চেনা মিথিলার অচেনা লুক

ঢাকা, বুধবার, ২০ অক্টোবর ২০২১ | ৪ কার্তিক ১৪২৮

Khola Kagoj BD
Khule Dey Apnar chokh

চেনা মিথিলার অচেনা লুক

বিনোদন ডেস্ক
🕐 ৪:১০ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৭, ২০২১

চেনা মিথিলার অচেনা লুক

পুজা মানেই নিজেকে নতুনভাবে সাজানো। সাজ নিয়ে পরীক্ষা নিরীক্ষা করার এর চেয়ে ভালো সময় আর কী হতে পারে? যারা সোজগোজ পছন্দ করেন, সেই তালিকায় রয়েছেন রাফিয়াত রাশিদ মিথিলাও। যাকে আমরা সচারচর সাদাদিধা পোশাকেই দেখে অভ্যস্ত। তবে এবার বাঙালি শাড়ির বদলে অন্য ‘লুক’-এ ধরা দিলেন পরিচালক সৃজিত মুখোপাধ্যায়ের স্ত্রী।

কেবল তো অভিনেত্রী নন তিনি। একাধারে শিক্ষিকা, সমাজসেবী, অভিনেত্রী, মা, স্ত্রী। তার নানা রূপ ধরা পড়ল ফোটোশ্যুটের দিন। কখনও মা হিসেবে তাঁর কন্যার দুপুরবেলার খাওয়ার খোঁজ নিচ্ছেন, কখনও বা ক্যামেরার সামনে মোহময়ী। কখনো কখনো পড়াশোনা নিয়েও কথা বলছেন মিথিলা। সৃজিত, আয়রা, মিথিলা এবং তাদের সংসারের ঝলক মিলল নতুন ফোটোশ্যুটে।

সৃজিতের বাড়ির স্টুডিও এবং ছাদে মিথিলার ছবি তোলা হয়েছে। ফোটোশ্যুট শুরু হওয়ার আগে সকালবেলা নিজে হাতে সকলের জন্য চা করে আনলেন মিথিলা। লেবু চা খেয়ে কাজে নেমে পড়লেন সকলে। চলল মিথিলার মেকআপ। অন্য দিকে প্রস্তুত করা হল চারটি পোশাক। ক্যামেরাও তৈরি।

শুরু হল ফোটোশ্যুট। মিথিলা জানালেন, তিনি সাধারণত ফোটোশ্যুট করান না। পড়াশোনা, সংসার, সন্তান পালন, অভিনয়, ইত্যাদির জন্য সময় হয় না তার। কিন্তু রবার ছবি তোলানোর সময়ে তার স্বতঃস্ফূর্ততা নজরে এসেছে প্রতি মুহূর্তে।

ফোটোশ্যুট চলাকালীন মিথিলা-কন্যা আয়রা এবং সৃজিতের ভাগ্নি স্পন্দনা মাঝে মাঝেই স্টুডিয়োতে এসে দেখা দিয়ে যাচ্ছিল। শুধু তা-ই নয়, খুদে আর কিশোরী তাঁদের মতামতও প্রকাশ করছিল। তাদের উপস্থিতি শ্যুটকে আরও প্রাণবন্ত করে তুলছিল।

শ্যুটের মাঝে বিকেলবেলা আচমকা কর্তার হাজিরায় সকলেই চমকে ওঠেন। সে দিনই মুম্বই থেকে ফিরেছেন তিনি। কন্যা এবং ভাগ্নির পিছু ধরে তিনিও তার স্ত্রীর ফোটোশ্যুটে এসেছিলেন। মিথিলার লম্বা গাউন দেখে মশকরা করে বললেন, ‘এই পোশাক তো পুরো হাওড়া ব্রিজ।’ আরও নানা বিষয়ে ঠাট্টা করতেই মিথিলার বকা খেয়ে নীচের তলায় চলে গেলেন সৃজিত।

মিথিলাকে সাজানোর দায়িত্ব নিয়েছিলেন কলকাতার তারকা-স্টাইলিস্ট সন্দীপ জয়সওয়াল। তিনি মোট চারটি পোশাকে সাজিয়ে তুলেছিলেন মিথিলাকে।

 
Electronic Paper