কান চলচ্চিত্র উৎসব-২০১৯

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২১ মে ২০১৯ | ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

কান চলচ্চিত্র উৎসব-২০১৯

এবারের আয়োজন

বিনোদন ডেস্ক ২:৫৮ অপরাহ্ণ, মে ১৫, ২০১৯

print
কান চলচ্চিত্র উৎসব-২০১৯

সেলুলয়েডের তীর্থস্থান ফ্রান্সের কান সৈকতে প্রতিবছরের মতো এবারও বসেছে ৭২তম কান আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব। গতকাল মঙ্গলবার শুরু হওয়া এ আয়োজন চলবে আগামী ২৫ মে পর্যন্ত। কানে একদিকে ছবিগুলোর উদ্বোধনী প্রদর্শনী হবে, অন্যদিকে মুহূর্তেই বিশ্বজোড়া সিনেমাপ্রেমীদের কাছে সেগুলো হয়ে উঠবে আলোচনার মূল বিষয়বস্তু। বরাবরের মতো কানের জমকালো রেড কার্পেটে হলিউড-বলিউডের তারকাদের এবারও দেখা মিলবে। তাই জমজমাট এই আয়োজনের দিকে তাকিয়ে থাকেন চলচ্চিত্রানুরাগীরা। সাগরপাড়ের শহরটিতে এখন কোলাহল। রুপালি পর্দায় গল্পের বৈচিত্র্য আর লালগালিচার জৌলুসের সম্মিলন দেখার আশায় অসংখ্য চলচ্চিত্রপ্রেমী হাজির ফরাসি উপকূলে।

মূল পোস্টারে অ্যানিস ভার্দা
এবারের আয়োজনের অফিশিয়াল পোস্টার উৎসর্গ করা হয়েছে ফ্রান্সের নারী চলচ্চিত্রকার অ্যানিস ভার্দাকে। তিনি চলতি বছরের ২৯ মার্চ ৯০ বছর বয়সে মারা যান। পোস্টারে দেখা যাচ্ছে, টেকনিশিয়ানের কাঁধের ওপর দাঁড়িয়ে এক নারী চোখ রেখেছেন ক্যামেরায়। ক্যামেরায় তাকানো এই নারীই ভার্দা। তখন তার বয়স ছিল ২৬। ১৯৫৪ সালে ভার্দা পরিচালিত প্রথম সিনেমা ‘লা পোয়ান্ত কোর্ট’ ছবির শুটিংয়ের সময় ছবিটি তোলা।

‘দ্য ডেড ডোন্ট ডাই’ দিয়ে শুরু উৎসব
এবারের আসর শুরুতে দেখানো হচ্ছে জোম্বি-কমেডি ঘরানার আমেরিকান সিনেমা ‘দ্য ডেড ডোন্ট ডাই’ ছবিটি। লুমিয়া থিয়েটারে প্রদর্শনের মাধ্যমে ‘ওয়ার্ল্ড প্রিমিয়ার’ ইতোমধ্যে হয়ে গেছে। একই সঙ্গে ছবিটি লড়ছে সেরা ছবির বিভাগে অর্থাৎ পাম ডিওর পুরস্কারের জন্য। ছবিটি পরিচালনা করেছেন জিম জারমাশ। এই স্বাধীন চলচ্চিত্র নির্মাতা ১৯৮৪ সালে জিতে নিয়েছিলেন ক্যামেরা ডিওর পুরস্কার।

পূর্ণদৈর্ঘ্য কাহিনীচিত্র
এ বছর ১ হাজার ৮৪৫টি পূর্ণদৈর্ঘ্য কাহিনীচিত্র জমা পড়েছে। গত বছর এর সংখ্যা ছিল ১ হাজার ৯১৬টি। এর মধ্যে মূল পর্বে লড়বে ২২টি চলচ্চিত্র।

স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র
নির্বাচক কমিটি জমা পড়া ৪ হাজার ২৪০টি স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র পর্যালোচনা করেছেন। এর মধ্যে নির্বাচিত হয়েছে ১১টি। গত বছর ৪ হাজার ২৭৪টি স্বল্পদৈর্ঘ্য ছবি থেকে বেছে নেওয়া হয় ৮টি।

পাম ডিওর লড়াই
মূল প্রতিযোগিতার বিভাগে এবার লড়াই করছে বিভিন্ন দেশের বিভিন্ন ঘরানার ২২টি সিনেমা। এর মধ্যে ‘আন সার্টেইন রিগার্ড’-এ ১৮টি, আউট অব কম্পিটিশন-এ ৫টি, মিডনাইট স্ক্রিনিং-এ দুটি এবং স্পেশাল স্ক্রিনিংস-এ ১০টি সিনেমা রয়েছে। মূল প্রতিযোগিতায় প্রতিদ্বন্দ্বিতা করা ছবিগুলো থেকে একটি ছবির নাম ঘোষণা করবে ৯ সদস্যবিশিষ্ট জুরি বোর্ড। ফিচার ফিল্মের এই জুরিদের প্রধান আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন মেক্সিকান চলচ্চিত্র পরিচালক আলেখান্দ্র গঞ্জালেস ইনারিতু। এই কমিটি যে ছবির নাম ঘোষণা করবেন, সেই ছবির হাতে উঠবে কানের সর্বোচ্চ পুরস্কার পাম ডিওর। আর এ ঘটনাটি ঘটবে আজ রাতেই।

