‘বাসুদাতে শিখেছি অনেক’

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৪ জুলাই ২০২০ | ৩০ আষাঢ় ১৪২৭

‘বাসুদাতে শিখেছি অনেক’

বিনোদন প্রতিবেদক ৮:০৫ পূর্বাহ্ণ, জুন ০৬, ২০২০

print
‘বাসুদাতে শিখেছি অনেক’

বাসদার হাত ধরেই দুই বাংলার সিনেমা হঠাৎ বৃষ্টিতে অভিনয় বাংলাদেশের নায়ক ফেরদৌসের। বৃহস্পতিবার তার মৃত্যুকে স্মৃতিচারণ করলেন অতীত অজানা অনেক গল্প। ফেরদৌস বলেন, ‘বাসুদার সঙ্গে তো আমার ক্যারিয়ারের হাতেখড়ি। আমার মনে আছে, বাসুদা আমাকে শিখিয়েছেন ক্যামেরার সামনে কীভাবে অভিনয় করতে হয়! উনি যখন বলতেন ডানে তাকাও, বামে তাকাও, তখন আমি ক্যামেরার ডান-বামও ভালো করে বুঝতাম না। উনার সঙ্গে কাজ করতে গিয়ে আমি অনেক কিছু শিখেছি।’

প্রিয় নির্মাতাকে নিয়ে ফেরদৌস আরও বলেন, ‘বাসুদাতে শিখেছি অনেক। ক্যামেরা-লাইট সম্পর্কে বেশি ভালো জানতাম না তখন। বাসুদা আমাকে হাতে-কলমে বুঝিয়ে দিলেন সব। তার কাছ থেকে অভিনয় শিখেছি। তার জন্যই আমার আজকের ফেরদৌস হয়ে ওঠা। তার সঙ্গে তখন যদি ছবি না করা হতো, তাহলে হয়তো দু-একটা ছবি করে অন্য পেশায় চলে যেতাম আমি। তার ছবিতে অভিনয় করেই জীবনের মোড় ঘুরে গেল আমার।’

তিনি আরও বলেন, ‘বাসুদার জন্যই তৈরি হয়েছে ‘হঠাৎ বৃষ্টি’ আর ‘হঠাৎ বৃষ্টি’র জন্যই তৈরি হয়েছে নায়ক ফেরদৌস। আমি আজীবন তাকে মনের ভেতরে লালন করে যাব, ধারণ করে যাব। উনি আমার মেন্টর, আমার গুরু, আমার পিতা ছিলেন। তার সঙ্গে আমার অদ্ভুত একটা সম্পর্ক ছিল। অসাধারণ মানুষ ছিলেন উনি। যখন আমার সঙ্গে মিশতেন তখন মনে হতো উনি আমার ক্লাস ফ্রেন্ড। কখনো মনে হতো শিক্ষক। কীভাবে সময় মেনটেইন করতে হয়, মানুষকে সম্মান করতে হয় সেগুলো আমাকে শিখিয়েছেন উনি।

তার বড়গুণ ছিল, যা বলার মুখের উপরে বলে দিতেন। হাজারও ঘটনা আছে তার সঙ্গে। ২৩ বছরের সম্পর্ক আমাদের। গত কয়েক বছর ধরে তার স্মৃতিশক্তি কমে গিয়েছিল। মনে থাকত না কিছু। আমার সঙ্গে ২০১৯ সালের প্রথম দিকে দেখা হয়েছিল কলকাতায়।