস এম আহবাবুর রহমান। একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার। জবি থেকে ইংরেজি সাহিত্যে স্নাতক শেষে নর্থ সাউথ থেকে হিউম্যান রিসোর্স ম্যানেজমেন্টে এমবিএ এবং ঢাবির আইবিএ থেকে এইচআরএমসি সম্পন্ন করেন। তিনি তরুণদের ক্যারিয়ার নিয়ে কথা বলেছেন। লিখেছেন- অনিক আহমেদ

উন্নত ক্যারিয়ারের জন্য ছাত্রজীবনে কীভাবে প্রস্তুতি নেওয়া যায়?

উত্তর : অনেকেই ছাত্রজীবনে শুধু লেখাপড়া নিয়েই ব্যস্ত থাকেন, অন্য কোনো সহশিক্ষা কার্যক্রমের সঙ্গে যুক্ত থাকেন না। মনে রাখতে হবে, শুধু ভালো ছাত্র বা ভালো জিপিএ/সিজিপিএ থাকলেই চাকরি পাওয়া যাবে’- এমন কোনো কথা নেই। একাডেমিক পড়ালেখার পাশাপাশি অন্যান্য গুণাবলী থাকা চাই। এজন্য ছাত্রজীবনে পড়ালেখার পাশাপাশি বিভিন্ন ধরনের সহশিক্ষা কার্যক্রম যেমন বিতর্ক, সাহিত্য ও সংস্কৃতির বিভিন্ন শাখা, খেলাধুলা, বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন ক্লাব-সংগঠনের সঙ্গে সক্রিয়ভাবে যুক্ত থাকা যেতে পারে।

সহশিক্ষা হিসেবে ক্লাব কার্যক্রম কীভাবে উন্নত ভবিষ্যৎ গড়তে ভূমিকা পালন করে?
উত্তর : সাধারণত দেখা যায়, ছক করে কাজ নামার পর সেটা আর ছকে বাঁধা থাকে না। তখন মাথা ঠাণ্ডা রেখে ধৈর্যের সঙ্গে নতুন আইডিয়া বের করে, নতুন কারও সঙ্গে যোগাযোগ করে সচেতনতার সঙ্গে পরিস্থিতি মোকাবেলা করে কাজটা সফল করতে হয়। ক্লাবে যুক্ত থেকে এভাবে পরিস্থিতি মোকাবেলা নিজের আত্ম-উন্নয়ন ঘটানো সম্ভব। ক্লাব কার্যক্রমের মধ্য দিয়ে ধৈর্য্য, নিয়মানুবর্তিতা, টিমওয়ার্কে দক্ষতা, আত্মবিশ^াসী হওয়া এবং নিজেদের মধ্যে যোগাযোগ দক্ষতা বৃদ্ধি পায়।

ছাত্রজীবনে নেটওয়ার্কিংয়ের গুরুত্ব সম্পর্কে কিছু বলুন।
উত্তর : বর্তমান যুগ হচ্ছে নেটওয়ার্কিংয়ের যুগ। যার সোশ্যাল নেটওয়ার্ক সমৃদ্ধ, তিনি পেশাগত জীবনে ভালো করছেন। আপনারা যারা যে ফিল্ডে ক্যারিয়ার গড়তে চান, সে ফিল্ডের ফোরাম, সংগঠন বা কমিউনিটির সঙ্গে যুক্ত হতে পারেন। যেমন কেউ এইচআর ফিল্ডে ক্যারিয়ার গড়তে চাইলে এইচআর এর বিভিন্ন ফোরাম বা সংগঠনের সঙ্গে যুক্ত থাকতে পারেন। তেমনিভাবে মার্কেটিং, ব্র্যান্ড, সাপ্লাইচেইন যেই ফিল্ডে যেতে চান সেই ফিল্ডের সংশ্লিষ্ট ফোরামের সঙ্গে যুক্ত হতে পারেন। তাদের বিভিন্ন স্বেছাসেবকমূলক কাজে সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহণ করতে পারেন এবং বিভিন্ন ট্রেনিং, সেমিনারে অংশগ্রহণ করে একদিকে যেমন সংশ্লিষ্ট বিষয়ে জ্ঞান লাভ এবং দক্ষতা অর্জন করতে পারেন, অন্যদিকে ওই কমিউনিটির পেশাজীবীদের সঙ্গে একটা সখ্যতা গড়ে তুলতে পারেন।

কম্পিউটারের সফটওয়্যার সম্পৃক্ত কোন কাজগুলো আগে শেখা জরুরি?
উত্তর : ওয়ার্ড, এক্সেল এবং পাওয়ার পয়েন্ট ইত্যাদি বিষয়ে প্রশিক্ষণ নিতে পারেন। এক্সেলের মাধ্যমে হিসাব-নিকাশের অনেক কাজ করা যায়।

করপোরেট জবে নিশ্চিত ভবিষ্যৎ নেই। এই ব্যাপারে আপনার মতামত কী?
উত্তর : নিশ্চিত ভবিষ্যতের জন্য প্রতিনিয়ত শেখাটা জরুরি। প্রতিটা চাকরির জন্য মানদ- একই থাকে যেমন- নেটওয়ার্কিং দক্ষতা, ইন্টারপার্সোনালিটি কমিউনিকেশন স্কিল, আত্মবিশ্বসী, পরিশ্রমী এবং সৎ থাকা ইত্যাদি।