আয়োজনে নারী-পুরুষের সমতা
এবারের আসরে ৫০৬ জন পুরুষ ও ৪৬৮ জন নারীসহ মোট ৯৭৪ জন কাজ করছেন। অর্থাৎ ৪৮ শতাংশই নারীকর্মী। নির্বাচক কমিটিতেও থাকছে সমতা, এ বছরের শুরুতে উৎসব উপলক্ষে গঠিত নির্বাচক কমিটিতে চারজন পুরুষ (পল গ্র্যান্ডার্ড, লঁহা জ্যাকব, এরিক লিবিও, লুসিয়েন লোজেত) ও চারজন নারী (ভার্জিনি আপিউ, স্টেফানি লামোম, গিমেত অদিসিনো, মারি সোভিয়ন) দায়িত্ব পালন করছেন।
অফিশিয়াল সিলেকশনের চারটি বিভাগে বিচারকদের প্রধানদের মধ্যেও রয়েছে লিঙ্গ সমতা মূল প্রতিযোগিতায় মেক্সিকোর অস্কারজয়ী নির্মাতা আলেহান্দ্রো গঞ্জালেজ ইনারিতু, আঁ সার্তে রাগারে লেবানিজ পরিচালক নাদিন লাবাকি আর স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ও সিনেফঁদাসোতে ফরাসি নির্মাতা ক্লেয়ার ডেনিস, ক্যামেরা দর বিভাগে কম্বোডিয়ান পরিচালক রীতি পান। মূল প্রতিযোগিতায় আট বিচারকের চারজন পুরুষ ও চারজন নারী।

থাকছেন দীপিকা-সোনম-ঐশ্বরিয়া
আগামী ১৬ মে রূপের পসরা নিয়ে হাজির হবেন বলিউড কাঁপানো দীপিকা পাড়ুকোন। কানের লালগালিচায় সোনম কাপুর দ্যুতি ছড়াবেন ২০ ও ২১ মে। আগামী ১৯ মের পর কানে দেখা দেবেন ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চন।

থাকছে বাংলাদেশও
এবারের কান উৎসবে রয়েছে বাংলাদেশের অংশগ্রহণও। তরুণ চলচ্চিত্র নির্মাতা মেহেদী হাসানের প্রকল্প ‘স্যান্ড সিটি’ স্থান করে নিয়েছে কান চলচ্চিত্র উৎসবের মর্যাদাপূর্ণ ‘লা ফ্যাব্রিক দ্য সিনেমা দ্য মুন্দ’ বিভাগে। এই বিভাগে ২০১৪ সালে কামার আহমাদ সাইমনের প্রকল্প ‘শঙ্খধ্বনি’র পর দ্বিতীয় ব্যক্তি হিসেবে মেহেদী হাসান এ সম্মান বয়ে আনলেন।

প্রস্তুত হোটেল মোটেল পর্যটনকেন্দ্র
বছরের সবসময়েই পর্যটকদের আনাগোনা থাকলেও কান উৎসবের বিষয়টি আলাদা। প্রচুর পর্যটকের পাশাপাশি পুরো বিশ্বের নামি তারকা, নির্মাতা, সাংবাদিক, ফিল্ম সমালোচকদের মেলা বসেছে এই শহরে। আগত পর্যটক ও অতিথিদের জন্য প্রস্তুত রাখা হয়েছে হোটেল, মোটেল, সমুদ্রসৈকতসহ বিভিন্ন পর্যটনকেন্দ্র। কান উৎসব শুরুর সঙ্গে সঙ্গে শহরের টু স্টার হোটেলের রুমগুলোর এক রাতের ভাড়া হয়ে গেছে ৪০ ইউরো (৪৫ ডলার) থেকে ২৬০ ইউরো। তবে এ সময়ে শহরের জনসংখ্যা প্রায় তিনগুণ বেড়ে যাওয়ায় এই পরিস্থিতি।

রেস্টুরেন্টগুলোতে বাড়ছে ভিড়
কান উপলক্ষে বেড়ে গেছে মানুষ, সেই সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বেড়েছে রেস্তোরাঁর খাবারের দামও। নানা দেশের মানুষের চাহিদা মতো খাবার পরিবেশন করা এই হোটেলগুলো স্থানীয় জনপ্রিয় খাবারগুলোর দাম বাড়িয়ে দিয়েছে কান উৎসবের সময়।