৪১তম জন্মদিন

ঢাকা, শুক্রবার, ২৯ মে ২০২০ | ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

৪১তম জন্মদিন

বিনোদন প্রতিবেদক  ৯:১৪ অপরাহ্ণ, মার্চ ২৮, ২০২০

print
৪১তম জন্মদিন

মুকসুদপুর থেকে ঢাকার গোপীবাগ। লিকলিকে ছেলেটি হঠাৎ বদলে গেলেন। বদলে গেল তার নামও। আজ থেকে ৪১ বছর আগে গোপালগঞ্জে জন্ম নেওয়া মাসুদ রানা ঢাকায় এসে হলেন শাকিব খান। নামটির সঙ্গে যে সেলিব্রেটি শব্দটা বেশ মানানসই। ছেলেটির অভিনয় দক্ষতায় মুগ্ধ সোহানুর রহমান সোহান এই নতুন নাম দিলেন। যার সিনেমা জগতের শুরু সেই ১৯৯৯ সালে ‘অনন্ত প্রেম’। ব্যস সেই তো শুরু শাকিব খানের। এরপর বনে গেলেন ঢাকার বড় পর্দার মহানায়ক। বর্তমানে যেন তিনি নায়ক রাজ রাজ্জাককে ছাড়িয়ে!

করোনায় গতকাল তার জন্মদিনটা সে রকম জাঁকজমক হয়নি। ১৯৭৯ সালের এইদিনে গোপালগঞ্জের মুকসুদপুর উপজেলার রাঘধীতে জন্মগ্রহণ করেছিলেন শাকিব। নিজের নামকরণ নিয়ে শাকিব খান জানান, সোহানুর রহমান সোহান ভাইসহ প্রথম সিনেমার ইউনিট বেশ কয়েকটি নাম পছন্দ করেছিলেন।

সেখান থেকে আমিই শাকিব খান নামটি পছন্দ করেছিলাম।’ শাকিব অভিনয় করেছেন একাধিক নায়িকার সঙ্গে। শুরুতেই এক বছরের মধ্যে শাবনূর, পপি, পূর্ণিমা, মুনমুন তখনকার সেরা ৪ নায়িকার সঙ্গে জুটি বাঁধেন তিনি। সে সময়ের স্মৃতি স্মরণ করতে গিয়ে শাকিব জানিয়েছেন, কাজ পাগল ছিলাম, যখন যে চরিত্র পেয়েছি লুফে নিয়েছি।

অনেক সিনেমায় সেকেন্ড হিরোর চরিত্র পেতাম, তবে না বলতাম না। কারণ আমি জানতাম, পর্দায় মুখ দেখাতে পারলেই নজর কাড়তে পারব।’

নিজের বর্তমান অবস্থানে যেসব সিনেমার অবদান রয়েছে সেগুলোর তালিকায় শাকিব জানলেন, ‘অনন্ত ভালোবাসা’, ‘আমার স্বপ্ন তুমি’, ‘কোটি টাকার কাবিন’ বা ‘প্রিয়া আমার প্রিয়া’... বড় পর্দায় ২১ বছরের ক্যারিয়ারে শাকিব ৪বার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পান। এ নিয়ে তিনি বলেন, ‘সবই দর্শকদের ভালোবাসা।

তারাই আমাকে শাকিব খান বানিয়েছে।’ তবে শাকিব খানের রাজত্ব শুরু ২০০৭ সাল থেকে। ২০০৮ সালে নায়ক মান্নার মৃত্যুর পর শাকিব খানকে আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি। জনপ্রিয় নায়ক থেকে হয়ে উঠেছেন ঢাকাই সিনেমার শীর্ষ নায়ক।

শুধু দেশে নয়, দেশের বাইরেও কাজ করেছেন শাকিব। কলকাতায় শিকারী, নবাব, ভাইজান এলোরে’র মতো সিনেমায় কাজ করে সেখানেও জনপ্রিয়তা পেয়েছেন।