‘একজনের’ ইশারায় ছাত্র সংগঠনের ভাঙাগড়া!

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | ৪ আশ্বিন ১৪২৬

‘একজনের’ ইশারায় ছাত্র সংগঠনের ভাঙাগড়া!

খোলা কাগজ ডেস্ক ৯:৩৪ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ০৯, ২০১৯

print
‘একজনের’ ইশারায় ছাত্র সংগঠনের ভাঙাগড়া!

একটি ছাত্র সংগঠনের কমিটি বিলুপ্ত করার ক্ষমতা রাখেন হার এক্সিলেন্সি! কী আয়রনি! ছাত্র সংগঠনের নেতা কে হবে, কীভাবে চলবে, কাউন্সিল কবে হবে, কমিটির মেয়াদ কতদিন থাকবে, কমিটির বিলোপ কোন প্রক্রিয়ায় হবে এসব নির্ধারণ করবে ছাত্ররা না কি কোনো ‘সুপার পাওয়ারের’ অধিকারী কোনো এক ব্যক্তি?

যে সংগঠনের অস্তিত্ব নির্ভর করে ‘একজনের’ আঙ্গুলের ইশারায় সেই সংগঠন একটি ঠুঁনকো, দলদাস, লেজুড় সংগঠন। সমষ্টির ভালো-মন্দ করা এদের পক্ষে সম্ভব নয়। নিরঙ্কুশ রাজনৈতিক ক্ষমতার অংশীদার হতে পারলে এদের পক্ষে খুন, ধর্ষণ, চুরি, ডাকাতি, ছিনতাই, চাঁদাবাজি, অপহরণ হেন অপকর্ম নেই যা করা অসম্ভব।

এসব সংগঠনের নেতাকর্মীদের আমি ব্যক্তিত্বহীন, লোভী মনে করি। এদের প্রকৃত অর্থে কল্যাণকর রাজনৈতিক আদর্শ থাকতে পারে না। আদর্শের নামে এরা যেটা ফুলিয়ে-ফাঁপিয়ে প্রচার করে ওটাও একক ব্যক্তির ইচ্ছের অধীন। কোনো এক ডার্টি সকালে কমোডে বসে ওই এককের মনে হতে পারে সংগঠনটা যথেষ্ট ‘শোভনীয়’ আচরণ করছে না, যতটা ‘গোলামী’ প্রত্যাশিত ছিল ইদানীং ততটা পাওয়া যাচ্ছে না। কমোডের ফ্ল্যাশ টেনে দেওয়ার মতো তিনি চাইলেই সংগঠনের/কমিটির অস্তিত্বের ফ্ল্যাশ টেনে দিতে পারেন! কী অ্যাক্টাবস্থা! এমন সংগঠনের সদস্য বনে গেছ তুমি! লজ্জা লজ্জা লজ্জা...।

রাহাত মুস্তাফিজ
অ্যাক্টিফিস্ট