মিডিয়া আমার ভালোলাগা ও ভালোবাসার জায়গা

ঢাকা, সোমবার, ১৯ আগস্ট ২০১৯ | ৩ ভাদ্র ১৪২৬

ক থা সা মা ন্য @ খোলা কাগজ

মিডিয়া আমার ভালোলাগা ও ভালোবাসার জায়গা

সাজ্জাদ হোসেন ৮:২৭ পূর্বাহ্ণ, আগস্ট ০৯, ২০১৯

print
মিডিয়া আমার ভালোলাগা ও ভালোবাসার জায়গা

শাকিব খানের সিনেমায় অভিষেক হওয়া টিভি উপস্থাপিকা, মডেল ও অভিনেত্রী জাহারা মিতু তার অভিজ্ঞতা তুলে ধরেছেন সাজ্জাদ হোসেনকে

শাকিব খানের বিপরীতে সিনেমা দিয়ে ক্যারিয়ার শুরু করছেন, কেমন লাগছে?
নিঃসন্দেহে শাকিব খানের বিপরীতে সিনেমা করা একটা ভালো সুযোগ। আর আমি এ সুযোগ পাওয়াতে নিজেকে ভাগ্যবান মনে করছি। শাকিব খান বাংলাদেশের নম্বর ওয়ান নায়ক। আশা করছি তার সঙ্গে সিনেমা দিয়ে ক্যারিয়ার শুরু করা আমার জন্য ভালোই হবে বলে মনে করি।

বুবলির সঙ্গে নিজের মিল পান কি-না?
আসলে সিনেমায় নাম লেখানোর পর থেকে এই প্রশ্নের মুখোমুখি বারবার হতে হচ্ছে। কিন্তু আমি সবাইকে অনুরোধ করব, প্লিজ আমাকে বুবলি আপুর সঙ্গে মেলাবেন না। তিনি সংবাদ পাঠিকা থেকে নায়িকা হয়েছেন আর আমি এসেছি স্পোর্টস অ্যাংকরিং আর টিভি নাটক থেকে।

কিন্তু দুজনের শুরুটা শাকিব খান কে দিয়ে...
আসলে বিষয়টি কাকতালীয়ভাবেই হয়েছে। দুজনই ছোটপর্দা এবং উপস্থাপনা থেকে এসেছি। তবে দুজনের মধ্যে আসলে তেমন কোনো মিল নেই। বুবলি আপু আমার সিনয়র, তিনি মিডিয়ায় বেশ কিছুদিন থেকে কাজ করছেন এবং ভালো করছেন। আর আমি সম্পূর্ণ নতুন। আবার আমি কয়েকটি বিউটি কনটেস্টে উত্তীর্ণ হয়ে এসেছি, তাই তার সঙ্গে আপাতত নিজের কোনো মিল খুঁজতে চাই না। আমি আমার স্বাতন্ত্র্য বৈশিষ্ট্য দিয়েই সিনেমায় ক্যারিয়ার শুরু করতে চাই।

সিনেমায় নতুন কাজ করছেন, সফলতার ব্যাপারে কতটা আশাবাদী?
আমি এক বছর ধরে টিভি নাটকে অভিনয় করছি। সেই সঙ্গে মডেলিং, স্পোর্টস প্রেজেন্টার হিসেবে বিপিএলের মতো বড় আয়োজনে অংশ নিয়েছে। তাই বলা যায় ক্যামেরার সামনে আমি একেবারে নতুন না। তবে সিনেমার ক্ষেত্রে আমার জানাশোনা সামান্যই। মাত্র এক মাসের। টিভি নাটক, উপস্থাপনার দর্শক আর বাংলা সিনেমার দর্শক সম্পূর্ণ বিপরীত।

তারপরও যেহেতু আমি সিনেমায় কাজ করছি আশা করছি আমার শতভাগ দিয়ে সিনেমার সঙ্গে নিজেকে খাপ খাওয়াতে সক্ষম হবো। সবে কাজ শুরু করেছি, এখনো ইনডোরের কাজই হচ্ছে তাই সিনেমার সফলতা ব্যর্থতার বিষয়ে কথা বলতে চাই না। তবে প্রথম সিনেমার সফলতার ব্যাপারে আমি আশাবাদী।

সিনেমায় জুটির ব্যাপারটা আপনি কতখানি বিশ্বাস করেন?
সিনেমায় জুটির ব্যাপারটি দেশ বিদেশের সব জায়গাতে রয়েছে। আসলে এটি তৈরি হয় মূলত দর্শকদের চাহিদার ওপর। যেমন আমাদের দেশের সিনেমার অতীতে রাজ্জাক-কবরী কিংবা সালমান শাহ-শাবনূরের মধ্যে ভালো জুটি ছিল। এখনো সিনেমায় সফলতার ওপর অনেক জুটি গড়ে উঠছে। এটা সিনেমার জন্য ভালোই।

শাকিব খানের সঙ্গে আপনার জুটি গড়ে ওঠার ব্যাপারে আপনি কতখানি আশাবাদী?
আমাদের প্রথম ছবি আগুন মুক্তি পাক। সেটি যদি সফল হয় আর দর্শক যদি চান তাহলে জুটি গড়ে উঠতে পারে। তবে এটাও ঠিক অভিনয়ের ক্ষেত্রে আমি একজন নির্দিষ্ট কারও বিপরীতে ছাড়া অভিনয় করব না এমন চিন্তা ভাবনা করি না।

প্রথম সিনেমাকে স্রেফ ব্রেক নাকি দীর্ঘ ক্যারিয়ারের শুরু হিসেবে দেখছেন?
আমি সিনেমাতে দীর্ঘস্থায়ী ক্যারিয়ারের লক্ষ্যেই নিজেকে তৈরি করছি। আপনার মাধ্যমে আমি আমার ভক্তদের জানাতে চাই, সব কিছু ঠিকঠাক থাকলে আমি দেশ বাংলা মাল্টিমিডিয়ার সঙ্গে একটি দীর্ঘ চুক্তিতে যাচ্ছি। ফলে সামনে আমাকে বড় পর্দায় নিয়মিত দেখা পাওয়ার সম্ভাবনা বেশি।

ফ্যাশন ডিজাইনার থেকে মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ, তারপর সিনেমায় অভিনয়। কোনটিকে বেশি গুরুত্ব দিতে চান?
আমি এখনো নিজেকে ফ্যাশন ডিজাইনার হিসেবে পরিচয় দিতেই ভালোবাসি কিন্তু মিডিয়া আমার ভালোলাগা ও ভালোবাসার জায়গা।

আপনার সিনেমা মুক্তির আগেই এতো হইচই এর কারণ কী?
আসলে আগে থেকেই আমার একটি পরিচিতি ছিল। আমার কাজের শুরু থেকেই আমি সাংবাদিক ভাইদের সাপোর্ট পেয়েছি। এজন্য আমি কৃতজ্ঞ। আমি চেষ্টা করি আমার ভালো ব্যবহার দিয়ে সবার মন জয় করতে। এটাই কারণ হতে পারে।

আপনার তিনটি গুণ বলেন যার কারণে সিনেমায় আপনি সফল হবেন?
নিজের গুণ নিজে বলা আসলে বেমানান। কিন্তু আমি মনে করি সিনেমায় সফল হতে হলে ভালো ব্যবহার, গ্লামার ও ট্যালেন্ট এই তিনটি জিনিস থাকা খুব জরুরি।

সময় দেওয়ার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ
আপনাকেও অসংখ্য ধন্যবাদ।