কুবির মানব রোবট ‘সিনা’

ঢাকা, শুক্রবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | ৫ আশ্বিন ১৪২৬

কুবির মানব রোবট ‘সিনা’

শাহদাত বিপ্লব ২:০১ অপরাহ্ণ, আগস্ট ২৫, ২০১৯

print
কুবির মানব রোবট ‘সিনা’

‘প্রায় দুই মাস সবকিছু থেকে আমরা আলাদা হয়ে গিয়েছিলাম। সারা দিন-রাত কাজ করেছি। সিনার জন্য চেহারা খোঁজ করতে মার্কেটে মার্কেটে হেঁটেছি। প্রায় দুশ দোকান ঘুরেছি যদি ফেলে দেওয়া কোনো ডল থাকে সেটি নেওয়ার জন্য। যেহেতু আমাদের বাজেট একেবারেই স্বল্প ছিল। প্রায়ই সারারাত কাজ করতে গিয়ে ছাদেই ঘুমিয়ে যেতাম। কড়া রোদে ঘুম ভাঙলে আবার রুমে গিয়ে কাজে লেগে যেতাম। আমাদের টিমমেটদের মাঝে অসাধারণ মিল ছিল। তাই এত দ্রুত করা সম্ভব হয়েছে।’ কথাগুলো বলছিলেন কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইসিটি ১৩তম ব্যাচের শিক্ষার্থী জুয়েল নাথ।

সম্প্রতি মাত্র ৩৭ হাজার টাকায় দেশের চতুর্থ মানব রোবট তৈরি করে তাক লাগিয়ে দেন কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের চার তরুণ। জুয়েল নাথ ছাড়াও পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের ১০ম ব্যাচের শিক্ষার্থী সঞ্জিত মণ্ডল, একই বিভাগের ১৩তম ব্যাচের শিক্ষার্থী সাঈদুর রহমান, আইসিটি ১৩তম ব্যাচের শিক্ষার্থী নিয়াজ আল মাসুম রোবট ‘সিনা’ তৈরিতে কাজ করেন।

রোবটটির নাম রোবট সিনা। সিনাকে নাচতে বললে হেলে-দুলে নাচে, গান গাইতে বললে সুরেলা কণ্ঠে গায়। হ্যান্ডশ্যাক করতে চাইলে হাত বাড়িয়ে হ্যান্ডশেক করে অভিবাদন জানায়। যদি কোনো প্রশ্ন করা হয় নির্দ্বিধায় উত্তর দেয়। কুমিল্লা ইউনিভার্সিটি সায়েন্স ক্লাবের তত্ত্বাবধানে বাংলাদেশ পল্লী উন্নয়ন একাডেমির (বার্ড) অর্থায়নে এ রোবট সিনা তৈরি করা হয়।

মানবাকৃতির এ রোবটটিকে ১০৫৩ লাইনের আর্ডুইনো কোড দ্বারা তৈরি করা হয়েছে। যাকে মোবাইল সফটওয়্যারের মাধ্যমে নিয়ন্ত্রণ করা হয়। লিথিয়াম আয়ন ব্যাটারি দ্বারা পরিচালিত রোবটটিতে ৯টি সার্ভো মোটর, ১টি আর্ডুইনো মেঘা, চলাচলের জন্য দু’টি মোটর, দুরুত্ব মাপার জন্য ২টি আল্ট্রাসোনিক সেন্সর সংযুক্ত করা হয়েছে।

রোবটটির শারীরিক গঠন তৈরি করা হয়েছে অ্যালুমিনিয়াম পাত দ্বারা। পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী সঞ্জিত মন্ডলের নেতৃত্বে এবং কুমিল্লা ইউনিভার্সিটি সায়েন্স ক্লাবের তত্ত্বাবধানে রোবট সিনা তৈরী করা হয়। রোবট ‘সিনা’কে বর্তমানে কুমিল্লার কোটবাড়িতে অবস্থিত বাংলাদেশ পল্লী উন্নয়ন একাডেমির (বার্ড) লাইব্রেরিতে প্রদর্শনের জন্য রাখা হয়েছে।