ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪ | ৯ শ্রাবণ ১৪৩১

Khola Kagoj BD
Khule Dey Apnar chokh

যবিপ্রবিতে ‘শরৎ শুভ্রম’

যবিপ্রবি প্রতিনিধি
🕐 ৩:৫৭ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৫, ২০২৩

যবিপ্রবিতে ‘শরৎ শুভ্রম’

শরৎকালকে উৎযাপন করতে যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (যবিপ্রবি) প্রথমবারের মতো অনুষ্ঠিত হলো ব্যতিক্রমী এক অনুষ্ঠান ‘শরৎ শুভ্রম’।

 

বৃহস্পতিবার (১৪ সেপ্টেম্বর) আল্পনা আঁকা, ঘুড়ি উৎসব ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানসহ নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে শরৎ শুভ্রম পালিত হয়েছে। ব্যতিক্রমধর্মী এ অনুষ্ঠানটির আয়োজক ছিল বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংস্কৃতিক সংগঠন জলতরঙ্গ।

এদিন সকাল ৯টায় আল্পনা উন্মোচন করার মাধ্যমে অনুষ্ঠানটি শুরু হয়। তারপর ধারাবাহিকভাবে ফুচকা স্টল, ঘুড়ি উৎসব, গেমস প্রভৃতি অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়। সন্ধ্যায় যবিপ্রবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোঃ আনোয়ার হোসেন শুভ্র শুভ্রমর সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন।

এসময় যবিপ্রবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোঃ আনোয়ার হোসেন বলেন, আমি নিজেকে ভাগ্যবান মনে করছি, আমার ছাত্ররা এতো সুন্দর একটি প্রোগ্রামের আয়োজন করেছে। সারাদিন পড়াশোনার পাশাপাশি জীবনকে গভীরভাবে চিনতে হলে এ ধরণের সাংস্কৃতিক প্রোগ্রামগুলো জরুরি। শরৎ শুভ্রম আয়োজন করায় আমি জলতরঙ্গকে অভিনন্দন জানাচ্ছি। তাদের সামনের দিনগুলো যেন আরো সাফল্যমণ্ডিত হয়। আশা রাখছি তারা যেন শিল্প ও সাহিত্যের জগতে আরো অগ্রগামী করতে পারে। অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়ের সাথে আমরাও প্রমাণ করতে পারি যে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় হলেও আমরা শুধুমাত্র ল্যাবরেটরিতে গবেষণা করিনা। পাশাপাশি মানবিক গুণাবলী অর্জন করার জন্য আমরা বাংলাদেশের সাহিত্য ও সংস্কৃতির ধারক ও বাহক হিসেবেও কাজ করি।

শরৎ শুভ্রমকে ঘিরে শিক্ষার্থীদের মাঝে বিরাজ করে উৎসবমুখর আমেজ। সেই অনুভূতি ব্যক্ত করে জলতরঙ্গের চিত্রশিল্পী মো: রাফি বলেন, বর্ষার শেষে শরৎকে বর্ণিল আয়োজনে বরণ করে নিতে আমাদের জলতরঙ্গের এই ক্ষুদ্র প্রচেষ্টা। আলপনা, ঘুড়ি উৎসব, ফুড কর্ণার, গেমসসহ অভিনব এক সংস্কৃতিক সন্ধ্যা আয়োজনের চেষ্টা করেছি। ক্যাম্পাসে সবাইকে শাড়ি পাঞ্জাবিতে দেখে বেশ ভালোই লাগছে৷ এর আগে অডিয়েন্স হিসেবে ছিলাম, এখন আয়োজক হিসেবে কাজ করে সম্পূর্ণ নতুন অভিজ্ঞতা হলো। বৃষ্টির চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করে আলপনা করা ছিলো এক অন্যরকম অভিজ্ঞতা।

উৎসবমুখর পরিবেশ নিয়ে এপিপিটি বিভাগের ২য় বর্ষের শিক্ষার্থী আবদুল আহাদ সৈকত বলেন, এক যুগ পেরানো যবিপ্রবিতে প্রথম শরৎ উৎসব পালন হচ্ছে। সত্যিকার অর্থে এটি খুবই আনন্দের বিষয়। এই শরতের বিকেলে আলপনায় সেঁজেছে বিশ্ববিদ্যালয়।

এফএমবি বিভাগের ২য় বর্ষের শিক্ষার্থী মৈত্রী মল্লিক বলেন, শরৎকে বরণ করে নিতে আয়োজিত শরৎ শুভ্রম অনুষ্ঠানটি অসাধারণ ছিল। এমন আয়োজন আমাদের প্রাণবন্ত করে তুলে।

 

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

Electronic Paper