নাশকতার মামলায় মনির খানের বিচার শুরু

ঢাকা, রবিবার, ২৯ মে ২০২২ | ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯

Khola Kagoj BD
Khule Dey Apnar chokh

নাশকতার মামলায় মনির খানের বিচার শুরু

বিনোদন ডেস্ক
🕐 ৬:৪৬ অপরাহ্ণ, মে ১১, ২০২২

নাশকতার মামলায় মনির খানের বিচার শুরু

নাশকতার মামলায় জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী মনির খানের বিচার শুরু হয়েছে। বুধবার (১১ মে) মনির খানের আইনজীবী সৈয়দ জয়নুল আবেদীন মেজবাহ ও শেখ শাকিল আহম্মেদ রিফন গমাধ্যমকে নিশ্চিত করেন বিষয়টি।

নাশকতা ও আইন-শৃঙ্খলারক্ষাকারী বাহিনী পুলিশের কাজে বাধা দেয়ার অভিযোগে করা মামলায় সংগীতশিল্পী মনির খানসহ ৭১ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন ঢাকার অতিরিক্ত চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আবু বকর সিদ্দিক।

এর আগে ২০১৮ সালে রাজধানীর পল্টন থানায় নাশকতা ও পুলিশের কাজে বাধা দেয়ার অভিযোগে পল্টন থানায় পুলিশ বাদী হয়ে মামলা করে। তদন্ত শেষে মামলার অভিযোগপত্র ২০১৯ সালে জমা দেয়া হয়।

এদিকে ‘আট আনার জীবন’ খ্যাত এই সংগীতশিল্পী ‘চ্যানেল 24 অনলাইন’কে জানান, আমি মঙ্গলবারই (১০ মে) একটি মামলার হাজিরা দিয়েছি।

নাশকতার মামলার বিষয়ে তিনি বলেন, এটা অনেক আগের কথা। সেই সময় বিএনপির রাজনীতি করতাম। তখন একটি মামলায় অজ্ঞাতনামা আসামি করা হয়। কিন্তু যখন নাশকতা করা হয় তখন আমি বাড়ি ছিলাম। ঘটনার সঙ্গে জড়িত না থাকার পরও যেহেতু মামলায় নাম এসেছে তাই আদালতের প্রতি শ্রদ্ধা রেখে হাজিরা দিচ্ছি।

এর আগে ২০১৮ সালে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ঝিনাইদহ-৩ (মহেশপুর-কোটচাঁদপুর) আসন থেকে বিএনপি থেকে নির্বাচনের জন্য মনোনয়ন চেয়েছিলেন মনির খান। প্রাথমিকভাবে মনোনয়নের চিঠি পেয়ে জমাও দিয়েছিলেন তিনি। কিন্তু দল থেকে মনোনয়ন না পাওয়ায় অভিমান করে দল ও রাজনীতি থেকে পদত্যাগ করেন মনির খান।

২০০৮ সাল থেকে সক্রিয়ভাবে বিএনপিতে যুক্ত হন ‘অঞ্জনা’ খ্যাত এই শিল্পী। সংগীতের পাশাপাশি রাজনীতির মাঠেও বেশ সক্রিয় ছিলেন মনির খান। রাজনীতিতে প্রথমে জিয়া সাংস্কৃতিক সংগঠনের (জিসাস) মহাসচিব হিসেবে যোগদান করেন তিনি। এরপর সাংগঠনিক কর্মকাণ্ডে তার প্রতি সন্তুষ্ট হয়ে জাতীয়তাবাদী সামাজিক সাংস্কৃতিক সংস্থার (জাসাস) সাধারণ সম্পাদক ও বিএনপির সহ-সংস্কৃতিবিষয়ক সম্পাদক করা হয়েছিল তাকে। এরপর রাজনীতি থেকে বিদায় নেয়ার পর ভক্ত-শ্রোতাদের জন্য গানে নিয়মিত হন তিনবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পাওয়া এই সংগীতশিল্পী।

 
Electronic Paper